অভাবের সংসারে পড়ালেখা থেমে গেলেও থেমে যায়নি স্বপ্ন; বিমান তৈরি করে উড্ডয়ন করলেন এক যুবক

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Monday, February 26, 2024 | 2/26/2024 12:04:00 AM

এস.এম.রকি,খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : অভাবের সংসারে পড়ালেখা থেমে গেলেও লক্ষ্য পূরণে পিছপা হয়নি। এমনই এক ঘটনা ঘটেছে দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার প্রত্যন্ত ভান্ডারদাহ গ্রামে। এই গ্রামের নুরল মেম্বার পাড়ার ২৩ বছর বয়সী যুবক আলমগীর তৈরী করলেন এক বিমান। তাঁর তৈরী এই বিমান প্রায় এক কিলোমিটার দূরত্বে প্রায় আধাঘন্টা উড়তে পারে। যুবকের এই উদ্ভাবন দেখতে প্রতিদিন ভিড় করেন আশপাশের গ্রামের অনেক মানুষ। তাঁর এই কাজে সে এখন প্রশংসিত হচ্ছে।
স্বপ্ন ছিল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার কিন্তু অভাবের সংসারে ২০১৯ সালে উচ্চ মাধ্যমিকেই থেমে যায় উপজেলার খামারপাড়া ইউনিয়নের ভান্ডারদাহ গ্রামের আব্দুল মজিদ ও জাহানারা বেগম দম্পতির ছোট ছেলে আলমগীর। বাড়ির কাজের পাশের পাশাপাশি চুক্তিভিত্তিক স্যালোমেশিন দিয়ে পানি দেওয়া ও বিভিন্ন কাজের সাথে সম্পৃক্ত এ যুবক। তিন ভাইয়ের মধ্যে ছোট এই যুবক প্রাইমারী স্কুলে পড়ার সময় থেকেই বিভিন্ন ইলেকট্রনিকস পণ্য তৈরীর কাজে সময় ও অর্থ ব্যয় করেছেন। 
অনলাইন ও ইউটিউব থেকে ধারণা নিয়ে সময়ের সাথে তাঁর এই উদ্ভাবনী কার্যক্রম বৃদ্ধি পেয়েছে। তাঁর সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রায় ৩-৪ বছর ধরে সাথে বিভিন্ন মডেলের বিমান তৈরী করে উড্ডয়নের চেষ্টা করেছে। কিন্তু সেটি সফল হয়েছে ২০২৪ সালে। এর পূর্বে অনেক বিমান তৈরী করেছে ভেঙেছে আবার নতুন করে তৈরী করেছে। ছেচনা মডেলের বিমানটি গত ডিসেম্বর থেকে চূড়ান্তভাবে তৈরীর কাজ করে ফেব্রুয়ারী মাসের শুরুতে শেষ হয়।
এরপরে বাড়ির পাশে খেলার মাঠে পরীক্ষামূলক ভাবে বিমানটি উড্ডয়ন করলে এলাকা জুড়ে হৈচৈ পড়ে যায়। দেখতে বাড়ছে ভিড়। প্রায় ১২ হাজার টাকা দিয়ে তৈরী এই ছোট বিমানের মূল বডি ককশিট দিয়ে তৈরি করেছেন আলমগীর। এছাড়া ট্রান্সমিটার, রিসিভার, লিপো ব্যাটারি, শক্তির জন্য ব্রাসলেস মোটর ও ছোট ফ্যান ও চাকা রয়েছে। একটি রিমোট বিমানটি আকাশে উড়িয়ে নিয়ন্ত্রণ হয়। তাঁর বাবা-মায়ের সাথে কথা বলে জানা যায়, ছোটবেলা থেকেই সে বিভিন্ন প্রকার যন্ত্র তৈরীর কাজের সাথে সম্পৃক্ত। তাঁর উপার্জিত অর্থ দিয়ে সে এসব তৈরী করে। এখন বিমান তৈরী করায় এলাকার সবাই দেখতে আসতেছে। সংশ্লিষ্টদের যদি সুদৃষ্টি ও সহযোগিতা পাওয়া যায় তাহলে আমার ছেলের স্বপ্ন অনেকটাই পূরণ হবে। 
শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারী) সরেজমিনে ঐ এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, স্থানীয় খেলার মাঠে ছোট বিমান উড্ডয়ন করছেন আলমগীর। এসব উৎসুক জনতা ও স্থানীয়দের উপচে পড়া ভিড়। ঐ এলাকার সামসুল ইসলাম নামে এক যুবক বলেন, আলমগীরের এই কাজে আমরা এলাকাবাসী গর্বিত। অস্বচ্ছলতার কারণে সে তাঁর প্রতিভা বিকশিত করতে পারছে না তাই সবার সুদৃষ্টি প্রয়োজন। এই বিমান নির্মাতা আলমগীর ইসলাম বলেন, ছোটবেলার স্বপ্ন ছিল বিমান তৈরীর সেটি আজ পূরণ হয়েছে। তবে আমার একটি ল্যাপটপ ও আর্থিক ভাবে সক্ষমতা থাকলে এই ছোট বিমানটি আরো উন্নত করা যেত। সেই সাথে সহায়তা পেলে আমার শৈশবের এই স্বপ্ন পূরণের ধাপ আরো এগিয়ে যেত।
উদ্ভাবনী এই কাজের প্রশংসা করে খানসামা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তাজ উদ্দিন বলেন- এমন উদ্ভাবনী কার্যক্রম স্মার্ট বাংলাদেশ বির্মাণের অগ্রযাত্রায় একটা উদাহরণ। এই প্রযুক্তি বিকাশে প্রশাসন তাঁর পাশে থাকবে।

বিরামপুর উপজেলায় ১০৩ বছরের বৃদ্ধা স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র নিলেন

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Sunday, February 25, 2024 | 2/25/2024 11:48:00 PM

ইব্রাহীম মিঞা, বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার পৌরশহরে ৪ নং ওয়ার্ডের ঐতিহ্যবাহী আনসার মাঠে ১০৩ বছরের রাবেয়া বেগম নাতি বৌয়ের কাঁধের উপর ভর করে গ্রহণ করলেন স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র। রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বিরামপুর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন এবং পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের ঐতিহ্যবাহী আনসার মাঠ প্রাঙ্গনে আনসার ভিডিপি কিন্ডার গার্ডেন স্কুলে ভোটারদের মাঝে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ করা হয়েছে।
এ সময় বিরামপুর পৌরসভার মেয়র আক্কাস আলী, বিরামপুর সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অদ্বৈত্য কুমার, বিরামপুর মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মেসবাউল হক, বিরামপুর ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোজাফফর রহমান,৪ নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর ওবায়দুল মিনহাজসহ ১০৩ বছরের বৃদ্ধা রাবেয়া বেগম স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র গ্রহণ করেন। রাবেয়া বেগম ১০৩ বছরে এসে স্মার্ট জাতীয় পরিচয় পত্র পেয়ে খুব আনন্দ প্রকাশ করেন।
স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র গ্রহণের আগে জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে একটি টোকেন সংগ্রহে উপজেলা নির্বাচন অফিসের পাশাপাশি স্থানীয় সমাজ কল্যাণমূলক সংগঠন সোনালী স্বপ্ন ক্রীড়া সংঘের সদস্যগন স্মার্ট জাতীয় পরিচয় পত্র গ্রহণে বিনামূল্যে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করে।
বিরামপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসার খন্দকার মোহাম্মদ আলী জানান, বিরামপুর পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের ৩ হাজার ৮০০ স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্রের মধ্যে আজকে ৩ হাজার ৫০ জনকে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদান করা হয়েছে।যাহারা স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র কোন কারনে গ্রহণ করতে পারে নাই পরবর্তীতে ৪/৩/২০২৪ ইং পৌরসভা কার্যলয় হতে গ্রহণ করতে পারবেন।

ওরা আমাকে কাফনের কাপড় পরায়ে ছাড়ছে

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : ‘আমি বাঁচতে চেয়েছিলাম। নরপশুরা আমাকে বাঁচতে দেয়নি। ওরা আমাকে কাফনের কাপড় পরায়ে ছাড়ছে - এই সুইসাইড নোট লিখে শাহারিয়ার জান্নাত ছোঁয়া (১৬) নামের এক স্কুলছাত্রী আত্নহত্যা করেছে। 
এ ঘটনার পর শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) কথিত প্রেমিক ও আত্মহত্যার প্ররোচনা দেওয়ার কাজে অভিযুক্ত রায়হান কবীর মজিদের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি করেছে এলাকাবাসী।
ওই দিন বিকেলে উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের কাটগড়া দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে শিক্ষার্থী, স্বজন ও স্থানীয় সচেতন মহলের আয়োজনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরের কাঠগড়া হাট এলাকা প্রদক্ষিণ করে। ভুক্তভোগী শাহারিয়ার জান্নাত ছোঁয়া মনমথ গ্রামের শাহাজানের মেয়ে। সে কাটগড়া দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী।
অভিযুক্ত বখাটে প্রেমিক রায়হান কবীর মজিদ (১৭) বামনডাঙ্গা রেল কলোনি এলাকার মৃত শহিদুল ইসলামের ছেলে এবং রংপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট কলেজের শিক্ষার্থী। এ মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন শাহরিয়ার জান্নাত ছোঁয়ার বাবা শাহাজান মিয়া, ফুফাতো বোন সুরভি আক্তার, ফুফা শফিকুল ইসলাম, সহপাঠী আপন কুমার ও আপন মিয়া প্রমুখ।

চিলাহাটিতে কৃষি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ বিষয়ক পরামর্শ দিচ্ছে শার্প

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Thursday, February 22, 2024 | 2/22/2024 04:11:00 PM


আপেল বাসুনীয়া, চিলাহাটি ওয়েব : নীলফামারী জেলার চিলাহাটিতে কৃষি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ বিষয়ক পরামর্শ দিচ্ছে বেসরকারি সামাজিক উন্নয়ন সংস্থা শার্প।
কৃষি প্রধান বাংলাদেশের বিশাল জনগোষ্ঠীর খাদ্য নিরাপত্তা, কর্মসংস্থান দারিদ্র বিমোচন ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনে কৃষির ভূমিকা অপরিসীম।
পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) এর কৃষি ইউনিট এবং মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ ইউনিট এর আর্থিক ও কারিগরি সহযোগিতায় সহযোগী সংস্থা সেলফ-হেল্‌প এন্ড রিহেবিলিটেশন প্রোগ্রাম (শার্প) মাঠ পর্যায়ে কৃষি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ ভিত্তিক বিভিন্ন প্রযুক্তি সম্প্রসারণ ও প্রতিরূপায়ণ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে।
ইউনিট দুটি কৃষি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ উন্নয়নের মাধ্যমে কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে কারিগরি পরামর্শ, কৃষকদের নতুন প্রযুক্তি গ্রহণের উদ্বুদ্ধকরণ, কৃষক ও কর্মকর্তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধি, প্রক্রিয়াজাতকরণ ও বাজারজাতকরণসহ বিভিন্ন পরিষেবা প্রদান করছে।
সেলফ-হেল্‌প এন্ড রিহেবিলিটেশন প্রোগ্রাম (শার্প) চিলাহাটি শাখার প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডঃ মোশারফ হোসেন বলেন- আমরা চিলাহাটিতে ২০১৫ সালে আসি। আমরা কৃষি পরামর্শ কেন্দ্র আয়োজনের মাধ্যমে শার্প সদস্যদের কৃষি, মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ বিষয়ক সেবা প্রদান, মৎস্য খাতের আওতায় মাছ চাষের সহায়তার উপকরণ প্রদান এবং মুক্ত জলাশের পোনা অবমুক্ত করন কার্যক্রম, নিবির পদ্ধতিতে খাসির মোটা তাজা করণ প্রশিক্ষণ প্রদান করি।
এছাড়াও প্রযুক্তির সম্প্রসারণের লক্ষ্যে সদস্য পর্যায়ে প্রদর্শনী খামার স্থাপন, পেকিন হাঁস, চিনা হাঁস, রাজ হাঁস, দেশি মুরগি, বাউ মুরগি, লেয়ার মুরগি পালন ও মৎস্য খাতে (বাহারী মাছ) রঙিন মাছ চাষে সার্বিক সহযোগিতা ও পরামর্শ দিচ্ছি।

ঘুম থেকে উঠেই মোবাইল দেখলে যেসব ক্ষতি হয়

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Wednesday, February 21, 2024 | 2/21/2024 08:32:00 PM

চিলাহাটি ওয়েব, রকমারি ডেস্ক : যদি কারোর কাছে জানতে চাওয়া হয় আপনি সকালে ঘুম থেকে উঠেই কী করেন?
অধিকাশ মানুষই উত্তর দেবে বালিশের পাশে রাখা মোবাইলটি হাতে নিই। হতে পারে অ্যালার্ম বন্ধ করার জন্য। তবে যে কারণেই ফোন হাতে নেওয়া হোক না কেন, এই অভ্যাস দিয়ে দিন শুরু করলে দিনটি মোটেও ভালো যাবে না। কারণ এর রয়েছে অনেক ক্ষতিকর দিক। যা আপনার শারীরিক ও মানসিক নানা ক্ষতি করে।
চলুন, জেনে নেওয়া যাক সকালে ঘুম থেকে উঠেই ফোন হাতে নিলে কী ক্ষতি হয়- আমাদের শরীরের সুস্থতার জন্য মেটাবলিজম প্রক্রিয়া ঠিকভাবে হওয়া জরুরি। কোনো কারণে এটি বাধাগ্রস্ত হলে বা ঠিকভাবে চলতে না পারলে তার স্পষ্ট প্রভাব পড়ে শরীরে।
এটি মানসিকভাবেও ক্ষতি করতে পারে। আপনি যদি সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরই মোবাইল ফোনটি হাতে নেন তাহলে তা আপনার শরীরে মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব ফেলবে।
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এর ফলে কমতে থাকে মেটাবলিজম ক্ষমতা। শুধু তাই নয়, সেইসঙ্গে দেখা দিতে পারে ভীষণরকম মাথা যন্ত্রণা।

উলিপুরে প্রধান শিক্ষকের বিদায় সংবর্ধনা

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি : কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার শান্তিপুকুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক এস. এম আলম হোসেনের অবসর জনিত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গত মঙ্গলবার বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক, প্রাক্তন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা তাঁকে বিদায় জানান। এ উপলক্ষে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন, এসএমসির সভাপতি রিয়াজুল ইসলাম। সহকারি শিক্ষক হাফিজুর রহমান সেলিমের সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বিদ্যালয়ের সহ-সভাপতি সোনাউল্ল্যাহ মিয়া, বিদায়ী প্রধান শিক্ষক এস. এম আলম হোসেন, আরিফিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম আনছারী, কালুডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্রী সিতেন্দ্রনাথ বর্মন, দড়ি কিশোরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক ফরিদুল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আহসান হাবীব, প্রাক্তন ছাত্র নুর আলম প্রমূখ।
এ ছাড়াও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, অভিভাবকসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। বিদায়ী শিক্ষক এস. এম আলম হোসেন ১৯৮১ সালের ২৬ জানুয়ারি চাকুরিতে যোগদান করে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি বর্ণাঢ্য চাকুরিজীবন শেষ করে অবসর গ্রহণ করেন। তাঁকে বিদ্যালয়ের শিক্ষক, কচিকাচা শিক্ষার্থী, প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী, অভিভাবক ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছায় অশ্রুসিক্ত বিদায় জানান

পলাশবাড়ীতে ৩৯৭ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক ২

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা :  জেলার পলাশবাড়ীতে একটি পিকআপ ভ্যান থেকে ৩৯৭ বোতল ফেনসিডিলসহ ২ জনকে আটক করেছে র‍্যাব ১৩। আটকরা হলেন গাড়িচালক মিয়া রংপুরের কোতয়ালীর ডেওডোবা নেকারপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুস সালাম মিয়ার ছেলে ও আমিনুল ইসলাম রতন মিয়া (৩০) ও পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার কমলা পুকুরী গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে আমিনুল ইসলাম (৪২)। বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) র‍্যাব-১৩, গাইবান্ধা ক্যম্পের স্কোয়াড্রন লিডার মাহমুদ বশির আহমেদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) র‍্যাব-১৩, গাইবান্ধা ক্যম্পের একটি অভিযানিক দল গোপন সংবাদে পলাশবাড়ীর মাঠেরহাট এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। এসময় একটি পিকআপ ভ্যান তল্লাশি করে ৩৯৭ বোতল ফেনসিডিলসহ ওই দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সেই সাথে গাড়িটিও জব্দ করা হয়।
র‍্যাব-১৩, গাইবান্ধা ক্যম্পের স্কোয়াড্রন লিডার মাহমুদ বশির আহমেদ বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে, গ্রেফতার ব্যক্তিরা দীর্ঘদিন ধরে মাদক কারবারের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। এদেরকে পলাশবাড়ী থানায় হস্তান্তর করা হয়।