চিলাহাটি ওয়েব ডট কম |

বদরগঞ্জে নদ-নদীর বালু উত্তোলন অব্যাহত নেপথ্যে কারা?

Posted by News Editor | Monday, September 25, 2017 | Posted in

আকাশ রহমান, বদরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : রংপুরের বদরগঞ্জে প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে বিভিন্ন নদ-নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলণ করছেন প্রভাবশালী ব্যক্তিরা। অব্যাহত বালু উত্তোলনের ফলে লোক সমাজ, কাঁচাপাকা রাস্তাঘাট ও নদী প্রকৃতির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে। তথাপিও বিভিন্ন প্রশাসনিক দপ্তরে একের পর এক অভিযোগ করেও বালু উত্তোলণ বন্ধ হচ্ছেনা। যার ফলে সচেতন মহলে প্রশ্ন উঠেছে বালু উত্তোলনের নেপথ্যে রয়েছে কারা? কাদের মদদে উত্তোলণ করা হচ্ছে নদ-নদীর বালু? খোঁজ নিয়ে জানা যায়, উপজেলার বুকচিরে বয়ে যাওয়া যমুনেশ্বরী, চিকলী ও করতোয়া নদীর হাপ ড’জন খানেক পয়েন্টে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বালু উত্তোলণ করছেন স্থানীয় প্রভাবশালীরা। মূলত বদরগঞ্জের অর্ধ শতাধিক ইটভাটা, বিভিন্ন স্থানাপনা সড়ক নির্মাণকে কেন্দ্র করে অপরিকল্পিতভাবে নদীর বালু উত্তোলন করায় যানবাহনের চাপে গ্রামগঞ্জের কাঁচাপাকা সড়কের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে। এছাড়াও বালু উত্তোলনের ফলে বর্ষা মৌসুমের পর নদী ভাঙ্গন বৃদ্ধি পাওয়ায় তীরবর্তী অঞ্চলের গ্রামগঞ্জ, রাস্তাঘাট ও ফসলী জমি নদীগর্ভে বিলিন হওয়ার আশংকা করা হচ্ছে। অথচ গত এক বছরে বালু উত্তোলণ বন্ধের ব্যাপারে বিভিন্ন দপ্তরে একাধিক লিখিত অভিযোগ করেও কোন কাজ হয়নি। কারণ এই কাজের নেপথ্যে রয়েছে অশুভ শক্তির শুভার্শিবাদ। সেই আশির্বাদে বছরের পর পর ধরে গরুর গাড়ির মত ধিরগতিতে চলছে নদ-নদীর বালু উত্তোলণ। গতকাল রোববার রাধানগর ইউনিয়নের পাঠানপাড়া এলাকায় চিকলী নদীতে গিয়ে দেখা যায় স্থানীয় বিএনপি নেতা আশরাফুল হকের বাণিজ্যিকভাবে বালু উত্তোলনের দৃশ্যপট। তার লোকজন নদীতে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বাণিজ্যিকভাবে বালু উত্তোলন করছেন। এসময় আশরাফুল আলম বলেন, বদরগঞ্জ থানার ওসি ইউএনও আমার নিকটতম আত্মীয়। তবুও থানা পুলিশকে মাসোহারা দিয়ে বালু তুলতে হচ্ছে। এছাড়াও এলাকার হোমড়া চোমড়াদের প্রতি মাস কিছু কিছু করে টাকা দিতে হয়। তাহলে আমি কাকে ভয় করব বলেন? বিএনপি নেতা আশরাফুল আলম আরো বলেন, উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের লিখিতভাবে কাগজপত্রের বলে চিকলী নদী থেকে বালু উত্তোলণ করছি। এরপরেও উপজেলা প্রশাসন আমার সাথে চ্যালেঞ্চ করতে চাইলে আমি তাদের বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হব। একই এলাকার ইয়াছিন আলী বলেন, সবাইকে ম্যানেজ করেই আমি চিকলী নদী থেকে বালু তুলছি। বালু উত্তোলনের টাকা আমি একা খাইনা। আপনাদের বিকাশ নাম্বার দিয়ে যান সময় মত টাকা পাঠিয়ে দেব। কুতুবপুর ইউনিয়নের নাগেরহাট এলাকার আনছার আলী, ওমর আলী ও আক্কাছ আলী বলেন, উপজেলার অন্যান্য পয়েন্টের মত নাগেরহাট বাজারে পার্শ্বে যমুনেশ্বরী নদী থেকে আমরাও বালু উত্তোলণ করছি। পুলিশ ও আওয়ামী সমর্থিত লোকজনকে ম্যানেজ করেই পয়েন্ট চালাতে হয়। এরই মধ্যে পুলিশ প্রশাসন কয়েক দফা আমাদের স্যালোমেশিনের পাইপ ভেঙ্গে দিয়ে অনেক ক্ষতি করেছে। তাই বালু তুলে ক্ষতিপুরনের চেষ্টা করছি। একই ইউনিয়নের নাটারাম চান্দামারী এলাকার একরামুল হক ও বৈরামপুর গ্রামের বালু খেকো সাইফুল ইসলাম জানান, এই পয়েন্টে প্রতি সপ্তাহে বদরগঞ্জ থানার পুলিশ এসে টাকা নিয়ে যায়। এছাড়াও আওয়ামীলীগের লোকজন মাঝে মধ্যে গাড়ি (ট্রলি) পাঠিয়ে বালু নিয়ে যান। এরপরেও আমরা কাকে ভয় করে বালু তোলা বন্ধ করব বলেন? অপরদিকে পাঠানেরহাট বালাপাড়া গ্রামের হাসেন আলী (৫৫) জানান, এই এলাকার বালু খেকো ও সরকারী সম্পদ লুন্ঠনকারী আশরাফুল হক চিকলী নদী থেকে বালু উত্তোলন করার পর বালুবাহী যানবাহনের চাপে শেখেরহাট-পাঠানেরহাট পাকা রাস্তার বেহাল অবস্থা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। সেইসাথে নতুন করে নদী ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। বদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ রাশেদুল হক বলেন, চিকলী নদীর বালু উত্তোলনের ব্যাপারে খোঁজখবর নিতে সংশ্লিষ্ট রাধানগর ইউনিয়নের তহশিলদারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেখানকার সার্বিক পরিস্থিতি জেনে নিয়ে বালু উত্তোলণকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কুড়িগ্রামের রাজারহাটে গ্রামভিত্তিক ভিডিপি’র প্রশিক্ষণের সনদপত্র বিতরণ

Posted by News Editor | | Posted in

॥ গোলাম মোস্তফা রাঙ্গা ॥ 
২৪ সেপ্টেম্বর কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলার উমর মজিদ ইউনিয়নাধীন ভুমারুভিমশীতলা গ্রামে ১০ দিন মেয়াদি অস্ত্রবিহীন গ্রামভিত্তিক ভিডিপি মৌলিক প্রশিক্ষণের সমাপনি অনুষ্ঠান ও সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠান রাজমাল্লীরহাট মাদ্রাসায় অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কুড়িগ্রাম আনসার ও ভিডিপি’র জেলা কমান্ড্যান্ট মোঃ এফতেখারুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজারহাটের অবসরপ্রাপ্ত উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা বীরমুক্তিযোদ্ধা মোঃ নুরুজ্জামান সরকার। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রাজমাল্লীরহাট মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ মোঃ মনছুর আলী। অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কুড়িগ্রাম জেলা আনসার ও ভিডিপি দপ্তরের উচ্চমান সহকারী কাম হিসাব রক্ষক গোলাম মোস্তফা রাঙ্গা, রাজারহাটের উপজেলা প্রশিক্ষক মোঃ জিয়াউল রহমান, উপজেলা প্রশিক্ষিকা সাজেদা খাতুন, ভুমারুভিমশীতলা গ্রামে ৩২ জন পুুরুষ ও ৩২ জন নারীকে নিয়ে প্রশিক্ষণটি ১০ সেপ্টেম্বর শুরু হয়। একইদিনে রাজারহাট উপজেলার ছিনাই ইউনিয়নাধীন মীরেরবাড়ী গ্রামেও ১০ দিন মেয়াদি অস্ত্রবিহীন গ্রামভিত্তিক ভিডিপি মৌলিক প্রশিক্ষণের সমাপনি অনুষ্ঠান ও সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠান আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানেও প্রধান অতিথি ছিলেন কুড়িগ্রাম আনসার ও ভিডিপি’র জেলা কমান্ড্যান্ট মোঃ এফতেখারুল ইসলাম। সভাপতিত্ব করেন ছিনাই ইউনিয়নের মেম্বার মোঃ আলীফুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজারহাটের অবসরপ্রাপ্ত উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা বীরমুক্তিযোদ্ধা মোঃ নুরুজ্জামান সরকার, চিলমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী মেডিকেল অফিসার ডাক্তার এম এ মতিন। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রাজারহাটের উপজেলা প্রশিক্ষক মোঃ জিয়াউল রহমান, উপজেলা প্রশিক্ষিকা সাজেদা খাতুন, গ্রাম ভিডিপি দলনেতা মোঃ মাহাবুবুর রহমান খন্দকার। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন কুড়িগ্রাম জেলা আনসার ও ভিডিপি দপ্তরের উচ্চমান সহকারী কাম হিসাব রক্ষক গোলাম মোস্তফা রাঙ্গা। সঙ্গীত পরিবেশন করেন ধরলা শিল্পী গোষ্ঠীর মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ও তার দল এবং পুজা রাণী তনু।

বদরগঞ্জে পুকুরে কীটনাশক প্রয়োগ করে মাছ নিধন

Posted by News Editor | | Posted in

আকাশ রহমান, বদরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : রংপুরের বদরগঞ্জে শত্র“তার জেরধরে পুকুরে কীটনাশক প্রয়োগ করে দেড় লক্ষ টাকার মাছ নিধন করেছে দুর্বৃত্তরা। উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের ধরেরপড় গ্রামে এঘটনা ঘটে। এব্যাপারে বদরগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। জানা যায়, মধুপুর ধরেরপড় গ্রামের মৎস্য চাষী শামছুল হকের সাথে একই গ্রামের এজারুল হক, ওয়াজেদুল হক, সাদ্দাম হোসেন ও লালমিয়ার দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক বিবাদ নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। ওই বিরোধের জেরধরে বৃহস্পতিবার রাতে শামছুল হকের প্রতিপক্ষরা বদরগঞ্জ পৌর শহরের কলেজ ঘুমটি এলাকায় তাকে একাকী পেয়ে বেদম মারপিট করে। এঘটনার পরদিন তিনি বাদী হয়ে বদরগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করলে প্রতিপক্ষরা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। এদিকে শনিবার গভীর রাতে কেবাকারা শামছুল হকের বাড়ীর পার্শ্বে তার ৭৫শতাংশ পুকুরে কীটনাশক প্রয়োগ করে প্রায় দেড় লক্ষাধিক টাকার বিভিন্ন প্রজাতের মাছ নিধন করে। এবিষয়ে পুকরের মালিক মৎস্য চাষী শামছুল হক বলেন, পুর্ব শত্র“তার জেরধরে প্রভাবশালী এজারুল হক লোকজন লেলিয়ে দিয়ে আমার পুকুরে বিষ দিয়ে দেড় লক্ষ টাকার মাছ মেরে ফেলেছে। এমনকি তারা সুযোগ পেলে আমার ও আমার পরিবারের সদস্যদের আরো বড় ধরনের ক্ষতি সাধন করতে পারে। এব্যাপারে আমি ন্যায় বিচারের আশায় বদরগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি। অপরদিকে একই গ্রামের সমশের আলীর ছেলে খাদেমুল হক জানান, ঘটনার রাতে আমি প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘরের বাইরে বের হয়েছিলাম। ওই সময় দেখেছি দুইজন লোক পুকুরের পাড়ে দাঁড়িয়ে কীটনাশকের বোতল পানিতে ফেলে দিয়েছে। আমি এই সম্পুর্ণ ঘটনাটি স্বচক্ষে দেখার পর পুকুরের মালিককে তৎক্ষনাৎ অবগত করেছি। ঘটনাস্থল তদন্তকারী বদরগঞ্জ থানার এসআই ফারুক হোসেন বলেন, বাদীর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। পুকুরের মাছ নিধনের ব্যাপারে তদন্ত চলছে। তদন্তপুর্বক দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নীলফামারী ৩ আসনে আওয়ামীলীগে ছয়জন জোটের জটে বিএনপি-জামায়াত

Posted by News Editor | Sunday, September 24, 2017 | Posted in

এম এ মোমেন, নীলফামারী ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : নীলফামারী জেলার জলঢাকা ও কিশোরীগঞ্জ উপজেলার আংশিক নিয়ে গঠিত নীলফামারী-৩ আসন এবং এটি জাতীয় সংসদের ১৪ নম্বর আসন। একাদশ সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন দলের নেতারা মনোনয়নের প্রত্যাশায় কাজ করছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগে অন্তত ছয় জনের নাম শোনা যাচ্ছে। 
এতে দলের মধ্যে এক ধরনের অস্থিরতা রয়েছে। অন্যদিকে জামায়াতের শক্ত ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত এ আসনে দলটি বিএনপির সঙ্গে জোটের কারণে প্রার্থী দেওয়ার ক্ষেত্রে বাধার মুখে পড়তে পারে। কারণ বিএনপি নেতারা দাবি করছেন, এখানে দলের সাংগঠনিক অবস্থা আগের তুলনায় ভালো। স্থানীয় নির্বাচনেও দল ভালো করেছে।
 সে কারণে এবার দলের প্রার্থী চাইবেন তাঁরা। এ ছাড়া জাতীয় পার্টিতেও মনোনয়নপ্রত্যাশী দুজনের নাম শোনা যাচ্ছে। এর মধ্যে একজন সাবেক সংসদ সদস্য। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করতে পারেন এমন একজনের নামও শোনা যাচ্ছে, যিনি জামায়াত সমর্থিত। নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে: নীলফামারী-৩ আসনে রয়েছে ১৪টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা। 
এর মধ্যে জলঢাকা উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় ভোটার সংখ্যা দুই লাখ সাত হাজার ৯৫৮। কিশোরীগঞ্জ উপজেলার তিনটি ইউনিয়নে রয়েছে ৫৩ হাজার ৪৮৮ ভোট। এই আসনে মোট দুই লাখ ৬১ হাজার ৪৪৬ ভোটারের মধ্যে পুরুষ এক লাখ ৩১ হাজার ১৫ এবং নারী এক লাখ ৩০ হাজার ৪৩১ জন। আসনটির বর্তমান সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগের গোলাম মোস্তফা। এ আসনে হয়ে যাওয়া ১০টি নির্বাচনের বেশির ভাগই সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াত ও মুসলিম লীগের প্রার্থী। 
সারা দেশে স্বাধীনতাবিরোধীদের যে কয়েকটি শক্ত অবস্থান রয়েছে, এর মধ্যে নীলফামারী-৩ আসন অন্যতম। আগের নির্বাচনগুলোর ফল অনুযায়ী, এককভাবে নির্বাচন করে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী ১ম, ৫ম ও ১০ম নির্বাচনে জয়ী হন। নবম সংসদে নির্বাচিত হন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টির প্রার্থী। ৪র্থ সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টি, ৬ষ্ঠ সংসদ নির্বাচনে বিএনপি জয়ী হয়। স্বাধীনতাবিরোধী মুসলিম লীগ ২য়, জামায়াত ৩য়, ৭ম ও ৮ম সংসদ নির্বাচনে জয়ী হয়। 
আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী যাঁরা : বর্তমান সংসদ সদস্য উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য গোলাম মোস্তফা, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হক, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনছার আলী মিন্টু, উপজেলার গোলনা ইউনিয়ন পরিষদের দুবারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান কামরুল আলম কবির ও উনসত্তরের আইয়ুববিরোধী আন্দোলনে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রনেতা এ কে এম শহীদুল ইসলাম মনোনয়ন চাইতে পারেন বলে জানা গেছে। বিএনপি : জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কেন্দ্রীয় বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক (রংপুর বিভাগ) শিল্পপতি মো. সামসুজ্জামান। জামায়াত : জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতা আজিজুল ইসলাম প্রার্থী হওয়ার কথা জানিয়েছেন। 

জাতীয় পার্টি : সাবেক সংসদ সদস্য ও মুসলিম লীগ নেতা কাজী আব্দুল কাদেরের ছেলে কাজী ফারুক কাদেও, জেলা জাতীয় পার্টির সদস্যসচিব সাজ্জাদ পারভেজ ও মেজর (অব.) রানা মোহাম্মদ সোহেল মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন বলে আলোচনা রয়েছে। স্বতন্ত্র : জামায়াতের জামায়াতের সহযোগী সদস্য দুবারের নির্বাচিত জলঢাকা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শিল্পপতি সৈয়দ আলী স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য মাঠে রয়েছেন। ইতিমধ্যে তাঁর শুভেচ্ছাসংবলিত পোস্টার নির্বাচনী এলাকার সবখানে লাগানো হয়েছে।

মাসিক সাহিত্য সভায় মোহাম্মদ আলী চৌধুরী সম্বর্ধনা প্রদান

Posted by News Editor | | Posted in

স্বরূপ বকসী বাচ্চু, দিনাজপুর ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : দিনাজপুর প্রেসক্লাব সাহিত্য ও পাঠাগার বিভাগ আয়োজিত প্রতি মাসের মত এবারও মাসিক সাহিত্য সভায় বিশিষ্ট সমাজসেবক, এলাকাবাসী কর্তৃক ইতিপূর্বে ব্রীজ মাষ্টার ও লৌহ মানব পদকে ভূষিত ব্যক্তিত্ব মোহাম্মদ আলী চৌধুরীকে সম্বর্ধনা প্রদান করা হয়। দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বরূপ বক্সী বাচ্চু এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল, বিশিষ্ট সাহিত্যিক ও লেখক মাসুদ মোস্তফিজ, মাহবুব আলী, আখতারুল আলম বুলু, শিক্ষিকা সিরাজাম মনিরা, শিক্ষক কৈশল প্রসাদ গুপ্ত ও মোহাম্মদ চৌধুরীর পতœী জাকিয়া চৌধুরী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ও সভা পরিচালনা করেন দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সাহিত্য ও পাঠাগার সম্পাদক কাশি কুমার দাস ঝন্টু। সভাপতির বক্তব্যে স্বরূপ বক্সী বাচ্চু বলেন, আমরা গুনীজনকে সম্বর্ধনা প্রদান করে তাদের মূল্যায়ন করছি। যা দেখে অন্যান্য ব্যক্তিরা সমাজ উন্নয়নের কাজে এগিয়ে আসেন। বিশেষ অতিথি প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল বলেন মোহাম্মদ আলী চৌধুরী বাদশা ভাই দীর্ঘদিন ধরে এলাকার উন্নয়নে নিবেদিত প্রাণ হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন। এ সমস্ত ব্যক্তিদের মূল্যায়ন হওয়া দরকার। মোহাম্মদ আলী চৌধুরী তার অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, আমি মন্ত্রী এমপি হওয়ার জন্য সমাজের কাজ করি না। আমি যা করেছি সাধারণ মানুষের জন্য, এলাকাবাসীর জন্য স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষকদের জন্য। একদিন আমি থাকবো না আমার এই উন্নয়নের কথা সাধারণ মানুষ চর্চ্চা করবে। এই চর্চার মধ্যেই আমি বেঁচে থাকতে চাই। সভায় ৫৮ জন দিনাজপুরের বিশিষ্ট কবি সাহিত্যিক তাদের কবিতা পাঠ করেন এবং সাহিত্য বিষয় আলোচনায় অংশ নেন। এর পূর্বে দিনাজপুর সদর উপজেলার ২নং সুন্দরবন ইউনিয়নে ইউনিয়ন পূজা উদ্্যাপন পরিষদের সভায় জেলা নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

চিরিরবন্দরে বজ্রপাতে মহিলার মৃত্যু

Posted by News Editor | | Posted in

দেলোয়ার হোসেন বাদশা, চিরিরবন্দর প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে বজ্রপাতে মোছা: হালিমা খাতুন (৩২) নামে এক মহিলার মৃত্যু হয়েছে।
 এ সময় ১টি গরুও মারা গেছে। শুক্রবার রাত ৩টার দিকে বৃষ্টি শুরু হলে রান্নাঘরের মালামালসহ বাড়ীর অন্যান্য আসবাবপত্র ঢাকতে গেলে বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই হামিদা ও একটি গুরু মারা যায়।
 মৃত হামিদা উপজেলার সাতনালা ইউনিয়নের জোত সাতনালা গ্রামের চকরামপুর এলাকার শহিদুল ইসলামের স্ত্রী।

সুন্দরগঞ্জে ভিক্ষুক পূর্ণবাসনের বিকল্প হিসেবে ঔষুধী গাছের চারা রোপণ

Posted by News Editor | | Posted in

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলাকে ভিক্ষুকমুক্ত করতে বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে শ্রীপুর ইউনিয়নের ৩ কিলোমিটার সড়কে ৩ হাজার ঔষুধী গাছের চারা রোপণ কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক গৌতম চন্দ্র পাল। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন-স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক শফিকুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম গোলাম কিবরিয়া,সহকারী কমিশনার ভূমি সামিউল আমিন, ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম, কঞ্চিবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মনোয়ার আলম প্রমূখ।

 এর আগে শ্রীপুর ইউনিয়ন পরিষদ হলরুমে স্থানীয় ভিক্ষুকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

নীলফামারীতে লাগানো হচ্ছে ৫০ হাজার তালগাছ

Posted by News Editor | Saturday, September 23, 2017 | Posted in

এম এ মোমেন, নীলফামারী ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : নীলফামারীতে ৫০ হাজার তালগাছ লাগানোর পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন অধিদপ্তর। প্রশাসনের সহযোগিতায় ইতোমধ্যে সৈয়দপুর উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নে এ রোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খালেদ রহীম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। সেখানে সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোখছেদুল মোমিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বজলুর রশিদ, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোফাখখারুল ইসলাম, কামারপুকুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রেজাউল করিম উপস্থিত ছিলেন। জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন দফতর সূত্র জানায়, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগ নিরোধে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নে সারাদেশে তালগাছ রোপণের উদ্যোগ গ্রহণ করে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ অধিদপ্তর। কর্মসূচির আলোকে নীলফামারী জেলাতেও রোপণ কর্মসূচি শুরু করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সংসদ সদস্য এবং উপজেলা পরিষদের তহবিল থেকে গ্রামীণ সড়কের দুই ধারে তালগাছ রোপণ করা হচ্ছে। কাজের বিনিময়ে টাকা কর্মসূচির (কাবিটা) মাধ্যমে পুনরায় নির্মিত ও সংস্কারকৃত রাস্তার দুই ধারে দুর্যোগ মোকাবেলায় সহায়ক এই গাছের চারা লাগানো হচ্ছে। জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা আবু তাহের মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান বলেন, ‘নীলফামারী জেলার ৬০টি ইউনিয়নে তালগাছ লাগানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। প্রতি ইউনিয়নে ৮৩৩টি করে তালগাছ লাগানো হবে। সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ গাছ তদারক করবেন।’ প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুসারে সারাদেশে এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। আগামী অক্টোবর মাসের মাঝামাঝিতে রোপণ কর্মসূচি সম্পন্ন হবে বলে জানান তিনি।

আমেনা-বাকি রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল এন্ড কলেজে বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড এর উদ্ধোধন

Posted by News Editor | | Posted in

দেলোয়ার হোসেন বাদশা, চিরিরবন্দর প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে আমেনা-বাকি রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল এন্ড কলেজের বিজ্ঞান ক্লাবের আয়োজনে বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড-২০১৭ এর উদ্ধোধন করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টায় জাতীয় সংগীত ও পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে প্রধান অতিথি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: গোলাম রব্বানী অনুষ্ঠানের উদ্ধোধন ঘোষনা করেন। এ সময় প্রধান অতিথি মো: গোলাম রব্বানী তার স্বাগত বক্তব্যে বলেন, শুধু মুখস্থ কিংবা ফলাফল নির্ভর শিক্ষা নয় বরং গুণগত শিক্ষার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মেধা ও সৃজনশীলতার বিকাশ ঘটিয়ে বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনের মধ্য দিয়ে যুগোপযোগী ও ভবিষ্যত চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় যোগ্য নাগরিক এবং নৈতিকতা সম্পন্ন কাঙ্খিত মানুষ গড়ার লক্ষ্য নিয়ে নিরলসভাবে কাজ করছে আমেনা-বাকি রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল এন্ড কলেজ। এছাড়া তিনি প্রতি বছরের ন্যায় এবারো বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড-২০১৭ আয়োজনে ছাত্র-ছাত্রীদের অনুপ্রেরনা ও উৎসাহিত করা ও ২০১৬ সালে জাতীয় পুরস্কার অর্জন করায় স্কুলের অধ্যক্ষ মো: মিজানুর রহমানকে ধন্যবাদ জানান। এ সময় আমেনা-বাকি রেসিঃ মডেল স্কুল এন্ড কলেজের পরিচালক মো: সামসুল হক, অধ্যক্ষ মো: মিজানুর রহমানসহ স্কুলের সকল শিক্ষক শিক্ষিকাগণ উপস্থিত ছিলেন । বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে চিরিরবন্দর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, চিরিরবন্দর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, দারুল ফালা আলিম মাদ্রাসা, জগৎনাথপুর উচ্চ বিদ্যালয়, ড্যাফডিল রেসিঃ স্কুল ও এ-জেড রেসিঃ স্কুলের ২৭০ জন ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহন করে।

বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা সেবার দৃশ্যপট পরিবর্তন

Posted by News Editor | | Posted in

স্বরূপ বকসী বাচ্চু, দিনাজপুর ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : বদলে গেছে দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের চিকিৎসা সেবার চিত্র। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত কয়েকজন চিকিৎসক বদলে দিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা সেবার এই দৃশ্যপট। টিম ওয়ার্কের মাধ্যমে এই স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে এখন অনেক ভালো মানের চিকিৎসার সেবা প্রদান করা হচ্ছে। বেষ্ট ফিডিং কর্ণার চালুর মাধ্যমে স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সটি শিশু বান্ধব হিসেবে গড়ে তোলা হয়েছে। বিশেষ করে স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নরমাল ডেলিভারীর মাধ্যমে সন্তান প্রসবের উদ্যোগ সফলতা লাভ করায় এটি মডেল হিসেবে জেলায় এখন দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। চিকিৎসকগণের এই মহতি উদোগ্যেকে অভিনন্দন জানিয়ে সফলতা কামনা করে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় (চিকিৎসা শিক্ষা ও পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ) সচিব মোঃ সিরাজুল ইসলাম বার্তা প্রদান করেছেন। উপজেলায় অলিগলিতে বেসরকারী হাসপাতাল আর ক্লিনিক হওয়ায় দালাল চক্রের কারণে নরমাল ডেলিভারী প্রায় বন্ধ হওয়ার উপক্রম। এসব ক্লিনিক এবং হাসপাতালে সেবার পরিবর্তে শুরু হয়েছে প্রসুতি সিজারের নামে এক ধরণের ব্যবসা। আর অর্থের লোভে তাদের হয়ে কাজ করছে একটি দালাল চক্র। আবার গ্রামাঞ্চলে কিছু অদক্ষ, প্রশিক্ষনবিহিন ধাত্রী রয়েছে। যারা স্থানীয় ভাবে দাই মা বলে পরিচিত। এই দাই মার কারণে প্রসূতি মায়েদের মৃত্যু ঝুকি থাকে এবং মৃত্যুও ঘটে। এমন অনেক ঘটনার নজির রয়েছে এলাকায়। ক্লিনিকে প্রসুতি ও শিশু মৃত্যুকে কেন্দ্র করে বেশ কয়েকবার সংঘর্ষ ও সড়ক অবরোধের ঘটনাও ঘটেছে। সিজারের নামে বানিজ্য, দালাল চক্র এবং অদক্ষ ধাত্রীর হাত থেকে প্রসুতি মায়েদের রক্ষায় এবং নিরাপদে নরমাল ডেলিভারী করাতেই উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ জাহাঙ্গীর কবীরের নেতৃত্বে বীরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কয়েকজন চিকিৎসক টিম ওয়ার্ক শুরু করেন। চলতি বছরের জানুয়ারী মাস থেকে টিম ওয়ার্কের মাধ্যমে কাজ করে যাচ্ছেন বীরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকগণ। নরমাল ডেরিভারীর মাধ্যমে সন্তান প্রসব করতে প্রসুতিদের উদ্ধুদ্ধ করণ প্রচারনায় তারা বিভিন্ন কৌশলও কাজে লাগিয়েছেন। এজন্য স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পক্ষ থেকে প্রসূতি মহিলাদের বিনামূল্যে ‘প্রসূতি কার্ড’ দেয়া হয়। এরপর ডেলিভারী না হওয়া পর্যন্ত চলতে থাকে কাউন্সিলিং আর ফ্রি চেক আপ। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এ টিম ওয়ার্কে রয়েছেন বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ জাহাঙ্গীর কবীর, আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ মাহমুদুল হাসান পলাশ, মেডিকেল অফিসার ডাঃ আফরোজ সুলতানা, ডাঃ তাহমিনা ফেরদৌস, ডাঃ মাধবী দাস। এরই ধারাবাহিকতায় চলতি বছরের আগস্ট মাসে ৩৫জন নরমাল ডেলিভারী করানো হয়। আর এ সেপ্টেম্বর মাসের ২২ তারিখ পর্যন্ত ২৫টি নরমাল ডেলিভারী করানো হয়েছে। হাসপাতালে এসে নরমাল ডেলিভারী করানোর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। বীরগঞ্জের দামাইক্ষেত্র গ্রামের মোঃ আজিজার রহমানের স্ত্রী মোছাঃ জেসমিন আকতার (৩৩)। তার ৩ সন্তান রয়েছে। প্রথম সন্তান মেয়ে ১৩বছর। দ্বিতীয় সন্তান মেয়ে ৯ বছর। তৃতীয় সন্তান ছেলে ৬। শুক্রবার সকালে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নরমাল ডেলিভারীরের মাধ্যমে একটি ছেলে সন্তান জন্ম দিয়েছেন। বীরগঞ্জের চাকাই গ্রামের মোঃ এরশাদুলের স্ত্রী মোছাঃ আনজু আরা (২২), শীতলাই গ্রামের মোঃ সুমন ইসলামের স্ত্রী রোকসানা বেগম (২৫)। শুক্রবার এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩জনের নরমাল ডেলিভারী হয়েছে। এ ব্যাপারে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ মাহমুদুল হাসান পলাশ জানান, এক সময় বীরগঞ্জ হাসপাতালে প্রসূতিরা না আসায় নরমাল ডেলিভারী করানো প্রায়ই বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। চলতি বছরের জানুয়ারী মাস থেকে আমরা সবাই মিলে টিম ওয়ার্ক শুরু করি। দালাল চক্রের কিংবা দাইমা (ধাত্রী)দের বাধা উপেক্ষা করে এর সফলতা পেয়েছি। উদ্যোগ গ্রহণের পর জানুয়ারী মাসে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৫/৬টি নরমাল করা হয়েছে। পরে সেটি বৃদ্ধি পেয়ে আগস্ট মাসে ৩৫জন নরমাল ডেলিভারী করানো হয়। আর এ সেপ্টেম্বর মাসের ২২ তারিখ পর্যন্ত ২৫টি নরমাল ডেলিভারী করানো হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ জাহাঙ্গীর কবীর জানান, এ হাসপাতালে ডেলিভারী নিরাপদ করতে ৫জন দক্ষ ধাত্রী রয়েছেন। ডেলিভারী হওয়ার পর উপজেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের সহযোগিতায় জন্ম নেয়া শিশুর জন্য জামা-কাপড় এবং মশারী ওই শিশুর মাকে উপহার দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। দিন দিন নরমাল ডেলিভারী ক্ষেত্রে প্রসুতিদের আগ্রহ বাড়ছে। কারণ হাসপাতালে নিরাপদে এ ডেলিভারী করানো হলে মৃত্যুর ঝুকি থাকে না। এভাবে নরমাল ডেলিভারী হলে মানুষের অর্থ সাশ্রয় হবে। পাশাপাশি স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত ও নিরাপদ হবে।

আধা কেজি চাউলের মূল্য ৬ হাজার ১ শত টাকা!

Posted by News Editor | Friday, September 22, 2017 | Posted in

চিলাহাটি ওয়েব ডেস্ক : আধাকেজি চালেরমূল্য ৬ হাজার ১শত টাকা এমন-ই এক ঘটনা ঘটে গত সোমবার ১৮ সেপ্টেম্বর রুহিয়া থানার সেনিহারী গ্রামের সবজি ব্যবসায়ী আবু তাহেরের স্ত্রী নিলুফা বেগম বাড়ীর পূর্ব পাশে পাকা রাস্তা সংলগ্ন ক্ষেতে শাক কাটছিলেন। এ সময় এক ব্যক্তি সাইকেল থামিয়ে নিলুফাকে জিজ্ঞাসা করে বৌদি এখানে সিরাজুলের বাড়ী কোনটা? তখন নিলুফা বলেন-কোন সিরাজুল তখন ঐ ব্যক্তি বলে যে, আমার কাছে ৭ বস্তা চাল কিনতে চেয়েছিল এখানকার সিরাজুল নামের এক ব্যক্তি। এভাবে কথা বার্তার এক পর্যায়ে বলেন মাত্র ৯ শত টাকা করে ৭টি বস্তা বিক্রি করবো। চাল গুলো আছে পরেশ বাবুর মিলে। নিলুফা ৭ বস্তা চাল মোট ৬ হাজার ৩ শত টাকায় নিতে রাজী হয়। বাড়ীতে এসে লোকটির কথা অনুযায়ী টাকা নিয়ে এম.পি মোড়ে রাসেলের দোকানের সামনে অপেক্ষা করতে থাকে । চাল বিক্রেতা নিলুফাকে আধা কেজি চাল দিয়ে বলেন যে, বৌদি দেখেন তো এ চাল গুলি পচ্ছন্দ হয় কি না? এবং লোকটি বলেন, বৌদি টাকা দেন আর আপনি এখানে বসেন আমি পরেশ বাবুর মিল থেকে চালগুলি ভ্যানে করে বের করে নিয়ে আসি। তখন নিলুফা বলেন যে, দাদা আমার কাছে ৬ হাজার ১ শত টাকা আছে ২ শত টাকা কম হচ্ছে, তখন লোকটি বলেন, ঠিক আছে ২ শত টাকা আমি চালিয়ে দিব পরে না হয় দিয়ে দিবেন। নিলুফা ৬ হাজার ১ শত টাকা দিলে লোকটি এম.পি মোড়ে গিয়ে চম্পট দেয়। আসে পাশে অনেক খোজাখুজির পর নিলুফা লোকটি কে না পেয়ে বুঝতে পারে লোকটি তাকে প্রতারিত করেছে। পরবর্তীতে নিলুফা থানা কর্তৃপক্ষ কে সমস্ত ঘটনার বর্ণনা দেন, এবং রুহিয়া থানার ওসি প্রদীপ কুমার রায় সিসি ক্যামেরায় চেক করেও প্রতারক লোকটিকে সনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। এ বিষয়ে ওসি প্রদীপ কুমার রায় বলেন, যেহেতু লোকটিকে চিনেন না? সেহেতু লোকটিকে সনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। আধা কেজি চালের মূল্য ৬ হাজার ১ শত টাকা এ বিষয়টি রামনাথ এলাকায় টক অফ দা বাজারে পরিণত হয়েছে।

পার্বতীপুরের পিডিবির পিস রেটের কর্মচারীদের কর্ম বিরতি চলছে

Posted by News Editor | | Posted in

বদরুদ্দোজা বুলু, পার্বতীপুর প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : পার্বতীপুরের আবাসিক প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ বিভাগ) পিস রেটের কর্মচারীদের অনিদিষ্টকালের জন্য ন্যয্য দাবী আদায়ের লক্ষ্যে গত ২১ সেপ্টেম্বর থেকে কর্ম বিরতি চলছে। জানা গেছে পার্বতীপুর আবাসিক প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ বিভাগ) এ ৯ জন পিস রেটের কর্মচারী প্রায় দেড়যুগ থেকে তাদের অধিনে চাকরী করে আসছে। এ চাকরীকালীন সময়ে তারা সরকারী সব ধরণের সুযোগ সুবিধা পেয়ে আসছিলো। এতে পিস রেটের কর্মচারীরা কাজ অনুযায়ী প্রতি মাসে প্রায় ১৫ হাজার টাকারও বেশী বেতন-ভাতা উত্তোলন করতো। 
পার্বতীপুর আবাসিক প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ বিভাগ) এর অধিনে ৯ জন পিস রেটের কর্মচারীরা হলো সাদেকুল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান, আলতাফ হোসেন, হুমায়ুন কবীর, হযরত আলী, আলী হোসেন, গুলশের আলী, মতিউর রহমান ও রুবেল হোসেন। বর্তমানে পিডিবি বেসরকারী খাতে পরিনত হওয়ায় (কোম্পানী) তাদের উপর অন্যায় অবিচার করছে সংশ্লিষ্ট কোম্পানী। পিস রেটের কর্মচরীরা যারা মিটার রিডার হিসেবে মিটার প্রতি ৬ টাকা ৫০ পয়সা এবং বিল বিতরণকারী মিটার প্রতি ৪ টাকা হিসেবে পেতো। আর বর্তমানে কোম্পানী রুপান্তিরিত হওয়ায় তাদেরকে এখন প্রতি মিটার নয় মাসিক নির্ধারিত মাত্র ৬ হাজার টাকা দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় কোম্পানী। 
রংপুর বিভাগে আবাসিক প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ বিভাগ) পিডিবি থেকে সরকারী সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত ২০১৬ সালের অক্টোবর মাস থেকে কোম্পানীতে পরিনত হয়। আর এবিভাগের কোম্পানীর নাম নেসকো। পার্বতীপুরের ৯ জন কর্মচারীকে কোম্পানী প্রথমে দিনাজপুরে ডেকে নিয়ে শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ যাচাই করা হয়। সেখানে এসএসসি পাশকারী কর্মচারীদেরকে কোম্পানী কর্তৃক নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। আর যারা অষ্টম শ্রেণি পাশ তাদেরকে বাদ দেয়ো হয়। এতে পার্বতীপুরের মাত্র ২ জন। এদিকে, নেসকো কোম্পানী পার্বতীপুরের মাত্র এসএসসি পাশকৃত ২ জনকে রংপুর প্রধান প্রকৌশল দপ্তরে ডেকে নেয়। সেখানে প্রকৌশলীর এলাকার মসজিদের বারান্দায় পার্বতীপুরের সাদেকুল ও মোস্তাফিজুর রহমানকে বলেন যে আপনাদের চাকরী হয়ে গেছে ২ দিন পরে আপনাদেরকে ডেকে নেয়া হবে। সেখানে গিয়ে তারা জানতে পারেন যে তাদেরকে প্রতি মিটারের মোবাইল ক্যামেরা দিয়ে ¯œাপ সট নিতে হবে। আর এ কাজের জন্য তাদেরকে মাত্র ৬ হাজার টাকা বেতন বা ভাতা দেয়া হবে। যারা কোম্পানীতে চাকরী করবেন তাদেরকে জামানত স্বরূপ এককালীন ৩০ হাজার টাকা দিতে হবে। এরমধ্যে কোম্পানী তাদেরকে একটি কোম্পানী কর্তৃক একটি ট্যাব ফোন (মিটার রিডার কাজে ব্যবহৃত) দেয়া হবে। মোটা কথায় নেসকো কোম্পানীর শর্ত অনুযায়ী পার্বতীপুরের ৯ জন পিস রেট কর্মচারীর মধ্যে ২ জন কর্মচারী পূর্বের পিস রেটের কর্মচারীদেরকে কাজে নেয়া না হলে তারা কাজে যোগ দিবেন না। পিস রেটের কর্মচারীদের দাবী পূর্বের ন্যায় বেতন দিতে হবে এবং যারা দশ বছরের অধিক সময় ধরে কাজ করছে তাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল, জামানত প্রথা বাতিল, কোম্পানী কর্তৃক ট্যাব বা যাবতীয় সরঞ্জামাদি সরবরাহ, পূর্বের পিস রেট অনুযায়ী বেতন-ভাতা দিতে হবে। 
তাদের দাবী পূরণ করা না হলে কর্ম বিরতি অনিদিষ্টকালের জন্য চলবে। তাদের দাবী মানা না হলে পার্বতীপুর এলাকায় বাহিরের কোনো লোকদের একাজে যোগদান করতে দেয়া হবে না। প্রয়োজনে তারা কঠোর কর্মসূচি গ্রহণ করবেন বলে হুশিয়ার করেন। এদিকে পার্বতীপুর ছাড়াও ফুলবাড়ী,দিনাজপুর ডিভিশন-১, ডিভিশন-২ এবং সেতাবগঞ্জ বিদ্যুৎ বিভাগে পিস রেট কর্মচারীদের এ কর্ম বিরতি চলছে। তবে এ বিষয়ে নেসকো কোম্পানীর সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি ।

পার্বতীপুরের মধ্যপাড়া কঠিন শিলা খনিতে নতুন স্টোপ হতে উৎপাদন ও উন্নয়ন কার্যক্রম শুরু

Posted by News Editor | | Posted in

বদরুদ্দোজা বুলু, পার্বতীপুর প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : দেশের উত্তর অঞ্চলের দিনাজপুরের পার্বতীপুর এলাকায় অবস্থিত দেশের একমাত্র পাথর খনি পেট্রোবাংলার অধীনস্থ মধ্যপাড়া কঠিন শিলা প্রকল্পের খনির উৎপাদন ও উন্নয়ন কাজে নিয়োজিত ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জিটিসি কর্তৃক ইতিমধ্যে নির্মাণকৃত নতুন স্টোপ হতে পাথর উৎপাদন এবং আরো নতুন স্টোপের উন্নয়ন কার্যক্রম পুর্ণ মাত্রায় চলছে। খনির অভ্যান্তরে খনি পরিচালনার কাজ সম্পুর্নরুপে পর্যবেক্ষন করে দেখা গেছে যে, খনির উৎপাদন ও উন্নয়ন কার্যক্রম দিনে ও রাতে ৩ শিফটে পুর্বের চাইতে আরো দ্বিগুন গতিতে চলছে এবং গড়ে প্রায় প্রতিদিন ২ থেকে ৩ হাজার মেট্রিক টন পাথর উত্তোলন করা হচ্ছে।
 সরেজমিনে মধ্যপাড়া পাথর খনি পরিদর্শন শেষে জানা গেছে যে, আমদানীকৃত বিদেশী মেশিনপত্র ও যন্ত্রাংশ খনির ভু-গর্ভে ও উপরিভাগে স্থাপন করার মাধ্যমে মধ্যপাড়া পাথর খনির ঠিকাদারী প্রতিষ্টান জার্মানীয়া-ট্রেস্ট কনসোর্টিয়াম (জিটিসি) ইতিমধ্যে মাত্র গত ১০ মাস সময়ে ৩ টি নতুন স্টোপ (শিলা উৎপাদন ইউনিট) এর নির্মান কাজ সম্পন্ন করে নির্মাণকৃত ৬ নং স্টোপ থেকে তিন শিফটে পাথর উৎপাদন করে যাচ্ছে। খনিতে অবস্থিত বেলারুশিয়ান ঠিকাদারী প্রতিষ্টানের প্রায় ৭২ জন খনি প্রকৌশলী, ৫০ জন স্থানীয় প্রকৌশলী ও ইন্টারপ্রিটার, ১ শত ৫০ জন স্থানীয় কর্মকর্তা কর্মচারী এবং প্রায় সাড়ে ৫ শত খনি শ্রমিক সহ সর্বমোট প্রায় সাড়ে ৮ শত জনবলের মাধ্যমে ইতোমধ্যে নির্মাণকৃত ৩ টি নতুন স্টোপ ব্যাতীত আরো ২ টি নতুন স্টোপের নির্মাণ কাজ অতি দ্রুততার সাথে এগিয়ে যাচ্ছে। 
আরো জানা যায় যে, অত্যাধুনিক ও বিশ্বমানের যন্ত্রপাতি ও যন্ত্রাংশ আমদানী করিবার প্রক্রিয়া পেট্রোবাংলার অধীনস্থ মধ্যপাড়া কঠিন শিলা প্রকল্পের কর্তৃপক্ষের দ্বারা বিলম্বিত করার কারনে নতুন স্টোপ নির্মাণ কাজ নভেম্বর ২০১৬ ইং হইতে শুরু হয় এবং মাত্র ১০ মাস সময়ের মধ্যে ৩ টি নতুন স্টোপের নির্মাণ কাজ সম্পুর্ন হয় এবং আরো ২ টি নতুন স্টোপের নির্মাণ কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে , যাহা মধ্যপাড়া কঠিন শিলা প্রকল্পের কর্তৃপক্ষ ও ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জিটিসি এর মধ্যে বাস্তবায়িত চুক্তির উল্লেখিত লক্ষ্যমাত্রার চাইতেও অনেক বেশী। এখানে উল্লেখ্য যে, চুক্তি বাস্তবায়নের জন্য নিয়োজিত এমজিএমসিএল এর প্রকল্প পরিচালক (ইঞ্জিনিয়ার টু কন্ট্রাক্ট) দায়িত্বহীনভাবে খনি পরিচালনার কাজে প্রয়োজনীয় অতি জরুরী কাগজপত্রের ও খনি উন্নয়নের কাজে প্রয়োজনীয় নতুন যন্ত্রপাতি ও যন্ত্রাংশ আমদানী করার অনুমোদন প্রক্রিয়া বছরের পর বছর ধরে আটকিয়ে রেখে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জিটিসিকে খনি পরিচালনার কাজ করতে দেয়নি যাহার ফলস্বরুপ খনির কার্যক্রম প্রায় ২ বছর পর্যন্ত সম্পুর্নরুপে বন্ধ থাকে। 
এখানে উল্লেখ্য যে, আমদানীকৃত অত্যাধুনিক ও বিশ্বমানের যন্ত্রপাতি ও যন্ত্রাংশ এর মাধ্যমে রাশিয়ান এবং বেলারুশিয়ান দক্ষ খনি বিশেষজ্ঞরা দিনে ও রাতে অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে বন্ধ হয়ে যাওয়া ও পিছিয়ে যাওয়া মধ্যপাড়া খনির কার্যক্রম অতি দ্রুততার সহিত এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। দেশের উত্তরাঞ্চলের এই বৃহৎ পাথর খনিটি উৎপাদনের শুরুর পর থেকে জিডিসি দায়িত্ব নেওয়ার পর নতুন নতুন যন্ত্রপাতি ভূ-গর্ভে স্থাপন করার পর এখন নতুন নতুন পয়েন্ট তৈরি করে পাথরের উৎপাদন বাড়াতে কাজ করে যাচ্ছে। সর্বশেষে উল্লেখ করা যেতে পারে যে, শুধুমাত্র সুষ্টুভাবে পরিচালনা করলেই এই খনিটির উৎপদিত পাথরের মাধ্যমে দেশের সার্বিক চাহিদার সিংহভাগ পুরন করে বৈদেশিক মুদ্রার অপচয় রোধ করা যেতে পারে এবং ফুলবাড়ী ও পার্বতীপুর এলাকার শিল্প উন্নয়ন এর মাধ্যমে বেকার যুবকদের রুজি রোজগারের ব্যবস্থা করা যেতে পারে বলে সচেতন মহল মনে করেন।

নীলফামারী ২ আসনে আওয়ামী লীগে নূরের বিকল্প নেই-বিএনপি-জামায়াতে টানা পোড়ন

Posted by News Editor | | Posted in

এম এ মোমেন, নীলফামারী ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নীলফামারী জেলার ৪টি সংসদীয় আসনে আওয়ামীলীগ থেকে একাধিক প্রার্থীও নাম শোনা গেলেও ব্যতিক্রম শুধু নীলফামারী-২ আসন। জেলার সদর উপজেলা নিয়ে গঠিত এ নির্বাচনী এলাকাটি জাতীয় সংসদের ১৩ নম্বর আসন। 
এ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর পর পর তিনবার নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর বিকল্প কোনো প্রার্থী নেই। দলের স্থানীয় কোনো নেতাও মনোনয়ন চান না। 
বিএনপি ও জামায়াতেও একজন করে নেতা আছেন, যাঁরা মনোনয়ন চান। এ ক্ষেত্রে জোটগত নির্বাচন হলে প্রার্থী নিয়ে বিএনপির সঙ্গে দলের নেতৃত্বাধীন জোটের শরিক দল জামায়াতের টানাটানি হতে পারে। জাতীয় পার্টিও এ আসনে প্রার্থী দেওয়ার কথা ভাবছে না। বিভিন্ন দলের স্থানীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে। নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে: ১৫ ইউনিয়ন ও এক পৌরসভার নীলফামারী-২ আসনে ভোটার সংখ্যা দুই লাখ ৭৫ হাজার ৩০৯। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার এক লাখ ৩৭ হাজার ৭৯৪ ও নারী ভোটার এক লাখ ৩৭ হাজার ৫১৫। এই আসনে ১ম, ২য়, ৮ম, ৯বম ও ১০ম সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী বিজয়ী হন। 
পঞ্চম সংসদে আওয়ামী লীগের সমর্থনে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) প্রার্থী নির্বাচিত হন। জাতীয় পার্টি ৩য়, ৪র্থ, ৭ম এবং বিএনপি ৬ষ্ঠ সংসদ নির্বাচনে (১৯৯৬, ১৫ ফেব্রুয়ারি) জয়লাভ করে। আওয়ামী লীগ: দলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, জেলায় আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে নীলফামারী-২ আসনের সংসদ সদস্য সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরকে বলা হয় অভিভাবক। তিনি ছাড়া দলের অন্য কোনো নেতা মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন না। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও নীলফামারী পৌরসভার পর পর পাঁচবারের নির্বাচিত মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ বলেন, সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর আমাদের মুরব্বি, আমাদের অভিভাবক। 
তিনি এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন করছেন। নূর ভাই যত দিন নীলফামারী-২ আসনে নির্বাচন করবেন, তত দিন আমি এ আসনে মনোনয়ন চাইব না। অন্যদিকে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হক বলেন, নীলফামারী-২ আসন বাদে যেকোনো আসন থেকে আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন চাইব। জেলায় আওয়ামী লীগের রাজনীতির অভিভাবক নূর ভাই যে আসনের প্রার্থী আমি সেখানে মনোনয়ন চাইব না। জাতীয় পার্টি: জাতীয় পার্টির নেতারা মনে করেন আগামীতে জোটগত নির্বাচন হলেও আসাদুজ্জামান নূর মনোনয়ন পাবেন।
 এ কারণে জাপা থেকে কেউ আগ্রহ প্রকাশ করছেন না এ আসনে। ’ বিএনপি : এ আসনে বিএনপির একক মনোনয়নপ্রত্যাশী শিল্পপতি মো. সামসুজ্জামান। তিনি বর্তমানে কেন্দ্রীয় বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক (রংপুর বিভাগ) এবং জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক। ২০০৮ সালের নবম সংসদ নির্বাচনে এ আসনে বিএনপি-জামায়াত জোটের প্রার্থী হয়েছিলেন জামায়াত নেতা মনিরুজ্জামান মন্টু।
 সে সময় বিএনপির প্রার্থী মনোনয়নের ক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়ায় জোটের আসন ভাগাভাগির বিষয়টি। জামায়াত : বিএনপি-জামায়াত জোটের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন চান নীলফামারী জেলা জামায়াতের নায়েবে আমির মনিরুজ্জামান মন্টু। এর আগে জোটের প্রার্থী হয়ে ২০০৮ সালের নির্বাচনে পরাজিত হন আওয়ামী লীগের আসাদুজ্জামান নূরের কাছে।

রংপুর বিভাগের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক ঠাকুরগাঁও’র পাভেল

Posted by News Editor | | Posted in

আজম রেহমান,ঠাকুরগাঁও ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহ-২০১৭ উপলক্ষ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বাছাই প্রতিযোগিতায় রংপুর বিভাগের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার ভোমরাদহ-২ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ ফজল-ই-খোদা (পাভেল)। 
গত মঙ্গলবার রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহমেদ ও রংপুর প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মাহবুব এলাহী স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে। প্রসঙ্গত,মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করতে ভোমরাদহ-২ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: ফজল ই খোদা (পাভেল) গড়ে তুলেছেন টিচিং এইডস মিউজিয়াম নামে একটি ব্যাতিক্রমি শিক্ষা জাদুঘর। 
ওই জাদুঘরে শিক্ষার্থীরা স্কুল শেষে নিজেরাই ঘুরে ঘুরে নানা উপকরণ দেখে শিখতে পারছে বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের উল্লেখযোগ্য বিশিষ্ট ব্যক্তি, বরেণ্য ব্যাক্তিত্ব বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মুক্তিযুদ্ধে শহীদ বীরশ্রেষ্ঠ ও ঐতিহাসিক নিদর্শন আর তথ্যপ্রযুক্তিসহ নানা বিষয় সম্পর্কে। প্রাথমিক শিক্ষার মান উন্নয়নে অবদান রেখে চলেছেন এই প্রধান শিক্ষক। তার কাজ এবং সামগ্রিক চিন্তা বিবেচনায় নিয়ে এবারে এই শিক্ষক প্রথমে উপজেলা পর্যায়ে, পরে জেলা পর্যায়ে এবং শেষে বিভাগীয় পর্যায়ে ১ম হবার কৃতিত্ব অর্জন করেন। কৃতি এই মেধাবী শিক্ষকের জন্ম উপজেলার ভেমটিয়া গ্রামে।

খানসামায় রোহিঙ্গা নির্যাতন বিরোধী ডেমোগ্রফি প্রদর্শন ও প্রতিবাদ সমাবেশ

Posted by News Editor | | Posted in

এস.এম.রকি, খানসামা প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : মায়ানমারের রোহিঙ্গাদের উপর নির্যাতন, হত্যা ও ধর্ষণের প্রতিবাদে দিনাজপুরের খানসামা উপজেলায় ডেমোগ্রাফি প্রদর্শন ও সংক্ষিপ্ত প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে "খানসামা ইয়ুথ ফোরাম "। 
 বৃহস্পতিবার(২১ সেপ্টেম্বর) বেলা ১২টায় খানসামা উপজেলা চত্বরে শহীদ মিনারের সামনে ডেমোগ্রাফি প্রদর্শন ও সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। 
এসময় উপস্থিত ছিলেন ইয়ুথ ফোরামের উপদেষ্টা ও খানসামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সাজেবুর রহমান, এসইউপিকের নির্বাহী পরিচালক মোজাফ্ফর হোসেন, প্রকল্প সম্বনয়কারী জাভেদ আহম্মেদ, ইউপি সদস্য-সদস্যাবৃন্দ, এলাকার সুধীজন ও খানসামা ইয়ুথ ফোরামের নেতৃবৃন্দ। 
অনুষ্ঠানে বক্তারা জাতি ধর্ম বর্ন নির্বিশেষে রোহিঙ্গাদের পাশে দাড়ানোর জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।

নীলফামারীতে ডেঙ্গু ও চিকন গুনিয়া প্রতিরোধে কর্মশালা

Posted by News Editor | Thursday, September 21, 2017 | Posted in

এম এ মোমেন, নীলফামারী ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : নীলফামারীতে ক্যানসারের পরে ডেঙ্গু ও চিকন গুনিয়ার ভয়াবহতা নিয়ে জনমনে সচেতনা সৃষ্টির লক্ষে দিনব্যপি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে । বুধবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টার দিকে নীলফামারী সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে ওই কর্মশালার আয়োজন করা হয়। 
কর্মশালায় ডেঙ্গু ও চিকন গুনিয়ার ক্ষতিকর দিকগুলো তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন, উপ-প্রধান প্রশাসন ও প্রশিক্ষন এবং প্রোগ্রাম ম্যানেজার (স্বাস্থ্য শিক্ষা ব্যুরো ও স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়) মো. আব্দুল আজিজ। স্বাস্থ্য শিক্ষা ব্যুরো, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহযোগিতায় ও সিভিল সার্জন কার্যালয়ের আয়োজনে সিভিল সার্জন ডা. রনজিৎ কুমার বর্মনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা প্রশাসক খালেদ রহীম। 
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিসদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন, পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, নবাগত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহিদুল ইসলাম, জেলা শিক্ষা অফিসার শফিকুল ইসলাম, জেলা পরিবার পরিকল্পনা উপ-পরিচালক আফরোজা বেগম, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মো. এরফান আলী. মা ও শিশু কল্যান কেন্দ্রের চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. রোখসানা বেগম, সিভিল সার্জন কার্যালয়ের চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. মনিরুজ্জামান, শিশু বিষেজ্ঞ দিলীপ কুমার রায় প্রমুখ। এ
ছাড়াও সরকারী বেসরকারী , এনজিও প্রতিনিধি, আনসার, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। ঢাকা বিভাগীয় হেলথ এডুকেশন (স্বাস্থ্য শিক্ষা ) কর্মকর্তা আলমগীর ফকির বলেন, ডেঙ্গু ও চিকন গুনিয়া প্রতিরোধে বাসা বাড়ীর চারি পাশে ময়লা আর্বজনা ও বিশেষ করে ডাবের খোসা, গাড়ীর টায়ার, ফুলের টপ, ২ মিলি পর্যন্ত সচ্ছ পানীতে ওই চিকন গুনিয়া রোগের ভাইরাজ ছড়ায়। তিনি বলেন, এই ভাইরাজ থেকে মুক্তি পেতে সচেতনতাই একমাত্র প্রতিষেধক। সকাল ও সন্ধ্যা বেলা এই জাতীয় মশা বংশ বিস্তার করে থাকে এবং মানুষকে কামড় দেয়। এর থেকে পরিত্রাণ পেতে রাতে মশারী ও দিনের বেলা ফুল প্যান্ট ও ফুল হাতা সার্ট ব্যবহারের পরামর্শ দেন তিনি। গ্রাম এলাকার চেয়ে শহর এলাকায় এই রোগের প্রার্দভাব বেশী বলে মন্তব্য করেন তিনি।

জলঢাকায় ৫ দিন ব্যাপী আবৃত্তি বিষয়ক কর্মশালার উদ্বোধন

Posted by News Editor | | Posted in

মনিরুজ্জামান লেবু,জলঢাকা প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : নীলফামারী জেলার জলঢাকায় পাঁচ দিন ব্যাপী আবৃত্তি বিষয়ক কর্মশালার শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে।এ উপলক্ষে আজ বুধবার সন্ধায় জলঢাকা উপজেলা পরিষদ হলরুমে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 
জলঢাকা শিল্পী সমিতির আয়োজনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহঃ রাশেদুল হক প্রধান'র সভাপতিত্বে উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন স্হানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা। 
অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নীলফামারী জেলা শিল্পী সমিতির সভাপতি রকিবুল ইসলাম শাহিন, সাধারন সম্পাদক আব্দুল বারী, জলঢাকা রাবেয়া চৌধুরী মহিলা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ বিবেকানন্দ মহন্ত, আওয়ামী লীগ নেতা একে আজাদ প্রমুখ। 
অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন জলঢাকা শিল্প কলার সদস্য সচিব সিরাজুল ইসলাম।

ডিসেম্বরের মধ্যে ফোর জি : তারানা হালিম

Posted by Chilahati Web | Wednesday, September 20, 2017 | Posted in ,

চিলাহাটি ওয়েব, ঢাকা অফিস : আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে দেশে চতুর্থ প্রজন্মের ইন্টারনেট সেবা ফোর জি চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।
আজ বুধবার সচিবালয়ে ফোর জি সেবা সংক্রান্ত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।
তিনি বলেন, ‘ইতোমধ্যে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) ফোর-জি গাইডলাইন তৈরি করেছে। অপারেটরগুলোও নিজ নিজ ক্ষেত্রে ইতোমধ্যে সফলভাবে ট্রায়াল রান করেছে।’
তারানা হালিম বলেন, ‘ফোর জি নিলামের মাধ্যমে সরকারের কমপক্ষে ১১ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হবে।’
তিনি বলেন, ‘মোবাইল ফোন অপারেটররা ফোর জি চালু করার জন্য উৎসাহিত ও প্রস্তুত রয়েছে। নভেম্বরের শেষের দিকে আমরা ফোর জির নিলাম শেষ করতে পারব বলে আশা করছি।’
প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ইন্টারনেটের মূল্য বাড়াতে আগ্রহী না।’
তিনি আরও বলেন, ‘ফোরজি চালুর ক্ষেত্রে টেলিটককে বিশেষ সুবিধা দিচ্ছি না। এ জন্য তরঙ্গ নিলামের প্রক্রিয়াটি উন্মুক্ত রেখেছি। তবে টেলিটকের সেবার মান বাড়াতে চেষ্টা অব্যাহত আছে।’

কালোবাজারিদের হাতে নীলসাগর ট্রেনের টিকিট?

Posted by Chilahati Web | | Posted in , ,

আপেল বসুনীয়া,চিলাহাটি ওয়েব : ঈদ শেষে ফিরতি রেলযাত্রীদের বিড়ম্বনা এখনো কমেনি নীলফামারীর চিলাহাটিতে। চিলাহাটি-ঢাকা পথে একমাত্র নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনটিতে ঈদে যাত্রী পরিবহনের জন্য অতিরিক্ত একটি কোচ জুড়ে দেওয়া হয়। তবুও সংকট কাটছে না। টিকিট কালোবাজারিদের হাতে চলে গেছে বলে অভিযোগ করে যাত্রীরা।
চিলাহাটি রেলওয়ে স্টেশন সূত্র জানায়, এ স্টেশনের ওপর দিয়ে রাজশাহী, খুলনামুখী একাধিক ট্রেন চললেও ঢাকার পথে চলাচল করে মাত্র একটি। এটির নাম নীলসাগর এক্সপ্রেস। এই ট্রেনে গুরুত্বপূর্ন চিলাহাটি রেলওয়ে স্টেশনের জন্য আসন বরাদ্দ রয়েছে শোভন চেয়ার কোচে ৭৪টি, শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত স্নিগ্ধা চেয়ার কোচে ৫টি, শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ২টি বাথ (শয়ন আসন) ও শীতাতপ বিহীন ২টি বাথ। তবে ঈদুল আজহা উপলক্ষে কর্তৃপক্ষ ওই ট্রেনে অতিরিক্ত একটি কোচ জুড়ে দেয়। এ কোচটি নীলসাগর ট্রেনে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ছিলো। এর ফলে চিলাহাটির জন্য আরও ১০টি আসন বরাদ্দ মেলে। সব মিলিয়ে ট্রেনটিতে সৈয়দপুরের জন্য আসন বরাদ্দ ৯৩টি।
চিলাহাটি রেলওয়ে স্টেশনে আসা একাধিক যাত্রীর অভিযোগ, নীলসাগরে চিলাহাটির যাত্রীদের জন্য যথেষ্ট আসন বরাদ্দ থাকলেও নিয়মতান্ত্রিক উপায়ে সংগ্রহ করতে পারছে না যাত্রীরা। ঈদ শেষে ফিরতি যাত্রীরা কাউন্টারের সামনে দীর্ঘ সারিতে দাঁড়িয়ে থেকেও টিকিট পাচ্ছে না। ১০ থেকে ১২ জন যাত্রী টিকিট পায়। বাকিগুলো চলে যায় কালোবাজারিদের হাতে। কালোবাজারিরা প্রতিদিন সারিতে দাঁড়িয়ে টিকিট সংগ্রহ করে। পরে তাদের কাছ থেকে চড়া দামে টিকিট সংগ্রহ করে যাত্রীরা।
নীলসাগর ট্রেনের যাত্রী ভাউলাগঞ্জ কম্পিউটার লানিং সেন্টারের পরিচালক মোস্তাকিম রহমান অভিযোগ করে চিলাহাটি ওয়েব ডটকমকে জানান- স্টেশনে যথেচ্ছভাবে টিকিট কালোবাজারি হচ্ছে। ফলে টিকিট পাচ্ছে না সাধারণ যাত্রীরা। তিনি নিজেও ঢাকা যাওয়ার জন্য টিকিট সংগ্রহ করতে গিয়ে পাননি। তিনি আরও অভিযোগ করেন, চিলাহাটির জন্য বরাদ্দ টিকিট আশপাশের অন্যান্য স্টেশন থেকে সংগ্রহ করছে যাত্রীরা।
ডিমলা থেকে আসা যাত্রী মশিউর রহমান চিলাহাটি ওয়েব ডটকমকে বলেন- ‘পাঁচ দিন ধরে চিলাহাটি স্টেশনের টিকিট কাউন্টারে একটা টিকিটের জন্য লাইনে দাঁড়াচ্ছি। কিন্তু এখন পর্যন্ত ঢাকা যেতে পারিনি। কাউন্টার থেকে বলা হচ্ছে টিকিট শেষ হয়ে গেছে। এত টিকিট যাচ্ছে কোথায় পাল্টা প্রশ্ন করেন তিনি।’
চিলাহাটি রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার আব্দুল মতিন বলেন, ‘অন্য জনপদ থেকে যাত্রী এসে চিলাহাটিতে টিকিট সংগ্রহ করলে তাকে কীভাবে চিহ্নিত করবেন? টিকিট কালোবাজারির প্রশ্নই ওঠে না।’
সৈয়দপুর রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম লুৎফর রহমান স্বীকার করে চিলাহাটি ওয়েব ডটকমকে জানান- স্টেশনে টিকিট কালোবাজারি হচ্ছে ঠিকই। তবে কৌশল ভিন্ন। ফলে কালোবাজারিদের সহজে চিহ্নিত করা যাচ্ছে না।
তিনি বলেন, ইতিপূর্বে সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. বজলুর রশীদ ওই কালোবাজারিদের ধরতে অভিযান চালান। এ ধরনের অভিযান চিলাহাটিতেও চালালে কালোবাজারিদের হাত থেকে রক্ষা পাবে রেল যাত্রীরা।

পীরগঞ্জে কনের বাড়ীতে খাদ্যে বিষক্রিয়ায় বরসহ অর্ধ শতাধিক বরযাত্রি হাসপাতালে

Posted by Chilahati Web | | Posted in

সমশের আলী,পীরগঞ্জ প্রতিনিধি, চিলাহাটি ওয়েব : বিয়ের বরযাত্রী গিয়ে কনের বাড়ীতে পরিবেশিত খাদ্যে বিষক্রিয়ার ফলে বর সহ অর্ধ শতাধিক বরযাত্রি অসুস্থ অবস্থায় ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধা থেকে আক্রান্তরা একের পর এক হাসপাতালে আসতে শুরু করে। ঘটনা তদন্তে কৃষি অফিসারের নেতৃত্বে ৫ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছে উপজেলা প্রশাসন।
জানা যায়, উপজেলার সিংগারোল গ্রামের আমিনুল হকের ছেলে জাহিদুলের সাথে একই উপজেলার রনশিয়া গ্রামের আমজাদ হোসেনের মেয়ের বিয়ে ঠিক হয়। সোমবার বিকালে অর্ধশতাধিক নারী পুরুষ ও শিশু বরযাত্রী হয়ে কনের বাড়িতে যায়। সেখানে সন্ধায় খাওয়া দাওয়া সেরে কনে নিয়ে বাড়ি ফিরেন বরযাত্রীরা। বাড়িতে এসে পরদিন মঙ্গলবার বিকেল থেকে পেট ব্যাথা, পাতলা পায়খান, মাথা ঘোরা, জ্বর সহ নানা ভাবে অসুস্থ হতে থাকেন তারা। অবস্থা খারাপের দিকে গেলে একএক করে ভর্তি হতে থাকেন উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে। রাত ১২ টা পর্যন্ত আক্রান্ত ৩৫ জন ভর্তি হয় হাসপাতালে। আজ বুধবার ভর্তি হন বর জাহিদুল ইসলাম সহ আরো ৫ জন। ।প্রাথমিক চিকিৎসা নেয় কমপক্ষে ২০ জন। আরো কিছু আক্রান্ত ব্যাক্তি দিনাজপুরের বোচাগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসাধনি থাকার খবর পাওয়া গেছে। দিনাজপুরে রেফার করা হয়েছে বেশ কয়েক জনকে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ ডাব্লিউ এম রায়হান শাহ্ হাসপাতালে এসে অসুস্থদের খোজ খবর নিয়েছেন। কারণ অনুসন্ধানে কৃষি কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদকে প্রধান হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. হুমায়ুন কবীর, থানার অফিসার ইনচার্জ আমিরুজ্জামান, ইউপি চেয়ারম্যন হুমায়ুন কবীর ও ওয়ার্ড সদস্য মনির হোসেনকে সদস্য করে ৫ সদস্য বিশিষ্ঠ একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে ৭ দিনের মধ্যে এর প্রকৃত রহস্য উদ্ঘাটন করে তদন্ত রিপোর্ট দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। খাদ্যে বিষক্রিয়ার ফলে এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ ডাব্লিউ এম রায়হান শাহ্ জানান, রোগীদের খোজ খবর নেওয়া হচ্ছে। কারণ অনুসন্ধানে ৫ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

কিশোরগঞ্জে ভিজিডি চাল বিতরণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ

Posted by Chilahati Web | | Posted in

মিজানুর রহমান কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : নীলফামারী কিশোরগঞ্জ উপজেলার ৩নং নিতাই ইউনিয়ানে মঙ্গলবার ৩'শত ৫১ জন ভিজিডি কার্ডধারীকে চাল বিতরনের করা হয়। চাল বিতনের সময় ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে।
সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নিতাই ইউনিয়ানের বেলতলি বাজার নামকস্থানে চাল বিতরনের সময় চালের বস্তার মধ্যে ময়লা,ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র পাথরযুক্ত, একেবারে নিম্ন মানের চাল।
নারগিস কার্ড নম্বর ২৮৫,ফেরদৌসি (২৬৮),মারুফা (১১৪),মাজেদা (২৯৮),বুলবুলি (৬৩),সামিনা (২৯০),ফজিলা (৩১৮) অভিযোগ করে বলেন যে চাল দিচ্ছে তা মানুষতো দুরের কথা গরু ছাগলকে পর্যনাত খাওয়ানো যাবে না। আমাদের কাছ থেকে বস্তা প্রতি ২৫ টকা করে নেয়া হয়। চাল বিতরনের সময় ট্যাগ অফিসার হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মাসুদুল হাসান ও নিতাই ইউনিয়ান সচিব আবু সুফিয়ান যিনি নিজেই কার্ডধারীর কাছ থেকে টাকা নিচ্ছিলেন। চালের বিষয়ে উপজেলা ওসিইলিসডি সাথে কথা হলে তিনি বলেন আমাকে কেন ফোন করেছেন। আমি ভাল চাল দিয়েছি ওনারা হয়তো পররিবর্তন করেছে। তাদেরকে জিঙ্গাসা করেন।
ইউপি সচিব আবু সুফিয়ান চিলাহাটি ওয়েব ডটকমকে জানান- আমি খাদ্য গুদামে একসাথে অতগুলো বস্তা আনি যার প্রতিটি বস্তা দেখে নেয়া সম্ভব হয়না। এ বিষয়ে নিতাই ইউপি চেয়ারম্যান ফারুকুজ্জামানের সাথে কথা বললে তিনি বলেন আমরা নয় মাস থেকে চালের পরিবহন বাবদ কোন টাকা পয়সা পাই না। যার কারণে প্রতি কার্ডধারীর কাছ থেকে পরিবহন বাবদ ২৫ টাকা করে নেয়া হয়। এবং তা নাকি উপজেলা পরিষদে রেজুলেশনে উল্লেখ আছে। 
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে কথা বললে তিনি বলেন কার্ডধারীর কাছ থেকে টাকা নেয়ার কোন প্রকার রেজুলেশন নাই। কিন্তু যদি খারাপ চালের বস্তা গিয়ে থাকে চেয়ারম্যান সাহেব বললে ওই চালের বস্তা পরিরর্তন করে দেয়া যাবে।

সৈয়দপুর জিআরপি পুলিশের অভিযানে ভারতীয় শাড়ীসহ একজন আটক

Posted by Chilahati Web | | Posted in

এম এ মোমেন, নীলফামারী ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : নীলফামারীর চিলাহাটিগামী আন্তঃনগর ট্রেন বরেন্দ্র এক্সপ্রেসে মঙ্গলবার (১৯ সেপ্টেম্বর) রাতে অভিযান চালিয়ে প্লাটফর্মে যাত্রীবেশে থাকা ওয়াহেদুল ইসলামের (৩০) কাছ থেকে ভারতীয় শাড়ী উদ্ধার করেছে সৈয়দপুর রেলওয়ে পুলিশ।
সৈয়দপুর রেলওয়ে পুলিশের এসআই মোস্তফার নেতৃত্বে পুলিশের একটি চৌকস দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাজশাহী থেকে ছেড়ে আসা ওই ট্রেনে অভিযান চালায়। এ সময় প্লাটফর্মের দক্ষিন প্রান্তে প্লাস্টিকের বস্তায় মোড়ানো ৩২টি ভারতীয় শাড়ীসহ ওয়াহেদুল ইসলামকে আটক করা হয়। আটক ওয়াহেদুল ইসলাম নীলফামারী সদরের দারোয়ানী এলাকার বাদশা মামুদের পুত্র।
সৈয়দপুর রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এ কে এম লুৎফর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চিলাহাটি ওয়েব ডটকমকে জানান, তার বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

অসুস্থ্য রতন কুমার রায়কে দেখতে প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বরূপ বক্্সী বাচ্চু

Posted by News Editor | | Posted in

স্বরূপ বকসী বাচ্চু, দিনাজপুর ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : দিনাজপুর হতে প্রকাশিত প্রতিদিনের সম্পাদক খায়রুল আনমের দীর্ঘদিনের কর্মচারী ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার অসুস্থ্য রতন কুমার রায়কে দেখতে গেলেন বাংলাদেশ পূজা উদ্্যাপন পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি স্বরূপ বক্্সী বাচ্চু। 
 এ সময় স্বরূপ বক্্সী বাচ্চুর সঙ্গে ছিলেন নাগরিক উদ্যোগ দিনাজপুরের সভাপতি, প্রবীন রাজনীতিবিদ আবুল কালাম আজাদ, বিশিষ্ট ঠিকাদার মোঃ নাজু, সাংবাদিক আজহারুল আজাদ জুয়েল, সুকুমার দাস। 
অসুস্থ্য রতন কুমার রায়ের সাথে প্রায় ২ ঘন্টা আলাপ আলোচনা করলে রতন কুমার রায়ের পরিবারের লোকজন জানায় গত ২ মাস ধরে তিনি ফুসফুসের জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছে। পূজা উদ্যাপন পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি স্বরূপ বক্্সী বাচ্চু তার চিকিৎসার ব্যপারে যে কোন সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

চিরিরবন্দরে এসিল্যান্ডসহ ৮ কর্মকর্তার বিদায় অনুষ্ঠান

Posted by News Editor | | Posted in

দেলোয়ার হোসন বাদশা, চিরিরবন্দর প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে এসিল্যান্ডসহ ৮ সরকারী কর্মকর্তার বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল ১৯ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার দুপুরে চিরিরবন্দর অফিসার্স ক্লাবের আয়োজনে ক্লাব ভবনের মিলনায়তন কক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বিদায়ী কর্মকর্তার মধ্যে সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোঃ মাশফাকুর রহমান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ শহীদুজ্জামান, জুনিয়র কলসালটেন্ট সার্জারী মোহাম্মদ মনজুর মোর্শেদ হোসেন, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক আবু হেনা মোস্তফা কালাম, চিরিরবন্দর থানার অফিসার্স ইনচার্জ (তদন্ত) মোঃ আরিফুল ইসলাম, দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর চিরিরবন্দর সাব জোনাল অফিসের এজিএম মোঃ আব্দুল আলিম, চিরিরবন্দর এলজিইডির উপ-সহকারী প্রকৌশলী খালেদ আহমেদ চৌধুরী, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক চিরিরবন্দর শাখার দ্বিতীয় কর্মকর্তা আবু মোর্শেদ মুহাঃ মেহেদী বাশার। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ গোলাম রব্বানীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ মঞ্জুরুল হক, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ আবু সাঈদ আকন্দ, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আফরোজ জেসমিন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক কর্মকর্তা (আরএমও) ডাঃ মর্তুজা আল মামুন। এসময় উপজেলার সকল কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন চিরিরবন্দর পল্লী দারিদ্র বিমোচন ফাউন্ডেশন কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন।

পার্বতীপুরে সরকারী ডাক বাংলোতে মাদক ব্যবসা-কেয়ারটেকার গ্রেফতার

Posted by News Editor | | Posted in

চিলাহাটি ওয়েব ডেস্ক : পার্বতীপুরের কমিউনিটি সেন্টার সংলগ্ন জেলা পরিষদের সরকারী ডাক বাংলোতে অভিযান চালিয়ে গতকাল মঙ্গলবার সন্ধায় কক্ষের ভিতর থেকে ২১ বোতল ফেন্সিডিল, ১২পিচ ইয়াবা ও ৫৫ পিচ ভারতীয় থ্রীপিচসহ ডাক বাংলোর কেয়ারটেকার আনোয়র হোসেন (২৬) গ্রেফতার করেছে দিনাজপু মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন অফিস। গ্রেফতারকৃতের পিতার নাম নুর ইসলাম। বাড়ী পৌর শহরের ইসলামপুর (কালিবাড়ী) মহল্লায়। 
জানাগেছে, মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন পরিদর্শক গোলাম রব্বানীর নেতৃত্বে ৬ সদসের একটি টিম অভিযানে অংশ নেয়। সাথে ছিল ৪ সদস্যের আনসার ব্যটলিয়ন ও রেলপুলিশ। অভিযানকালে একযুবক ও এক যুবতী পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। এ সময় সেখান থেকে চালকসহ একটি কালো প্রাইভেট কার (ঢাকা- মেট্রো-গ-২২-০৮৭৩) উদ্ধার করে রেলওয়ে থানায় নেয়া হয়। গাড়ীর মালিক সৈয়দপুরের জনৈক বিনয় বাবু বলে জানা গেছে। 
অভিযানের সময় উৎসুক জনতা মাদক ব্যবসায়ীর শাস্তির দাবিতে স্লোগান দেন। ধৃত আনোয়ার ডাক বাংলোর কেয়ারটেকার। আনোয়ার গ্রেফতার হলে ডাক বাংলো বুঝে নেন উপজেলা প্রশাসন। এলাকাবাসীর অভিযোগ সে দীর্ঘদিন থেকে ডাক বাংলোতে মাদকসহ অসামাজিক কার্যকলাপের আখড়া গড়ে তুলেছিল। ওই কারটিতে করে ইয়াবার চালান পরিবহন করতো বলে শোনা যাচ্ছে। 
এ ব্যাপারে পরিদর্শক গোলাম রব্বানী জানান গোপন সূত্রে খবর পেয়ে আনোয়ারকে মাদকসহ গ্রেফতার করা হয়েছে। ইয়াবা নির্মূলে আরো অভিযান চালানো হবে পার্বতীপুরে। রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মীর মোঃ মনিরুজ্জান বলেন, মাদক উদ্ধার ঘটনায় রাত ১১ টায় রেল থানায় মামলা হয়েছে। আসামীকে আজ বুধবার সকালে জেল হাজতে পাঠানো হবে।

দিনাজপুরে বাংলাদেশ ব্লাড সার্ভিসের ফি মেডিকেল স্বাস্থ্য ক্যাম্প

Posted by News Editor | | Posted in

চিলাহাটি ওয়েব ডেস্ক : দিনাজপুরে বাংলাদেশ ব্লাড সার্ভিসের উদ্দোগে বন্যার্ত ৫০০ মানুষ মধ্যে বিনা মূল্যে চিকিৎসাসেবা ও প্রয়োজনীয় ওষুধ পেয়েছেন। জেলার সদর উপজেলার মাতা সাগর ভূমি অফিস সংলগ্নে গতকাল এই চিকিৎসাসেবার আয়োজন করা হয়। এই আয়োজনে সহযোগী ছিল জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। বেলা ১১টায় চিকিৎসা ক্যাম্পের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ ব্লাড সার্ভিসের প্রতিষ্ঠাতা জনাব মোঃ মাহফুজ রহমান। 
তিনি বলেন, রক্তদান হোক, মানবতার ধর্ম শ্লোগানকে সামনে রেখে বাংলাদেশ ব্লাড সার্ভিসের ১৭ জুন ২০১৭ তারিখে পদযাত্রা শুরু করেন। সারাদেশে প্রায় ৫০ জেলাতে কার্যক্রম পরিচালিত আছে। বাংলাদেশ ব্লাড সার্ভিস সারাদেশে রক্তদান কার্যক্রমকে আরও সহজ ও নিরাপদ করে তোলার লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্লাড সার্ভিস এর প্রতিটি সদস্য (সদস্য রেজিঃ https://goo.gl/gqFBT5) কাজ করে। এছাড়াও রক্তদান সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি, ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্পেইন পরিচালনা, ফ্রি মেডিকেল ট্রিটমেন্ট, অবৈধ রক্ত কেনাবেচা বন্ধ করা, থ্যালাসেমিয়া ও ক্যানসার প্রতিরোধ সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি সহ মানুষের কল্যানে যে কোন সামাজিক কাজ করেন। উক্ত অনুষ্ঠানে চিকিৎসকেরা হলেন দিনাজপুর সদর হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার জনাব ডাঃ শাহিন আলম, ডাঃ নুসরাত জাহান, ডা: মাসুকুর রহমান, ডাঃ সুইটি খাতুন এবং ডাঃ জাহিদ আলম।
 সেবা কার্যক্রমে সহযোগিতা করেন বানভাসি মানুষের পাশে স্বেচ্ছাসেবক’রা; বাঁচাও দেশ! বাস্তবায়ন ফেবু ইভেন্ট কমিটি আহবায়ক সুমন কান্তি দে, সচিব মোঃ সাদ্দাম হোসেন, ঢাকা বিভাগের হিমু ,শরিফুল ইসলাম (স্বপন), জয়নাল আবেদীন মিন্টু, তিশা আকতার, রাইসুল ইসলাম রিফাত, চট্টগ্রাম বিভাগের শামীম হোসেন,সাহিদা সিদ্দিকা সৃতি, মুন্জু হোসেন, শরীফ আহম্মেদ, ঊশা বিন সাব্বির, ফজলে রাব্বি, জিসান, মুন্নি আকতার, রাজশাহী বিভাগের নয়ন তামীম, আবু মাসুদ, মোহাইমিনুল ইসলাম (প্রিন্স), খান মোঃ তৌফিক হাসান হিমু, আব্দুল মোমিন, রংপুর বিভাগের গোলাম কিবরিয়া, আনিছুর রহমান, রাব্বি ইমন, মাওলানা রাজি, সাদিক হোসেন, ফারহানা মাসুদা, খুলনা বিভাগের তাসনিমুল হাসান, বরিশাল বিভাগের ইমরান হাসান লিখন, সিলেট বিভাগের হোসাইন জামিল, কামাল হোসেন, ফাহমিদ বিন বিল্লাল, ময়মুনসিংহ বিভাগের সাজ্জাদ হোসাইন, সানজিদা ইসলাম । উপস্থিত ছিলেন বগুড়া ট্যুরিস্ট ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এ কে এম ইজহারুল হক জিহাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ শহিদুল ইসলাম সহিদ এবং অর্থ সম্পাদক মোছাঃ ময়না খাতুন প্রমুখ।

বদরগঞ্জে শিশু পাচার রোধে নারী মৈত্রীর সংবাদ সন্মেলন

Posted by News Editor | Tuesday, September 19, 2017 | Posted in

আকাশ রহমান, বদরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : রংপুরের বদরগঞ্জে কমিউনিটি ও নেটওয়ার্কিং শক্তিশালি ও সুদৃঢ করনের মাধ্যমে শিশু পাচার প্রতিরোধে জনসচেনতা বৃদ্ধি কার্যক্রম আরও গতিশীল করতে নারী মৈত্রী সংবাদ সন্মেলন করেছেন। 
গতকাল সোমবার (১৮সেপ্টেম্বর) দুপুরে বদরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবে অনুষ্ঠিত এ সংবাদ সন্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বদরগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি প্রভাষক কামরুজ্জামান মুক্তা, সাধারন সম্পাদক সাইফুর রহমান রানা, নারী মৈত্রীর প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর মোমেনুল হক মোমেন,রংপুর সমন্বয়কারি সায়মা আক্তার লোপা, দৈনিক নতুন স্বপ্ন পত্রিকার বার্তা সম্পাদক খন্দকার মিলন আল মামুন, সাংবাদিক শ্যামল লোহানী, সাইদুজ্জামান রিপন, ফিরোজ আলি, আকাশ রহমান ও নুরুন্নবী নুরু প্রমুখ। উল্লেখ্য, সংবাদ সন্মেলনে জানানো হয়, শিশু পাচার রোধে সব রকমের সাহায্য সহযোগিতা দেবে নারী মৈত্রী।

বদরগঞ্জে ভীমরুলের কামড়ে কলেজ ছাত্রীর মৃত্য ॥ আহত ৩

Posted by News Editor | | Posted in

আকাশ রহমান,বদরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : রংপুরের বদরগঞ্জে বান্ধুবীর বাড়ী থেকে ফেরার পথে ভীমরুলের কামড়ে এক কলেজ ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। একই ঘটনায় আশংকাজনক অবস্থায় আরো ৩জনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। 
আহতরা হলেন একরামুল হক (৫০) আহিদ আলী (৬০) ও শামছুল ইসলাম (৪০) রবিবার বিকেলে উপজেলার লোহানীপাড়া ইউনিয়নের বর্মতল গ্রামে এঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শী ও গ্রামবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, পার্বতীপুর উপজেলার খোলাহাটি ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের নুরুজ্জান মিয়ার মেয়ে ভবানীপুর ডিগ্রী কলেজের ছাত্রী মোছাঃ নাজমুন্নাহার (১৭) শনিবার সকালে বদরগঞ্জের লোহানীপাড়া ইউনিয়নের বর্মতল গ্রামে তার বান্ধুবী শিরিন আক্তারের বাড়ীতে বেড়াতে আসে। 
রবিবার বিকেলে বান্ধুবীর কাছ থেকে বিদায় নিয়ে ভ্যান যোগে বাড়ীর উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। পথিমধ্যে (গ্রামের অদুরে) প্রচন্ড ঝড়হাওয়ায় সড়কের ধারে বাঁশঝাড় থেকে ভীমরুলের বাসা ভেঙ্গে ভ্যানের উপর পড়লে ভীমরুলের কামড়ে ভ্যান যাত্রীদের শরীর ক্ষতবিক্ষত হয়। এসময় গ্রামবাসী তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করার পর সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ৩টায় কলেজ ছাত্রী নাজমুন্নাহারের মৃত্যু হয়। এবিষয়ে বদরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক (এমবিবিএস) রাজিব উদ্দৌলা বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, একাধিক ভীমরুলের কামড়ে বিষক্রিয়া হয়ে রোগী নাজমুন্নাহার মারা গেছে। তবে অন্যান্য রোগীরা এখন সুস্থ্য রয়েছে।

সৈয়দপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত

Posted by News Editor | | Posted in

আব্দুল্লাহ আল মামুন,ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : নীলফামারীর সৈয়দপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত হয়েছেন।রবিবার রাত তিনটার দিকে শহরের বাইপাস সড়কের ধলাগাছ মতির মোড় নামকস্থানে দুর্ঘটনাটি ঘটে।
নিহত তিনজনের মধ্যে দুইজনের পরিচয় জানা গেছে তারা হলো,লালমনিরহাট জেলার হাতিবান্ধা উপজেলার ট্রাক চালক দুলাল হোসেন(৫০) ও তার সহকারী জেলার ডিমলা উপজেলার ছোটখাতা গ্রামের আব্দুল হালিমের ছেলে আতিকুল ইসলাম(২৩)।অপরজনের পরিচয় জানা যায়নি। পুলিশ জানায় ঘটনাস্থলে দাড়িয়ে থাকা পাথর বোঝাই একটি ট্রাক বিকল হয়ে পরলে মহাসড়কের পাশে চালক ও তার সহকারী ট্রাকটি যান্ত্রিক ত্রুটি মেরামত করার সময় পিছন দিক থেকে আসা অপর একটি ট্রাক ধাক্কা দিলে দুটি ট্রাকেই ছিটকে পরে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তিনজন নিহত হয়। সৈয়দপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিরুল ইসলাম তিনজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থল থেকে তিনজনের লাশ উদ্ধার করে।

কিশোরগঞ্জে পানিতে ডুবে ও সড়ক দূর্ঘটনায় দুই জনের মৃত্যু

Posted by News Editor | Monday, September 18, 2017 | Posted in

মিজানুর রহমান কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলায় সোমবার সকালে পানিতে ডুবে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বাহাগিলী ইউনিয়নের ময়নাকুড়ি ডাকঘর পাড়া এলাকার ছোট পাইয়ের ছেলে জামিনুর রহমান (২৫) সকালে পুকুরে গোসল করতে গিয়ে পানিতে ডুবে মারা যায়। এলাকাবাসী তাকে পুকুরে হাবুডুবু খাওয়া দেখে কিশোরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে তারা ঘটনাস্থলে পৌছার আগেই জামিনুর রহমানের মৃত্যু দেহ উদ্ধার করে এলাকাবাসী। 
সে দীর্ঘদিন থেকে মৃগী রোগে ভুগছিলেন বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে বাহাগিলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান শাহ দুলু ঘটনার বিষয় নিশ্চিত করেন। 

এদিকে, নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার মাগুড়া ইউনিয়নের পাড়ের হাট ও চাঁদখানা ইউনিয়নের সন্ন্যাসী পাড়ার মধ্যবর্তী এলাকায় সিনহা এগ্রো কোম্পানির কাছে মোটর সাইকেল দূর্ঘটনায় এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত যুবক মাগুড়া ইউনিয়নের দক্ষিন সিঙ্গেরগাড়ী জুম্মাপাড়া এলাকার গরু ব্যবসায়ী সাইয়্যাদুল হকের ছেলে মশিয়ার রহমান (২৬) বলে জানা গেছে। প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা গেছে, সকাল ৯ টার দিকে মোটর সাইকেল নিয়ে কিশোরগঞ্জ আসার পথে নিয়ন্ত্রন হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা লেগে ধান ক্ষেতে ছিটকে পড়ে যায়। এ সময় রাস্তার পাশে থাকা লোকজন দৌড় দিয়ে তাকে উদ্ধার করার পূর্বেই সে মারা যায়। দূর্ঘটনার ফলে যুবকের মাথায় প্রচন্ড আঘাত পায় এবং চোঁখ দুটো বের হয়ে যায়। খরব পেয়ে পরিবারের লোকজন নিহতের লাশ উদ্ধার করে বাড়ীতে নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে মাগুড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহমুদুল হোসেন শিহাব মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ বজলুর রশীদ বলেন,এ বিষয়ে খবর পেয়েছি সে মোটর সাইকেল চালাতে পারদর্শী ছিল না।

চিরিরবন্দরে হাতের সাহায্য ছাড়াই মোটর সাইকেলে দীর্ঘপথ পাড়ি

Posted by News Editor | | Posted in

দেলোয়ার হোসেন বাদশা, চিরিরবন্দর প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : চর্চা ও চেষ্টা মানুষকে কাংখিত লক্ষে পৌছে দেয় এটাই বাস্তব। এমনি এক অসাধারণ চর্চা ও চেষ্টায় হাতের সাহায্য ছাড়াই মোটর সাইকেলে দীর্ঘপথ পাড়ি দিয়ে অসাধ্যকে সাধন করে সকলকে হতবাক করে দিয়েছে ধান চাল ব্যবসায়ী জাহিনুর আলম। 
দিনাজপুর জেলার চিরিরবন্দর উপজেলার অমরপুর ইউনিয়নের মথুরাপুর গ্রামের মৃত আব্দুল মজিদের পুত্র ও তৃপ্তি ট্রেডার্স এর সত্বাধিকারী ধান-চাল ব্যবসায়ী জাহিনুর আলম (৫০) গত ১২ বছর ধরে নিরলস চেষ্টা ও চর্চা করে মোটর সাইকেলের হাতল ছেড়ে দিয়ে দীর্ঘপথ পাড়ি দিতে সক্ষম। সরেজমিন কারেঙ্গাতলী বাজারে গিয়ে দেখা গেছে তিনি দিনাজপুর হতে ফুলবাড়ী মহাসড়কে মোটর সাইকেলের হাতল ছেড়ে দিয়ে প্রায় ৪০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেন। 
মোটর সাইকেলের হাতল ছেড়ে দীর্ঘ পথ পাড়ি দেয়ার বিষয়ে জাহিনুর আলম জানান, ১২ বছর চেষ্টা ও চর্চা করে এ সফলতা অর্জন করেছি। এছাড়া তিনি হাতের সাহায্য ছাড়াই বাঁশের উপর দিয়ে সহজেই হেটে যেতে সক্ষম ওই এলাকার ইউপি চেয়ারম্যান হেলাল সরকার জানান, সে নিতান্তই শখের বশে চেষ্টা করে অসাধ্য সাধন করেছে। এ সাফল্য অর্জন কওে তিনি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছেন। তবে তাকে এ চর্চা না করার জন্য এলাকার অনেকেই তীব্রভাবে নিষেধ করেছেন।

ঠাকুরগাঁওয়ে ওঁরাও সম্প্রদায়ের কারাম পূঁজা উৎসব পালিত

Posted by News Editor | | Posted in

আজম রেহমান,ঠাকুরগাঁও ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : প্রতি বছরের মত এবারও ঠাকুরগাঁওয়ে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে ওঁরাও সম্প্রদায়ের কারাম পূঁজা ও সামাজিক উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতি বছর বিশ^পঞ্জিকা হিসেবে ভাদ্র মাসের শেষ দিনে রোববার রাত ৯টায় জাতীয় আদিবাসি পরিষদ ও কারাম পূঁজা কমিটির উদ্যোগে সদর উপজেলার সালন্দর ইউনিয়নের পাঁচপীরডাঙ্গায় ওঁরাও পল্লীতে ২দিন ব্যাপী এ উৎসবের আয়োজন করা হয়। 
জেলা পরিষদ প্রশাসক ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক কুরাইশী প্রধান অতিথি হিসেবে এ উৎসবের উদ্বোধন করেন। এসময় ওঁরাও সম্প্রদায়ের নারী-পুরুষ ঢাক ঢোল কাঁশি ঝাঁঝড়ের তালে ঐতিহ্যবাহী নিজস্ব সঙ্গীতে আকাশ-বাতাস মাতিয়ে তোলেন। সঙ্গে যোগ দেয় শিশু-কিশোররাও। আদিবাসীদের চিরন্তন নিজস্ব উপাসনার এই বিশেষ সাংস্কৃতিক উৎসব চলে পুরো রাত ব্যাপী। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ঠাকুরগাঁও প্রেস ক্লাবের সভাপতি আবু তোরাব মানিক, আদিবাসী পরিষদের উপদেষ্টা এ্যাডভোকেট ইমরান চৌধুরী, সালন্দর ইউপি চেয়ারম্যান মাহাবুব আলম মুকুলসহ রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিবর্গ ।
 প্রতি বছর ঠাকুরগাঁওয়ের গোবিন্দনগর, জগন্নাথপুর, চ-িপুরসহ জেলার বিভিন্ন স্থানে ওঁরাও সম্প্রদায়ের আদিবাসী নারী-পুরুষ বৃক্ষ পূঁজা উপলক্ষে কারাম পূঁজা ও সামাজিক উৎসবের আয়োজন করে থাকেন।

ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈলে ধান ক্ষেত থেকে কলেজ ছাত্রীর লাশ উদ্ধার

Posted by News Editor | | Posted in

আজম রেহমান,ঠাকুরগাঁও ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : ঠাকুরগাঁও রানীশংকৈল উপজেলার রাতোর ইউনিয়ন ভেলাতোর গ্রামের ধানক্ষেত থেকে তোফাজুল হক এর মেয়ে কলেজ ছাত্রী মুক্তা রানী (২১) এর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার দুপুরে বাড়ির পাশে ধান ক্ষেতে এলাকাবাসি লাশ দেখতে পেয়ে রানীশংকৈল থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে। পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার সকালে মুক্তা রানী পরীক্ষা দেওয়ার উদ্দেশে নিজ বাড়ি থেকে বেড় হয়ে যাওয়ার পরে রাত হয়ে গেলেও বাসায় না ফেরায় চিন্তিত হয়ে পড়ে পরিবারের লোকজন। অনেক খোজাখুজি করেও তাকে কোথাও পাওয়া যায়নি। সকালে এলাকাবাসি মুক্তার লাশ ধান ক্ষেতে পরে থাকতে দেখে তার বাবাকে খবর দেয় এবং পুলিশকে জানানো হলে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় মৃত মুক্তা রানীর বাবা তোফাজুল হক অভিযোগ করে বলেন, তার বোনের দুই ছেলে সোহাগ ও সবুজ এবং রাজবাড়ির বিলপাড় গ্রামের মিলন আমার মেয়েকে হত্যার সাথে জড়িত রয়েছে। রানীশংকৈল থানার অফিসার ইনচার্জ মো.আব্দুল মান্নান বলেন, মুক্তা রানী নামের কলেজ পড়–য়া একটি মেয়ের লাশ তার বাড়ির পাশের ধান ক্ষেত থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে, তদন্ত করে আসামিদের গ্রেফতার সহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

রোহিঙ্গা গণহত্যা বন্ধের দাবীতে দিনাজপুরে আইনজীবীদের মানববন্ধন

Posted by News Editor | | Posted in

স্বরূপ বকসী বাচ্চু, দিনাজপুর ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : দিনাজপুরে রোহিঙ্গা গণহত্যার প্রতিবাদে রোববার মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম। রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় দিনাজপুর জেলা আইনজীবী সমিতি প্রাঙ্গণে রোহিঙ্গা গণহত্যা বন্ধ ও তাদেরকে দেশে ফিরিয়ে নেয়ার দাবীতে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছেন। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. এমাম আলী, আইনজীবী ফোরামের সভাপতি মো. আব্দুল হালিম, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. আইনুল হক, ফোরামের নেতা মো. আনিসুর রহমান চৌধুরী, মো. আনোয়ারুল আজিম সরকার খোকন, মো. আবু আলী চৌধুরী, আলহাজ্ব মো. মিজানুর রহমান প্রমূখ।

নীলফামারী পৌরসভার চিত্র বদলে যাচ্ছে

Posted by News Editor | | Posted in

এম এ মোমেন, নীলফামারী ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : বদলে যেতে শুরু করেছে নীলফামারী পৌরসভার চিত্র। সুপার মার্কেট থেকে উন্নত ড্রেনেজ ব্যবস্থা, পাড়া-মহল্লার অলি-গলির সব সড়কে লাগছে উন্নয়নের ছোঁয়া। এছাড়া বেশ কয়েকটি কালভার্ট নির্মাণ, সড়কবাতি, স্টিলের ডাস্টবিন স্থাপন, বস্তি উন্নয়নসহ আধুনিক পৌরসভায় রূপান্তর করতে যা যা করা দরকার সবই করা হচ্ছে। এশিয়া উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) অর্থায়নে বেশ কয়েকটি মেগাপ্রকল্প ছাড়াও ছোট-খাটো অসংখ্য প্রকল্পের কাজ একসঙ্গে শুরু হওয়ায় পৌরবাসী বেশ খুশি। শহরের সড়কগুলোর ফুটপাতগুলোতে টাইলস বসানো হচ্ছে। এদিকে পৌর এলাকায় একটি শিশু পার্ক স্থাপনের দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী। পৌরসভা সূত্রে জানা যায়, দ্বিতীয় ও তৃতীয় নগর পরিচালনা ও অবকাঠামো উন্নীতকরণ (সেক্টর) প্রকল্পের (ইউজিআইআইপি) এর (মিউনিসিপাল) ও ১৯ শহর প্রকল্প ও জলবায়ু প্রকল্পের তত্ত্বাবধানে গত ৭ বছরে প্রায় ৬৯ কোটি ১৭ লাখ টাকার প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে নীলফামারী পৌরসভায়। এর মধ্যে ইউজিআইআইপি দুই প্রকল্পে ১৮ কোটি ৭৯ লাখ, ১৯ শহর প্রকল্পে ১৭ কোটি, জলবায়ু প্রকল্পে এক কোটি টাকা। তবে ইউজিআইআইপি-৩ প্রকল্পের আওতায় ৩২ কোটি ৩৮ লাখ টাকা নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। নীলফামারী পৌরসভার এই সব কাজের অগ্রগতি দেখতে সম্প্রতি উন্নয়ন এলাকা পরিদর্শন করেন এডিবি প্রতিনিধি দল। উন্নয়ন এলাকা পরিদর্শনের সময় এডিবি মিশন প্রধান আলেকজান্ডার ভোগল বলেন, আমরা এডিবি অর্থায়নে নীলফামারী পৌরসভার বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করেছি যা সন্তোষজনক এবং আরো চলমান কাজসমূহ দ্রুত সমাধানের জন্য প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দেব। নীলফামারী পৌরসভা মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ বলেন, নীলফামারী অতি দ্রুত উন্নত থেকে উন্নততর হচ্ছে। পৌরসভাটি ‘ক’ শ্রেণির মর্যাদা লাভের পর এলাকার উন্নয়নের গতিও বেড়েছে কয়েকগুণ। বর্তমানে এই পৌরসভা ৯টি ওয়ার্ড থেকে ১৫টি ওয়ার্ডে উন্নীতকরণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তবে সম্প্রতিকালের ভয়াবহ বন্যায় ৩০ হাজার ৬০০ মিটার সড়ক ও কালভার্ট কাজের ১২ কোটি ৭ লাখ টাকার মতো ক্ষতি হয়েছে।

বদরগঞ্জ মডেল বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয় সরকারীকরণের দাবীতে মানববন্ধন

Posted by News Editor | | Posted in

আকাশ রহমান, বদরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : রংপুরের বদরগঞ্জ মডেল বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয় সরকারীকরণের দাবীতে মানববন্ধন করেছে শিক্ষার্থীরা। 

গতকাল রবিবার বিকেলে বিদ্যালয় ছুটির পর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্ত্বরে ওই মানববন্ধনে অংশ নেয় শিক্ষক শিক্ষিকা, ছাত্রছাত্রী ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যবৃন্দ। এসময় ৮০ বছরের প্রাচীনতম ও ঐতিহ্যবাহী এই বিদ্যালয়কে সরকারীকরণের দাবীতে বক্তব্য রাখেন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব জাইদুল হক চৌধুরী, প্রধান শিক্ষক ময়নুল হক সরকার, সহকারী শিক্ষক রওশন আলী, আব্দুর রউফ সরদার, মাসুদ রানা, শামছুল হক, ফারুক হোসেন বাবু , মাওঃ জামসেদ আলী ও নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী ঐশী প্রমুখ।

নীলফামারীতে দলিতদের অধিকার সুরক্ষায় “জেলা নেটওয়ার্ক” কমিটি গঠন

Posted by News Editor | Sunday, September 17, 2017 | Posted in

এম এ মোমেন, নীলফামারী ব্যুরো, চিলাহাটি ওয়েব : নীলফামারীতে দলিতদের অধিকার সুরক্ষায় “জেলা নেটওয়ার্ক” কমিটি গঠন করা হয়েছে। 
দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের আদিবাসী ও দলিত জনগোষ্ঠীর অধিকারভিত্তিক ও স্থায়ীত্বশীল উন্নয়ন নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে নেটওয়ার্ক অফ নন-মেইনস্ট্রিমড মারজিনালাইজড কমিউনিটিজ ( এনএনএমসি ) ফাউন্ডেশন হেকস/ইপার এর সহায়তায় নেটওয়ার্কিং ফর ইনক্লুশান এন্ড এমপাওয়ারমেন্ট অফ দলিত’স এন্ড আদিবাসী’জ ইন দি নর্থ-ওয়েস্ট অফ বাংলাদেশ প্রকল্পের আওতায় নীলফামারী সার্প জেলা অফিসের সভাকক্ষে দলিতদের অধিকার সুরক্ষায় জেলা এডভোকেসী প্লাটফর্ম গঠিত হয়েছে। শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১ টায় রমেন্দ্র বর্দ্ধন বাপীকে সভাপতি ও দৈনিক নীলফামারী বার্তার সম্পাদক মো: শীষ রহমানকে সাধারণ সম্পাদক করে প্লাটফর্মের ১৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়। 
পাপন কুমার সরকারের সঞ্চালনায় ও নীলফামারী পৌরসভার কমিশনার নুরজাহান বেগম এর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন সার্প এর এডভোকেসী অফিসার নাজমা বেগম, প্রকল্প কর্মকর্তা মোহাম্মদ সহিদুল ইসলাম ও দলিত সংগঠনের প্রতিনিধিবৃন্দ। 
সভায় বক্তারা বলেন, দলিত জনগোষ্টীর অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য রাষ্ট্র কর্তৃক স্বীকৃত অধিকার আদায়, সংঘবদ্ধকরণ, সংশ্লিষ্ট সরকারি-বেসরকরি প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগাযোগ প্রতিষ্ঠা এবং সর্বোপরি সমাজের মূল¯্রােতধারায় নিজেদের অন্তর্ভূক্তকরণে একটি শক্তিশালী নেটওয়ার্ক হিসেবে জেলা এডভোকেসী প্লাটফর্ম কাজ করবে। পাশাপাশি এ ধরণের নেটওয়ার্ক দলিত জনগোষ্ঠীর স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে জানান তারা।

শিশু কিশোরের পণ

Posted by Bulu 48pbt | Saturday, September 16, 2017 | Posted in






















॥ আবু সুফিয়ান ॥ 
 আমরা শিশু আমরা কিশোর
ছুটবো মোরা পাঠশালা
খুলবো খাতা ধরবো কলম
আঁকবো মোরা জ্ঞান মালা

 বর সাজিয়া বধু বেশে
পুতুল খেলা খেলবো নাকো
ঘোমটা খুলে পাপুষ পড়ে
ঊর্ধ দেশে উড়বো গো

 বিনা যানে নিজ বাহনে
ঘুরবো মোরা মহাশূণ্যে
ধুমকেতু আর উল্কাটকে
দুহাত দিয়ে ধরবো গো

 চন্দ্র তারা ছায়াপথরা
পদতলে ঝুলবে গো
খেলবো মোরা জ্ঞানের খেলা
কেমন করে বাতিজ্বালা
ধুমকেতু আর উল্কাটাকে
খুলে মোরা দেখবো গো

 সপ্ত আকাশ দেখবো ঘুরে
জ্ঞাত যত দেব ছুড়ে
অচেনা আর অজানাদের
দুহাত দিয়ে লুটবো গো

 নামবো মোরা নিন্মদেশে
ডুবুরি নয় ইন্দ্রবেশে
স্বপ্নপুরির অঙ্গরাজ্য
দেখবো মোরা হেসে হেসে

আমার শিশু আমরা কিশোর
আমরা হবো মানব প্রাণ
জয় করিবো জ্ঞানের সাগর
কিনবো মোরা দুজাহান।

 =============== 
-: কবির ঠিকানা :- 
আবু সুফিয়ান খান 
পিতা মৃত আপ্তাব উদ্দীন খান
 গ্রাম পশ্চিম জগৎচর 
ডাকঘর উজান আব্দুল্লাহ পুর 
থানা কুলিয়ার চর 
জেলা কিশোরগঞ্জ।

সৈয়দপুরে দুই ঘন্টার কলার বাজার

Posted by News Editor | | Posted in

এম এ মোমেন, নীলফামারী ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : সুর্যের প্রথম আলোর ছটা তখনো পড়েনি। আবছা আলো- আধারের খেলার মুহুর্তে সৈয়দপুরে ব্যস্ততম সড়কের দুই ধারে ভোরের ভ্রাম্যমান কলার বাজারটি জমে উঠেছে। ক্রেতা-বিক্রেতাদের মহামিলনের সামান্য ক্ষণের এ বাজারটি সকলের কাছে ভিন্ন গ্রহন যোগ্যতা পেয়েছে। তবে স্থায়ী বাজার না হওয়ায় বর্ষায় দুর্ভোগ পোহাতে হয়। সমস্যা নিরসনে তাই স্থায়ী কলার বাজার নির্মাণের দাবি কলা ব্যাবসায়িসহ সচেতন মহলের। এতে সৈয়দপুরের ভোরের এ বাজারটি উত্তরের কলার ভান্ডারে পরিণত হবে। 
জানা যায়, ১৯৮০ সালে এ শহরের প্রান কেন্দ্র পাঁচ মাথা মোড়ের রিক্সা ষ্টান্ডে দিনের প্রথম প্রহরে ব্যাবসায়িরা তাদের সংগৃহিত কলা নিয়ে এসে পাইকারি দরে বিক্রি করত। এভাবে দিনের বেলায় কলা ক্রেতা-বিক্রেতা, পথচারি,রিক্সাচালক একই জায়গায় অবস্থান করায় প্রচন্ড জানজট সৃষ্টি হত। পরে এটি নয়াবাজার সড়কটির দুই ধারে স্থানান্তরিত হয়। ২০০০ সাল থেকে এ বাজারটি চালু হয় ভিন্ন নিয়মে। কলা ব্যবসায়িরা স্ব-উদ্যগে এ বাজারটির সময় নির্ধারন করে অতি ভোরে তাদের কলা ক্রয়-বিক্রয় শুরু করে। এতেই এ বাজারটি উত্তরাঞ্চলে আলাদা বাজারের রুপে পরিচিতি লাভ করে। গতকাল ভোরে সরেজমিন ওই পাইকারি কলার বাজারে গিয়ে দেখা যায়, সৈয়দপুর শহরের গোয়ালপাড়া-নয়াবাজার দিনের ব্যস্ততম সড়কটিতে ১শত গজে ঊভয় দিকে সারিবদ্ধ ভাবে প্রায় দেড় শতাধিক কলা বিক্রেতা খোলা আকাশের নিচে তাদের টুকরি নিয়ে বসে আছে। সবুজ আর হলুদ বর্ণের কলায় ভাসছে বাজারটি। মেহের সাগর, হাইব্রিড সাগর, দেশি সাগর, চিনিচম্পা ,মালভোগসহ বিভিন্ন ধরনের কলায় টুকরি ভর্তি। 
অনেকের কাছে ক্রেতারা দর হাকাচ্ছে। এভাবে এক পর্যায়ে ৮০ গন্ডায় এক পোন হিসেবে দর বনি-বনায় হচ্ছে ক্রয়-বিক্রয়। মাত্র দুই ঘন্টার ব্যাবধানে এ বাজারের লেনদেনের সমাপ্তি টেনে ক্রেতা-বিক্রেতা একসাথে তৃপ্তির হাসি নিয়ে ফিরছে। আর সকাল ৮ টায় দেখা যায়, এখানে যে বাজার লেগেছিল তার কোথাও কোন চিহ্ন নেই। এ বাজারের পাইকারি কলা বিক্রেতা রবিউল ইসলাম জানান, দির্ঘ দুই যুগ ধরে এ বাজারে কলা নিয়ে আসছি। বর্ষায় খোলা আকাশের নিচে কিংবা এ বাজারের সামনে মোকামের ভিতর কলা বেচতে হয়। এতে বাজার ব্যবস্থাপনাগত সুযোগ সুবিধা না থাকায় ওই সময় দুরের ক্রেতারা আসে না। ওই মৌসুমে লোকসানে পুজি হারিয়ে যায়। তবে সড়কে দোকান হলেও ভোরে হওয়ায় যানজটের কোন ভয় নেই। এতে নির্বিঘেœই কলা বিক্রি করছি। তবে বিক্রি শেষে অবশিষ্ট কলা অন্যর দোকানে রেখে যাই। আর কলা পাকার ব্যবস্থাপনাগত সুবিধা না থাকায় প্রায়ই সমস্যায় পড়তে হয়। ইমদাদুল, খলিল, বাবু, বখতিয়ারসহ সকল ব্যবসায়িরা একই মত প্রকাশ করেন। তারা আরো জানান, এ বাজারের কলা সৈয়দপুর সেনা নিবাস, হাসপাতাল ও স্থানিয় চাহিদা পুরনের পর ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর, রংপুর, নীলফামারীসহ উত্তরের প্রায় আট জেলার বিভিন্ন উপজেলার হাট বাজারের ব্যাবসায়িরা নিয়ে যায়। আর দর কম থাকায় দিন দিন বিভিন্ন এলাকার নতুন নতুন ক্রেতা বাড়ছে। 
তবে মাথার ওপর ছাউনিসহ একটি স্থায়ি বাজারের ব্যবস্থা হলে এর সরবরাহ আরো বাড়বে। আর কলা চাষে উদ্বুদ্ধ হয়ে এ পেশায় বেশি ব্যাবসায়ি ঝুকবে। ঠাকুরগাঁও সদর এলাকার ব্যবসায়ি মোঃ সফিকুল জানান, মোবাইলে যোগাযোগ করে কলা কেনা গেলেও। বাজারের চাহিদা বেশি থাকলে দাম বেড়ে যায়, আবার সরবরাহ বাড়লে দাম কমে। তবে অন্যন্য বাজারের চেয়ে এ মার্কেটে কলার বাজার মুল্য তুলনামুলক কম। সাশ্রয় মুল্য আর বিক্রেতাদের আন্তরিকতাসহ তাই নানা কারনে এ বাজারটির এ ব্যবসায়িসহ উত্তরের বিভিন্ন জনপদের ব্যবসায়িরা এ বাজারের নিয়মিত ক্রেতা। 
তাদের দির্ঘদিনের আনাগোনায় বাড়ছে এ বাজারের কলার ব্যবসা। তবে ব্যবস্থাপনাগত সুবিধা অভাব ও খোলা আকাশের নিচে ভ্রাম্যমান এ ভোরের বাজারটির অস্তিত্ব অনেকটা হুমকির মুখে পড়েছে। স্থানিয় ব্যবসায়িসহ বাইরের ক্রেতাদের দাবি আধুনিক না হোক অন্তত এর স্থায়ি রুপদানে স্থানিয় কতৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান তারা। কলা ব্যবসায়ীদের দাবী, স্থায়ী ভাবে সেট নির্মাণসহ সুযোগ সুবিধা সৃষ্টি করলে অন্যন্য ব্যবসার পাশাপাশি কলা ব্যবসাতেও উত্তরের এ জনপদ নেতৃত্ব দেবে।

চরবাসীর জীবনমানের উন্নয়নেবোর্ড গঠনের দাবী -- ডেপুটি স্পীকার

Posted by News Editor | | Posted in

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : গাইবান্ধা জেলার ফুলছড়ি উপজেলার ফজলুপুর ইউনিয়নে ১৫ সেপ্টেম্বর শুক্রবার বিকালে দুর্গম চরাঞ্চল চন্দনশ্বরে ৩ জেলার জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে ডাকাতি প্রতিরোধে অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি, চরাঞ্চলে মানুষের নিরাপত্তা ও চরবাসীর জীবনমান উন্নয়নে চর উন্নয়ন অথরিটি ও চর উন্নয়ন বোর্ড গঠনের দাবী করে এর গুরুত্ব তুলে ধরে বক্তব্য প্রদান করেন। গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক গৌতম চন্দ্রপালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি মিয়া এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জামালপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য ফরিদুল ইসলাম খান দুলাল, কুড়িগ্রাম-৪ আসনের সংসদ সদস্য রুহুল আমিন, বাংলাদেশ পুলিশের রংপুর রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি চৌধুরী মঞ্জুরুল কবির, জামালপুরের জেলা প্রশাসক আহমেদ কবির, গাইবান্ধার পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ, জামালপুর জেলার পুলিশ সুপার রওনক জাহান, কুড়িগ্রাম জেলার পুলিশ সুপার মেনহাজুল ইসলাম। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ফুলছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান, দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, রৌমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মজিবর রহমান বঙ্গবাসী, ফুলছড়ির আর.বি এসোসিয়েশনের সভাপতি কামরুল হাসান পারভেজ রোমান, ফুলছড়ি ইউপি চেয়াারম্যান আব্দুল গফুর মন্ডল, ফজলুপুর ইউপি চেয়াারম্যান জয়নাল আবেদীন জালাল, কোচখালী চরের শফিকুল ইসলাম শফি। বক্তারা বলেন, সম্প্রতি গাইবান্ধার চরাঞ্চলের মানুষের একমাত্র সম্বল গরুর প্রতি নজর ফেলেছে ডাকাতরা। নৌপথে চলাচলকারী নৌযানে ডাকাতির পাশাপাশি চরে চরে হামলা চালিয়ে চরবাসীর সহায়-সম্বল ছিনিয়ে নেয় জলদস্যুরা। শুক্রবার দুপুর ৩টার পর সমাবেশ শুরু হলেও সকাল থেকেই নৌকায় করে হাজার হাজার মানুষ চন্দনশ্বর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সমাবেত হতে শুরু করে। বিশাল এই সমাবেশে কুড়িগ্রাম, জামালপুর, বগুড়া ও গাইবান্ধা জেলার দুই শতাধিক চরের নারী-পুরুষ উপস্থিত হন। সমাবেশে ডাকাত, মাদক ও জঙ্গি প্রতিরোধে ব্যবস্থা গ্রহনের দাবীতে ব্যানার, প্লাকার্ড নিয়ে মুহুর্মুহু শ্লোগানে মুখরিত হয়ে ওঠে সমাবেশস্থল। এসময় তারা চরাঞ্চলে নৌ-থানা স্থাপনের জোর দাবী জানান। এলাকাবাসীর দাবী, তাদের জানমালের নিরাপত্তায় ফুলছড়ির চরাঞ্চলে নৌ-ডাকাতি প্রতিরোধে দ্রুতগামী জলযান সরবরাহ করার পাশাপাশি অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি সম্মিলিত আইনশৃংখলা বাহিনীর টহল আরো জোরদার করতে হবে। সমাবেশে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে ডেপুটি স্পিকার আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া এমপি আরো বলেন, চরবাসী ও নৌ-যাত্রীদের জানমাল ডাকাতের কবল থেকে রক্ষা করতে ৩ জেলার মানুষ ঐক্যবদ্ধ দাবী উত্থাপন করেছেন। ঐক্যবদ্ধ মানুষ পুলিশ ও প্রশাসনের সহযোগিতায় দুর্বৃত্তদের রুখে দাড়াবে। চরবাসীর যৌক্তিক দাবী পূরণে সরকার তাদের পাশে থাকবে। এসময় তিনি চরাঞ্চলের মানুষের জীবন জীবিকার মানোন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর কাছে চর উন্নয়ন বোর্ড অথবা চর উন্নয়ন অথরিটি গঠণ করার দাবী জানান। এছাড়াও চরাঞ্চলে যাতে উগ্র-মৌলবাদী জঙ্গিগোষ্ঠী আস্তানা গড়ে তুলতে না পারে সেদিকেও খেয়াল রাখার আহবান জানান।

ছেলের বিয়ের যৌতুক নিয়ে আইনজীবির কান্ড-ক্ষতিপূরণ দিয়ে রক্ষা

Posted by News Editor | | Posted in

আজম রেহমান,ঠাকুরগাঁও ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : বিয়ের পূর্বেই যৌতুকের ৩০ লক্ষ টাকা ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে দাবী করে নির্ধারিত সময়ে বিয়ের অনুষ্ঠানে না যাওয়ার ঘটনায় জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার এক আইনজীবি’র আমেরিকা প্রবাসী পুত্র কে বিয়ের আসর থেকে বিয়ে নাদিয়ে ফেরত পাঠিয়েছে পাশ্ববর্তী বোচাগঞ্জ উপজেলার কনে পক্ষ। ছেলের বিয়ের যৌতুক নিয়ে আইনজীবির এ কান্ড দেখে ছি ছি রব উঠেছে । 
জানা যায়, বেশ কিছুদিন ধরে উপজেলার পালিগাঁওয়ের আইনজীবি আজগর আলীর আমেরিকা প্রবাসী একমাত্র পুত্র মো. শাহরিয়ার এর বিয়ের জন্য দিনাজপুরের বোচাগঞ্জ উপজেলা শহরের এক বিশিষ্ট ব্যবসায়ীর কন্যা’র সাথে বিয়ের কথাবার্তা চলার একপর্যায়ে সকল আনুষ্ঠানিকতা শেষে ১৪ সেপ্টেম্বর বিয়ের দিন ধায্য হয়। ধায্য তারিখে কনে পক্ষ দুপুরে এলাকার লোকজন এবং আতœীয়-স্বজনদেরকে প্রয়োজনীয় আপ্যায়ন শেষে বর পক্ষের আগমনের জন্য অপেক্ষার এক পর্যায়ে জানা যায় যে, বর পক্ষ অজ্ঞাতকারনে কনে পক্ষের বাড়ীতে গমন করবেননা। 
এ ব্যাপারে কনের পিতাসহ পরিবারের সদস্যরা নানাভাবে চেষ্টা তদ্বীরের পর সন্ধার পরে বরপক্ষ যাবেন বলে স্থির হয়। ২ টি মাইক্রোবাসযোগে ৩০/৩২ জন বন্ধ-বান্ধব শুভাকাঙ্খি নিয়ে রাত সাড়ে ৯টায় কনের বাসায় পৌছেন। কনে পক্ষ বর পক্ষকে যথারিতী আপ্যায়ন করে স্থানীয় চেয়ারম্যান ও গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গসহ আলোচনার জন্য বসা হয়। 
আলোচনায় বর ও বরের পিতা এডভোকেট আজগর আলীর অসংলগ্ন কথাবার্থা, আগে ধায্যকৃত ২৫ লক্ষ টাকার দেনমোহর ৫ লক্ষ টাকা করার দাবী, বিয়ের আগে ৩০ লক্ষ টাকা বরের একাউন্টে ট্রান্সফার করার বিষয় নিয়ে উত্তেকজনাকর পরিস্তিতির সৃস্টি হয়। এ সুযোগে বর পক্ষের কিছু লোকজন বিয়ের আসর থেকে সটকে পড়ে। 
এদের মধ্যে ঠাকুরগাঁও আইনজীবি সমিতির সদস্য আবু সায়েম, ঠাকুরগাঁও আইনজীবি সহকারী সমিতির সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, আব্দুর রশিদ সহ আরো কয়েকজন। পরে এক পর্যায়ে বর পক্ষকে অনুষ্ঠান স্থলেই আটকে রাখা হয়। বর’র সাথে তার ভগ্নিপতি, ফুফাত ভাই সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবি সুমন আলী, বরের পিতা এডভোকেট আজগর আলী সহ অন্যান্যরা আটকা পড়েন।
 স্থানীয় বোচাগঞ্জ থানায় অভিযোগ করা হলে অফিসার ইনচার্জ সাজ্জাদ হোসেন, এসআই হারুন, তালেব সহ সঙ্গীয় ফোর্সরা অনুষ্ঠানস্থলে গিয়ে বিষয়টি দীর্ঘ সময় ধরে মধ্যস্থতার চেষ্টা করে ব্যার্থ হন। পরে স্থানীয় চেয়ারম্যানের মধ্যস্থতায় বিয়ে বাড়ীর খরচ বাবদ ৫ লক্ষ টাকার মধ্য হতে ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা নগদে ক্ষতিপুরন দিয়ে, অবশিষ্ট অর্থ প্রদানের সময় চাইলে রাত ৩ টার দিকে বর ও বরপক্ষ ছাড়া পায়। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃস্টি হলেও বর ও তার পিতার বিচার চেয়েছেন সচেতন মহল।

রোহিঙ্গা মুসলিম গণহত্যার প্রতিবাদে দিনাজপুরে তৌহিদি জনতার বিক্ষোভ মিছিল

Posted by News Editor | Friday, September 15, 2017 | Posted in

চিলাহাটি ওয়েব ডেস্ক : মিয়ানমারের লাল কাপড় পরিহিত নেড়ে উগ্রপন্থী বৌদ্ধ ও সেনাবাহিনী কর্তৃক রাখাইন প্রদেশে ইতিহাসের নির্মম ও জঘন্যতম রোহিঙ্গা মুসলিম গণহত্যার প্রতিবাদে ও রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব ফিরিয়ে দেয়ার দাবীতে দিনাজপুরে ইমাম, ওলামা-মাশায়েখ ও তৌহিদি জনতার উদ্যোগে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। 
শুক্রবার বাদ জুমা এ বিশাল বিক্ষোভ মিছিলটি দিনাজপুর ইনষ্টিটিউট প্রাঙ্গণ থেকে বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে। এ সময় বিক্ষুব্ধ তৌহিদী জনতা মিয়ানমারের গণহত্যার বিরূদ্ধে বিভিন্ন শ্লোগান দেন। “সু’চির দুই গালে-জুতা মারো তালে তালে”, “বদরের হাতিয়ার-গর্জে উঠুক আরেকবার”, “নাফ নদীতে লাশ কেন-জাতিসংঘ জবাব চাই”সহ বিভিন্ন শ্লোগানে শ্লোগানে রাজপথ প্রকম্পিত করে তোলে দিনাজপুরের ইসলামপ্রিয় তৌহিদী জনতা।
 মিছিলে নেতৃত্ব দেন, দিনাজপুর জেলার ইমাম ওলামা-মাশায়েখ ও তৌহিদী জনতার সভাপতি মাওলানা মোঃ মতিউর রহমান কাসেমী। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মাওলানা শরিফুল ইসলাম, মাওলানা আব্দুর রউফ, মাওলানা আব্দুর রাজ্জাক, মাওলানা খাদেমুল ইসলাম, মাওলানা আনসারুল ইসলাম, মাওলানা মকবুল হোসাইন, মাওলানা ওয়াজেদ আলী, মাওলানা রায়হান প্রমুখ।

চিলাহাটি ওয়েব ডট কম |

    পুরাতন সংবাদ