Showing posts with label গাইবান্ধা. Show all posts
Showing posts with label গাইবান্ধা. Show all posts

গাইবান্ধা জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আটক

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Wednesday, July 17, 2024 | 7/17/2024 04:20:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : গাইবান্ধা জেলা ছাত্রদলের সভাপতি খন্দকার জাকারিয়া আলম জীমকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) দিবাগত রাত দুইটার দিকে পৌর শহরের ফকিরপাড়া মোড় এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।
আটকের বিষয়টি জীমের ছোটভাই অ্যাডভোকেট খন্দকার আল আমিন নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, রাত থেকেই পুলিশ বাসার চারদিকে ঘুরছিল। বাস টার্মিনাল থেকে বাসায় ঢোকার সময় ফকির পাড়া মোড় থেকে তাকে পুলিশ আটক করে নিয়ে যায়। এ সময় আমি পুলিশকে জিজ্ঞেস করেছিলাম তারা কোনো উত্তর দেননি।
এ বিষয়ে জানতে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুদ রানার ব্যবহৃত সরকারি মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।
সদর থানা ছাত্রদলের আহ্বায়ক ইমাম হাসান আলাল বলেন, কোটাবিরোধী আন্দোলন দমানের জন্য বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাদের বাড়িতে রাতে হান্না দিচ্ছে পুলিশ।

বন্যায় ১৩৯ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা আশ্রয়কেন্দ্রে যাচ্ছেন বন্যার্তরা

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Sunday, July 7, 2024 | 7/07/2024 11:30:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা :বন্যায় গাইবান্ধার সদর, ফুলছড়ি, সাঘাটা ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ২৯ ইউনিয়নের ৬৭ হাজার ৭২৯টি পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে পাট, ভুট্টা, আউশ ধান ও আমন বীজতলাসহ আড়াই হাজার হেক্টরের অধিক জমির ফসল। পানি ওঠায় ১৩৯টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। 
গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের তথ্যানুযায়ী, রোবার (৭ জুলাই) বিকাল ৩টায় গত ২৪ ঘণ্টায় ব্রহ্মপুত্র নদের পানি ফুলছড়ি উপজেলার তিস্তামুখ পয়েন্টে ১৩ সেন্টিমিটার কমে বিপৎসীমার ৭৩ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এছাড়া ঘাঘট নদীর পানি জেলা শহরের নতুন ব্রিজ পয়েন্টে ১১ সেন্টিমিটার কমে বিপৎসীমার ২৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। করতোয়া নদীর পানি গোবিন্দগঞ্জের কাটাখালী পয়েন্টে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪ সেন্টিমিটার হ্রাস পেয়ে বিপৎসীমার ১৪৯ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তবে আবারও বাড়তে শুরু করেছে তিস্তা নদীর পানি। গত ২৪ ঘণ্টায় ২০ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপৎসীমার ১১ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রভাবিত হচ্ছে। গাইবান্ধার যমুনা ও ব্রহ্মপুত্রের পানি অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পেয়ে ৪ উপজেলার নিম্নাঞ্চল ও নদী তীরবর্তী নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়ে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। পানিবন্দি এসব এলাকার মানুষ গবাদিপশু নিয়ে বিপাকে পড়েছে। প্রকট আকার ধারণ করেছে গোখাদ্যসহ বিশুদ্ধ পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থা। জেলা প্রশাসনের দেওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গাইবান্ধার সদর উপজেলার ৫টি ইউনিয়ন, সুন্দরগঞ্জের ৯টি, সাঘাটার ৮টি ও ফুলছড়ি উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন বন্যায় প্লাবিত হয়েছে। ২৯ ইউনিয়নে পানিবন্দি পরিবারের সংখ্যা ৬৭ হাজার ৭২৯টি। এরমধ্যে গাইবান্ধা সদরে ৩৯ হাজার ৮৮৯টি, সুন্দরগঞ্জে ৫২ হাজার, সাঘাটা ১৫ হাজার ১৫০টি ও ফুলছড়ি ৭৪ হাজার ৯০টি পরিবার পানিবন্দি রয়েছে। স্থানীয়দের দাবি, বাস্তবে পানিবন্দি পরিবারের সংখ্যা আরও বেশি। পানিবন্দি এসব মানুষের জন্য স্থায়ী ও অস্থায়ী মিলে মোট ১৮১টি আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে। এর মধ্যে সাঘাটা উপজেলায় রয়েছে ৩৬টি, সুন্দরগঞ্জে ৪৮টি, ফুলছড়িতে ২৩টি, সদরে ২৪টি, সাদুল্যাপুরে ৩৩টি, পলাশবাড়ীতে ৬টি ও গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় ১১টি আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে। গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. হাফিজুল হক জানান, টানা বৃষ্টি ও উজানের ঢলে জেলায় সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে। ঘাঘট ও ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যার প্রভাবে এ পর্যন্ত ১৩৯টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠদান বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ফলে শিশুদের পড়াশোনা ব্যাহত হচ্ছে। জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা রোকসানা বেগম ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম জানান, বন্যার কারণে মাদ্রাসাসহ ২২টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পাঠদান বন্ধ রাখা হয়েছে। এরমধ্যে ফুলছড়ি উপজেলার একটি পরীক্ষা কেন্দ্র বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। অপরদিকে, জেলায় এ পর্যন্ত ১১৭টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠদান বন্ধ রাখা হয়েছে। এরমধ্যে ১৭টি স্কুলে আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে। গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক কাজী নাহিদ রসুল বলেন, এ পযন্ত জেলার ১৩৯টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তিনি জানান, বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলায় জেলা এবং উপজেলায় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে। ইউনিয়নভিত্তিক বন্যা আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রয়েছে। প্রতিটি উপজেলায় মেডিকেল টিম, কৃষি টিম, স্বেচ্ছাসেবক টিম এবং লাইভস্টোক টিম গঠন করা হয়েছে। এছাড়া একাধিক এনজিও বানবাসী মানুষের সেবায় কাজ করছে।

পলাশবাড়ী পৌরসভার ৬৭ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Tuesday, June 25, 2024 | 6/25/2024 11:59:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : জেলার পলাশবাড়ী পৌরসভার আয়োজনে ২০২৪-২০২৫ অর্থবছরে ৬৭ কোটি ৪৩ লাখ ৯০ হাজার টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। 
২৫ জুন মঙ্গলবার দুপুরে পলাশবাড়ী পৌরসভার অস্থায়ী কার্যালয়ে পৌর মেয়র গোলাম সরোয়ার প্রধান বিপ্লব এ প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষনা করেন। ২০২৪-২৫ অর্থ বছরের বাজেট ঘোষনার আগে পৌরসভার প্রকৌশলী মো. মর্তুজা এলাহী পৌরসভার প্রস্তাবিত বাজেট সমূহের বিস্তারিত উপস্থাপন করেন। এ বাজেটে পলাশবাড়ী পৌরসভাকে খ শ্রেনীতে উন্নত করণ,পৌর ভবন নির্মাণ, বঙ্গবন্ধু স্কয়ার নির্মাণ, পৌরসভার ৩০ কিলোমিটার রাস্তার পাকা করণ, ১০ কিলোমিটার রাস্তা সংস্কার, ১৫ কিলোমিটার ড্রেন নির্মাণ, রাস্তায় ৫ শত সোলার বাতি স্থাপন,পৌর কমিউনিটি সেন্টার নির্মাণ,পাবলিক টয়লেট নির্মাণ,পৌর এলাকায় ডাষ্টবিন নির্মাণ,পৌরসভায় সামাজিক বনায়নের আওতায় বৃক্ষরোপন ও মডেল পৌরসভা প্রতিষ্ঠা করার পরিকল্পনা গৃহিত হয়। বাজেট ঘোষনার এসময় উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বাবু নির্মল মিত্র, পৌরসভার প্যানেল মেয়র - ২ আসাদুজ্জামান শেখ ফরিদ,পৌর প্যানেল মেয়র-৩ মোছা. শাহীনুর বেগম, পৌর কাউন্সিল’র মাহমুদুল হাসান, মতিয়ার রহমান, লিটন মিয়া, রবিউল ইসলাম সুমন, আজাদুল ইসলাম মন্ডল, মোছা. জান্নাত আরা শিরিন, মোছা. সাজেদা বেগম,পলাশবাড়ী প্রেসক্লাবের সভাপতি ফজলুল হক দুদু, রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি আশরাফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ছাড়াও পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষসহ প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

নদীগুলোর পাশে যেসব গ্রাম শহর আছে সেগুলোকে রক্ষা করতে হবে--জাহিদ ফারুক

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Monday, June 3, 2024 | 6/03/2024 11:49:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধাঃ জেলার পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক বলেছেন, ‘বাংলাদেশে ছোট-বড় অসংখ্য নদী আছে। প্রতিরক্ষা বাঁধ তৈরি করে নদীগুলোর পাশে যেসব গ্রাম আছে, শহর আছে সেগুলোকে রক্ষা করতে হবে। তাহলেই শেখ হাসিনার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলা আরও সহজ হবে। ’
রোববার (২ জুন) দুপুরে গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার এরেন্ডাবাড়ী ইউনিয়নের জিগাবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, নদী ভাঙন রোধে বাঁধ নির্মাণের কোনো বিকল্প নেই। কারণ, ভাঙন রোধ করতে না পারলে আমাদের কৃষি উৎপাদন ক্রমশ কমে যাবে। চরের মানুষ ভিটেমাটি হারিয়ে নিঃস্ব হবে। আপনাদের জন্য এখানে দ্রুতই নদী রক্ষা বাঁধ নির্মাণ করা হবে ইনশাআল্লাহ। তিনি আরও বলেন, আমি হেলিকপ্টারে করে পুরো এলাকা পরিদর্শন করেছি। আপনাদের মনের কষ্ট আমি হাড়ে হাড়ে অনুধাবন করি। এখানে নদী রক্ষা বাঁধ নির্মাণ করা খুব প্রয়োজন। আপনাদের দীর্ঘদিনের দাবি পূরণে প্রয়োজনীয় সমীক্ষা কার্যক্রম শেষে শিগগিরই এখানে নদী প্রতিরক্ষা বাঁধ নির্মাণ করা হবে। সভায় বিশেষ অতিথ হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- গাইবান্ধা-৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ হাসান রিপন, কুড়িগ্রাম-৪ আসনের সংসদ সদস্য বিপ্লব হাসান পলাশ, পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. আ. ল. ম. বজলুর রশীদ, জেলা প্রশাসক কাজী নাহিদ রসুল, পুলিশ সুপার কামাল হোসন প্রমুখ।

অধিগ্রহণকৃত জমির মুল্য পরিশোধ না করে স্থাপনা উচ্ছেদ রাস্তার কাজ শুরু

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Monday, May 13, 2024 | 5/13/2024 11:45:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : ঢাকা-রংপুর মহাসড়ক ৪ লেনে উন্নীত করণের লক্ষ্যে জেলার পলাশবাড়ী পৌর শহরের প্রাণকেন্দ্র নুনিয়াগাড়ি মৌজার অধিগ্রহণকৃত জমির ক্ষতিপূরণের টাকা পরিশোধ না করে জোর পূর্বক উচ্ছেদ অভিযান করে রাস্তার কাজ শুরু করায় হতাশা প্রকাশ করছেন ভুক্তভোগীরা। উল্লেখ্য (৩১ মার্চ) পলাশবাড়ী চৌমাথা মোড়ে নুনীয়াগাড়ী মৌজার ক্ষতিগ্রস্ত ভূমির মালিক গন দ্রুত ক্ষতিপূরণ পাওয়ার নিমিত্তে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন। 
মানববন্ধনে ক্ষতিগ্রস্তরা বলেন, যথারীতি নিয়মমাফিক আমাদের জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সংশ্লিষ্ট শাখায় টাকার জন্য ঘুরে কোনো ফল মিলছে না। দেই-দিচ্ছি বলে নানাভাবে হয়রানি করা হচ্ছে। তারা আরও বলেন, অনেক জমি মালিকের সবটুকু জমিসহ স্থাপনা অধিগ্রহণ করা হয়েছে। আজ তাদের মাথা গোঁজার ঠাঁই নেই। তারা আজ মানবেতর জীবন যাপন করছেন। এমতাবস্থায় অধিগ্রহণকৃত জমির মালিকগন ক্ষতিপূরণের টাকা প্রাপ্তির লক্ষ্যে জেলা প্রশাসক সহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেন ভুক্তভোগীরা। অন্যথায় সরকার নির্ধারিত টাকা আদায়ের লক্ষ্যে বৃহত্তর আন্দোলনসহ মহাসড়কে চলমান কাজ বন্ধের হুমকি দেন তারা। মানব বন্ধনের অভিযোগের ভিত্তিতে গনমাধ্যম কর্মীরা জেলা প্রশাসক মহোদয়ের নিকট বিষয়টি দৃষ্টি গোচর করলে দু মাসের মধ্যে সকল সমস্যা সমাধান করবেন বলে জানান কিন্তু প্রায় দু মাস হতে চললেও ক্ষতিপুরণের পাওনার কোন আশানুরূপ অগ্রগতি না হওয়ায় এরিমধ্য আবারো ক্ষতিগ্রস্ত ভুক্তভোগীরা মিশ্র প্রতিক্রিয়া ও হতাশা প্রকাশ করে জেলা প্রশাসক মহোদয় কে বিষয় টি দ্রুত আন্তরিক হস্তক্ষেপ কামনা করেন অন্যথায় পুনরায় মানব বন্ধন সহ কঠোর তম আন্দোলনে যাবেন ক্ষতিগ্রস্ত অধিগ্রহণ কৃত জমির মালিকগন।

বোরোর বাম্পার ফলনেও কৃষকের মুখে হাসি নেই

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : সম্প্রতি গাইবান্ধার নিভৃত অঞ্চলে দেখা গেছে, কৃষকের মাঠে দুলছে পাকা ধান। লক্ষাধিক হেক্টর জমির ধান কাটার উপযুক্ত সময় হলেও পর্যাপ্ত কৃষি শ্রমিক না থাকায় জমির ধান ঘরে ওঠানো নিয়ে আতঙ্কে আছেন কৃষকরা। হঠাৎ শিলাবৃষ্টি কিংবা ঝড় হলে ধানের যে পরিমাণ ক্ষতি হবে তা বলা বাহুল্য। দিগন্তজুড়ে নজর কাড়ছে বোরো ধান। ইতোমধ্যে খেতের ধান পাকতে শুরু করেছে। কেউ কেউ কাটা-মাড়াইও করছেন। এরমধ্যে দেখা দিয়েছে আকাশের বিরূপ আচরণ। কখনও কালো মেঘে ঢাকছে আবার কখনও গুড়িগুড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। এ অবস্থায় পাকা ধান ঘরে তুলতে চরম দুশ্চিন্তায় আছেন অনেকে। এই বুঝি শেষ সময়ে কষ্টের ফসল নষ্ট হয়ে যাবে। অক্লান্ত পরিশ্রম করে সেই ধান ঘরে তুলতে শুরু করেছেন কৃষরা। তবে সঠিক দাম না পাওয়ার আশঙ্কায় হাসি নেই তাদের মুখে।চলতি মৌসুমজুড়েই ছিলো বৈরী আবহাওয়া। প্রথম দিকে বৃষ্টি না হওয়ায় মোটরে পানি তুলে জমি প্রস্তত করেন কৃষকরা। ধান লাগানোর পর নিয়মিত সেচও মোটরের পানিতে দেওয়া লাগে তাদের। এছাড়া তুলনামূলক উচ্চ মূল্যে সার, শ্রমিক, কীটনাশক খরচ করে যখন ধান পাকার সময় আসলো, তখনই অধিকাংশ ক্ষেতে বাদামি গাছ ফড়িংয়ের (কারেন্ট পোকা) আক্রমণ শুরু হয়। এতেও অনেক খরচ করে কীটনাশক ও অন্যান্য পদ্ধতি ব্যবহারে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। উৎপাদন খরচ ও বাজার দরের বিরাট পার্থক্যের কারণে হতাশাগ্রস্ত কৃষকের মুখে এবার হাসি ফোটেনি। অধিকাংশের ধারণা, ধান বিক্রির টাকায় সার-বীজ-কীটনাশকের দোকানের দেনাও শোধ করতে পারবেন না তারা। এভাবে লোকশানের কারণে কৃষি কাজে আগ্রহ হারাচ্ছেন অনেকে। গাইবান্ধা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ জানিয়েছে চলতি মৌসুমে জেলায় বোরো চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে অর্জন হয়েছে ১ লাখ ২৮ হাজার ৩৪০ হেক্টর। এ থেকে প্রায় ৮ লাখ ৬২ হাজার মেট্রিক টন ধান ও ৬ লাখ মেট্রিক টন চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা সম্ভাবনা রয়েছে। মৌসুমের শুরুতে আবহাওয়া কিছুটা খারাপ থাকায় উৎপাদন খরচ বাড়লেও ফলনে খুব বেশি প্রভাব পড়েনি। বৃষ্টিপাত কম হওয়ায় কারেন্ট পোকার আক্রমণ বেশি ছিলো। এতে বেড়েছে কীটনাশক ব্যয়। গত ৭ দিন আগে থেকে এ অঞ্চলে ধান কাটা শুরু হয়েছে। এলাকার সম্পূর্ণ কাটা ঝাড়া শেষ করতে আরও অন্তত ১০-১৫দিন সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন চাষিরা। রবিবার (১২ মে ) বিকেলে সরেজমিনে পলাশবাড়ীর কয়েকটি ইউনিয়ন ঘুরে দেখা যায়, যেসব এলাকার ক্ষেতে কারেন্ট পোকার আক্রমণ হয়নি, সেসব এলাকার চাষিরা ধানের বাম্পার ফলন পেয়েছেন। তবুও উৎপাদন খরচ ও বাজার দরের পার্থক্যের কারণেই হতাশাগ্রস্ত বেশিরভাগ চাষি। তাদের মুখে নতুন ধান ঘরে তোলার আনন্দ আসেনি। তারপরও ধান ঘরে তোলার বিষয়টি মাথায় রেখে সার-কীটনাশক ব্যবসায়ী, সেচ পাম্প ও ট্রাক্টর মালিকরা তাদের বকেয়া আদায়ে হালখাতার তোড়জোড় শুরু করে দিয়েছেন। এই হালখাতা নামটি হতাশাগ্রস্ত কৃষকের কাছে যেন বিষফোঁড়া। অধিকাংশ কৃষকের দাবি, ধানের উৎপাদন ভালো হলেও তাদের খরচের টাকা উঠছে না। উপজেলার মহদীপুর ইউনিয়নের শ্যামপুর গ্রামের কৃষক মজনু, তাজু, এজাদুল,আলম, মইনুল ইসলামসহ বেশ কয়েকজন জানান, জায়গা জমি কম থাকায় তারা অন্যের জমি লিজ নিয়ে ধান চাষ করে থাকেন। ফলনও ভালো হয়েছে। কিন্তু তারপরও খরচের টাকা উঠছে না। তারা খরচের হিসেব দিয়ে বলেন, এ বছর এক বিঘা লিজ নিতে জমির মালিককে দিতে হয়েছে সর্বনিম্ন ৮ হাজার টাকা। প্রথমেই এক বিঘা জমির জন্য বীজতলা তৈরি করে চারা উৎপাদন করতে খরচ হয় দুই হাজার টাকা। তারপর জমি চাষ করতে লাগে ১ হাজার ৫০০ টাকা। জমিতে চারা রোপণ করতে খরচ হয়েছে দুই হাজার টাকা, আগাছা অপসারণ বাবদ ব্যয় হয়েছে প্রায় আড়াই হাজার টাকা, তিনবারে ডিএপি, টিএসপি, এমওপি ও ইউরিয়া সার মিলে কমপক্ষে দুই হাজার টাকার রাসায়নিক সার লাগে। আগাছানাশক, পোকা দমন ও পচন রোধে অন্তত দেড় হাজার টাকার কীটনাশক স্প্রে করতে হয়।সর্বশেষ এক বিঘা জমির ধান কাটতে, বহন করতে ও মাড়াই করে গোলাজাত করতে ছয় হাজার টাকা খরচ হয়। এছাড়া বর্ষা মৌসুমে সময় মতো বৃষ্টিপাত না হওয়ায় সেচ বাবদ পাম্পের মালিককে এক হাজার ২০০ টাকা দিতে হবে। কোনো কোনো গ্রামে সেচ বাবদ পাম্প মালিকদের তিন-চার হাজার টাকা পর্যন্ত দিতে হয়।তারা বলেন, সবমিলিয়ে আমরা যদি নিজেদের শ্রমের মজুরির টাকা বাদও দেই, তারপরও এক বিঘা জমির ধান উৎপাদন করতে কমপক্ষে বিশ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। একবিঘা জমিতে গড়ে বিশ মণ ধানও উৎপাদন হয় না। বর্তমান বাজারে এক হাজার ৫০ থেকে এক হাজার ১০০ টাকা মণ হাতে ধান বিক্রি হচ্ছে। তাহলে বাম্পার ফলনে কৃষকের লাভ কী হলো? পলাশবাড়ী কৃষিবিদ কৃষি কর্মকর্তা ফাতেমা কাউসার মিশু বলেন, এ বছর ধানের ফলন ভালো হয়েছে। আমরা প্রতিটি ইউনিয়ানে আমন চাষিদের প্রণোদনা হিসেবে বীজ ও সার প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া কৃষকদের বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে কৃষি প্রণোদনা দেওয়া হয়েছে। উপজেলা বোরর বাম্পার ফলন হওয়ায় উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করছি।

পলাশবাড়ীতে বিএনপির সাংগঠনিক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Friday, May 10, 2024 | 5/10/2024 11:48:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা খালেদা জীয়ার মুক্তি ও ১ দফা দাবী আদায়, ডামি উপজেলা নির্বাচনসহ সকল স্খানীয় নির্বাচন বর্জন কার্যক্রম লক্ষ্যে পলাশবাড়ীতে সাংগঠনিক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
১০ মে শুক্রবার বিকালে পলাশবাড়ী উপজেলা ও পৌর বিএনপি,র আয়োজনে বরিশাল ইউনিয়ানের জুনদাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে পলাশবাড়ী উপজেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুস সামাদ মন্ডলের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন,গাইবান্ধা জেলা বিএনপি,র সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ মইনুল হাসান সাদিক,প্রধান বক্তা হিসাবে বক্তব্য রাখেন, মাহামুদুন নবী টিটুল, বিশেষ অতিথি বক্তব্য রাখেন যথা ক্রমে পলাশবাড়ী পৌর বিএনপির সভাপতি আবুল কালাম আজাদ,গাইবান্ধা জেলা বিএনপি,র সহ সভাপতি শহীদুজ্জামান শহীদ,সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডঃ মঞ্জুর শোর্শেদ বাবু,আমন্ত্রিত অতিথির বক্তব্য রাখেন,গাইবান্ধা জেলা জিয়া পরিষদ এর আহবায়ক আব্দুল আউয়াল আরজু, অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন,গাইবান্ধা জেলা বিএনপি,র শিল্প ও বানিজ্যিক বিষয় সম্পাদক শহিদুল ইসলাম রাজা,পলাশবাড়ী উপজেলা বিএনপি,র সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রউফ প্রধান আঞ্জু,পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম,বিএনপি নেতা মুকুল আহম্মেদ,মোস্তাক আহম্মেদ, ছকু,সেলিম,লিখন সরকার,নুরনবী মিধা,ফারুক,তুহিন,শিমুল,উপজেলা যুবদলের সদস্য সচিব রাজু আহম্মেদ,সিঃ যুগ্ম আহবায়ক সাগর সরকার মিনু,উপজেলা শ্রমিক দলের যুগ্ম আহবায়ক শাহ জালাল,পৌর যুবদলের আহবায়ক লথিত,সদস্য সচিব হেমাইদুল,সিঃ যুগ্ম আহবায়ক,রুহুল আমিন,যুগ্ম আহবায়ক সুমন,যুব নেতা আপেল, জিয়া আসাদুল,উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি আরিয়েন সরকার আরিফ প্রমুখ।

নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু করার লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় সব ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হবে- ইসি রাশেদা

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Sunday, April 28, 2024 | 4/28/2024 10:57:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু করার লক্ষ্যে প্রার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন নির্বাচন কমিশনার (ইসি) রাশেদা সুলতানা। রোববার (২৮ এপ্রিল) সকালে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ সভা হয়। গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক কাজী নাহিদ রসুল এর সভায় সভাপতিত্ব প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন নির্বাচন কমিশনার রাশেদা সুলতানা। অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রংপুর বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার অতিরিক্ত সচিব মো. জাকির হোসেন, রংপুর বিভাগের পুলিশ প্রধান উপ মহাপুলিশ পরিদর্শক মো. আব্দুল বাতেন, উপজেলা নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) দেওয়ান মওদুদ আহমেদসহ জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা এবং পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তারা। সভায় প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠেয় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে গাইবান্ধা জেলার সাতটি উপজেলার চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) ও ভাইস চেয়ারম্যান (মহিলা) পদের প্রার্থীরা অংশ নেন। ইসি রাশেদা সুলতানা বলেন, নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু করার লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় সব ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হবে। প্রার্থীদের নির্বাচন বিধিমালা মেনে চলার পাশাপাশি ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতি নিশ্চিত করার আহ্বান জানান তিনি।

গোবিন্দগঞ্জে বন্ধুদের নিয়ে প্রেমিকাকে সংঘবদ্ধ ভাবে ধর্ষণ আটক ২

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Saturday, April 27, 2024 | 4/27/2024 11:22:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় প্রেমিকাকে (১৪) বন্ধুরা মিলে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। অভিযুক্তরা হলেন উপজেলার শালমারা গ্রামের জাহিদুল ইসলামের ছেলে মনিরুল ইসলাম । আর ধর্ষণে অংশ নেওয়া তার দুই বন্ধু হলো- একই গ্রামের মজনু শেখের ছেলে অসীম শেখ (২০) ও শরিফুল শেখের ছেলে শহীদ শেখ (২২)। ধর্ষকদের মধ্যে শহীদ পলাতক রয়েছে। 
শনিবার (২৭ জুলাই) গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামসুল আলম শাহ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। কিশোরীর সঙ্গে আরও কয়েকজনের প্রেমের সম্পর্ক থাকায় ক্ষুব্ধ হয়ে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে বলে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে প্রেমিক মনিরুল ইসলাম (২০)। প্রেমিক মনিরুল জবানবন্দিতে জানায়, ১৪ বছরের এক কিশোরীর সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। প্রেম চলাকালীন সে জানতে পারে ওই কিশোরীর আরো কয়েকজনের সম্পর্ক রয়েছে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে তার সহযোগী বন্ধু অসীম ও শহীদকে সাথে নিয়ে গত ৪ এপ্রিল কিশোরীকে কৌশলে তার বাড়ির পিছনে ডেকে এনে দলবদ্ধ ধর্ষণ করে। এ ঘটনা উভয়পক্ষই চাপা দিলেও পরবর্তীতে কিশোরীটি অসুস্থ হওয়ায় সংঘবদ্ধ ধর্ষণের বিষয়টি প্রকাশ পায়। পরে কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে গত ১৯ এপ্রিল ওই তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত শুক্রবার (২৬ এপ্রিল) গোবিন্দগঞ্জ চৌকি আদালতে মনিরুল ও অসীম ঘটনার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে। গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামসুল আলম শাহ বলেন, মামলার অভিযুক্ত তিনজনের মধ্যে মনিরুল ও অসীমকে জবানবন্দি শেষে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গোবিন্দগঞ্জে ট্রাকের ধাক্কায় প্রতিবন্ধী নারী নিহত

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Wednesday, April 10, 2024 | 4/10/2024 03:40:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় একটি ট্রাকের ধাক্কায় এক প্রতিবন্ধী নারী নিহত হয়েছেন।
নিহত উপজেলার উত্তর ছয়ঘরিয়া গ্রামের অপু মিয়ার মেয়ে রওশন আরা বেগম (২৫)। মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে গোবিন্দগঞ্জ শহরের মহাসড়কে জাহানারা মার্কেট সংলগ্ন স্থানে এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয়রা জানায়, ওই সময় রওশন আরা বেগম সড়ক পার হচ্ছিলেন। এরই মধ্যে একটি ট্রাক তাকে ধাক্কায় দিলে রাস্তায় ছিটকে পড়ে ঘটনা স্থলে তার মৃত্যু হয়।
গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে ঘটনা স্থল থেকে ও নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। দুর্ঘটনার পর ট্রাকটি রেখে চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়।

বিরামপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় একজন নিহত

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Monday, April 1, 2024 | 4/01/2024 11:33:00 PM

ইব্রাহীম মিঞা, বিরামপুর(দিনাজপুর)প্রতিনিধিঃদিনাজপুর গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়কের বিরামপুর সরকার ফিলিং স্টেশন এর উত্তর পাশে হিমেল নার্সারীর সামনে ১০ চাকা বিশিষ্ট একটি পণ্যবাহী ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে বাইসাইকেল আরোহী বিপুল (১৬) নামের একজন শ্রমিক নিহত হয়েছে। 
রবিবার (৩১ মার্চ) আনুমানিক ১২ ঘটিকায় বিরামপুর পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের মহাসড়কে পণ্যবাহী ১০ চাকা বিশিষ্ট একটি ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে বাইসাইকেল আরোহী বিপুল ঘটনাস্থলে মারা যায়।মৃত বিপুল বিরামপুর পৌরসভার হঠাৎ পাড়া গ্রামের আঃ হালিমের একমাত্র ছেলে।স্থানীয়রা জানান,সে বিরামপুর পৌরশহরের একটি বেকারিতে কাজ করে। বিরামপুর সরকার ফিলিং স্টেশনে তেল নেওয়ার লক্ষ্যে বাইসাইকেল নিয়ে রাস্তা পার হতে গিয়ে দিনাজপুরগামী ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে মারা যায়।এদূর্ঘটনার খবর পেয়ে বিরামপুর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে। মহাসড়কে যানজট সৃষ্টি হলে বিরামপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মহাসড়কে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক করে।

গোবিন্দগঞ্জে ৮৮ কেজি গাঁজাসহ আটক ২

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Sunday, March 31, 2024 | 3/31/2024 12:11:00 AM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : জেলার গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় একটি পিকআপ গাড়িতে ৮৮ কেজি গাঁজা জব্দসহ ২ জন কে আটক করেছে র‌্যাব। আটককৃত হলেন,বিপ্লব কুমার কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ি উপজেলার নাইডাঙ্গা গ্রামের বিশ্বনাথ কুমারের পুত্র চালক বিপ্লব কুমার (৩০) ও হেলপার আসলাম হোসেন সাদ্দামকে (৩০) কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ি উপজেলার নাইডাঙ্গা গ্রামের বিশ্বনাথ কুমারের ছেলে ও আসলাম হোসেন সাদ্দাম । 
শনিবার (৩০ মার্চ) বিকেলে র‌্যাব-১৩ গাইবান্ধা ক্যাম্পের স্কোয়াড্রন লিডার মাহমুদ বশির আহমেদ স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়টি জানানো হয়। র‌্যাব-এর বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, শনিবার (৩০ মার্চ) সকালের দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় গোবিন্দগঞ্জের ফাসিতলা এলাকায় সন্দেহভাজন একটি পিকআপ গাড়ি তল্লাশি করা হয়। এতে থাকা একটি তেলের ড্রামের ভেতর থেকে ৮৮ কেজি গাঁজা জব্দসহ ওই মাদক কারবারিদের গ্রেফতার করা হয়েছে। র‌্যাব-১৩ গাইবান্ধা ক্যাম্পের স্কোয়াড্রন লিডার মাহমুদ বশির আহমেদ বলেন, এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্যান্যদের বিরুদ্ধে গোপন অনুসন্ধান চলছে। গ্রেফতারকৃতদের গোবিন্দগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয়।

গোবিন্দগঞ্জে নিখোঁজ শিশুর মরদেহ উদ্ধার

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় এক নিখোঁজ শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। 
নিহত অভিজিৎ চন্দ্র জিৎ বগুলাগাড়ী গ্রামের রনজিৎ চন্দ্রের ছেলে ও স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র। শনিবার (৩০ মার্চ) দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার দরবস্ত ইউনিয়নের বগুলাগাড়ী (নামাপাড়া) এলাকার করতোয়া নদীর চরের একটি ভুট্টা খেত থেকে ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। দরবস্ত ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৬ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য সজীব আহমেদ খান বলেন, শুক্রবার (২৯ মার্চ) সন্ধ্যার দিকে হঠাৎ বাড়ি থেকে অভিজিৎ চন্দ্র জিৎ নিখোঁজ হয়। এরপর থেকে পরিবারের লোকজন সম্ভাব্য বিভিন্ন স্থানে খোজাখুজি করতে থাকে। এরই মধ্যে শনিবার দুপুরের দিকে ওই নদী চরের ভুট্টা খেতে অভিজিৎ চন্দ্রের মরদেহ দেখতে পায় স্থানীয়রা। পরে খবর পেয়ে থানা পুলিশ শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করেছে। গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামসুল আলম শাহ জানান, এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সুলভ মুল্যে ডিম ও দুধ বিক্রির উদ্বোধন

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Tuesday, March 26, 2024 | 3/26/2024 11:45:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস ও পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে খোলা বাজারে ভ্রাম্যমান ভাবে সুলভ মুল্যে প্রানিজ আমিষ " দুধ ও ডিম " বিক্রির কার্যক্রমের ও খামারিদের মাঝে মিল্কিং মেশিন বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেছেন স্থানীয় জাতীয় সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড.উম্মে কুলসুম স্মৃতি এমপি। 
ডিমের ডজন ১ শত ও দুধ কেজি ৫০ টাকা দরে উপজেলা প্রানী সম্পদ ও ভোটেরিনারি হাসপাতালে এর উদ্যোগে ও উপজেলার ডি এন আর ডেইরী ফার্ম,তামিম ডেইরী ফার্ম,মের্সাস রিপন ট্রেডার্স এর সহযোগীতায় খোলা বাজারে সুলভ মুল্যে ডিম ও দুধ বিক্রির কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ২৬ মার্চ মঙ্গলবার সকালে উপজেলা প্রানী সম্পদ অফিসে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুল হাসানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ হারুন আর রশিদ। এতে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব একেএম মোকছেদ চৌধুরী বিদ্যুৎ,উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এসএম রফিকুল ইসলাম রিপন,আনোয়ারা বেগম,সহকারি কমিশনার মাহমাদুল হাসান,অফিসার ইনচার্জ আরজু মোঃ সাজ্জাদ হোসেন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ডেইরী এ্যাসোসিয়েশন এর সভাপতি আব্দুল মতিন সরকার, পলাশবাড়ী প্রেসক্লাবে সভাপতি ফজলুল হক দুদু, রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি আশরাফুল ইসলাম, খামারী সৈয়দ দিন মোহাম্মাদ ডন, শাহারুল ইসলাম, মমিনুল ইসলাম রিপনসহ অন্যান্য খামারীরা৷ এরআগে প্রানী সম্পদ ও ডেইরী উন্নয়ন প্রকল্পের সহযোগীতায় প্রডিউসার গ্রুপ (পিজি) খামারিদের মাঝে মিল্কিং মেশিন বিতরণ করা হয়৷ অপরদিকে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে মহান স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে দিনব্যাপী নানা কর্মসূচী পালনের মধ্য দিয়ে দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে।

পলাশবাড়ীতে গমের বাম্পার ফলন কৃষকের মুখে হাসি

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Sunday, March 24, 2024 | 3/24/2024 11:53:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা :গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় এ বছর উচ্চ ফলনশীল গম চাষ করা হচ্ছে। আবহাওয়া অনুকূল থাকায় গমের বাম্পার ফলন পাওয়ার আশা করছেন কৃষকেরা। 
উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে এ বছর উপজেলায় ৪শত হেক্টর জমিতে গমের চাষ হয়েছে। এর মধ্যে বারি গম-৩০,৩২ ও ৩৩ নামের উচ্চফলনশীল জাতের গমের পাশাপাশি অন্যান্য উচ্চফলনশীল জাতের গম চাষ হয়েছে। পলাশবাড়ী কৃষি উপ-সহকারি অফিসার মিজানুর বলেন, কৃষি বিভাগের পরামর্শ অনুযায়ী কৃষকেরা চাষাবাদ করায় গমের আবাদ ভালো হয়েছে। মহদীপুর ইউনিয়নের শ্যামপুর গ্রামের কৃষক মমিনুর ইসলাম জানান, তিনি এ বছর ৪৬ শতক জমিতে কৃষি বিভাগের সহায়তায় উচ্চ ফলনশীল বারি-৩০ জাতের গমের চাষ করেছেন। কৃষি বিভাগের পরামর্শে ক্ষেত পরিচর্যা করায় গম ভালো হয়েছে। চাষকৃত জমি থেকে প্রায় ১৮ মণ গম পাবেন বলে আশা করছেন তিনি। একই ইউনিয়নের কেত্তারপাড়া গ্রামের অপর কৃষক মজিবর রহমান জানান ২৮ শতক জমিতে উচ্চফলনশীল জাতের গমের চাষ করেছেন। তারাও ভালো ফলন পাবেন বলে আশা করছেন। 
পলাশবাড়ী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ফাতেমা কাউসার মিশু বলেন,এ উপজেলায় উচ্চ ফলনশীল গম চাষে কৃষকদের আগ্রহ বেড়েছে। আবহওয়া অনুকুলে থাকায় এ বছর পলাশবাড়ীতে গম ভালো হয়েছে। রোগবালাই তেমন হয়নি। মাঠে ফসলের অবস্থাও ভালো। চলতি মৌসুমে গমের বাম্পার ফলন হবে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

পলাশবাড়ীতে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা :গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার নদ নদী গুলোতে নব্যতা , নদী ভাঙ্গন, বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ গুলো প্রাকৃতিক ও কৃত্রিম সংকটে সংস্কার অভাবে ব্যাপক ভাবে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। 
অপরদিকে উপজেলার বড় শিমুলতলা, দিঘকান্দি, নেকটগাড়ী, চেরেঙ্গা, শিশুদহ এলাকাসহ একাধিক স্থানে নদী ভাঙ্গন ব্যাপক ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে বসতবাড়ী ও আবাদী জমি হারিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে দুই শতাধিক পরিবার। উপজেলার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া করতোয়া নদীর পারের বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ গুলো পুরোপুরি অকেজো হয়েছে পড়েছে। যে গুলো দ্রুত সংস্কার করার প্রয়োজনীয়তা দেখা দিয়েছে ৷ উপজেলার মোট আয়তন- ১৮৫.৩৩ বর্গ কিলোমিটার এ উপজেলায় ২ টি নদ নদী রয়েছে আখিরা নদী স্থানীয় ভাবে যার নাম দুটিতে পরিচিত এর একস্থানে নাম মর্চ নদী অন্যস্থানে নামটি হলো নলেয়া নদী। এ নদটির নব্যতার কারণে নিজের গতি হারিয়ে ফেলেছে, নদ হতে আবাদী জমি গ্রাস করে বিলে রুপ নিয়েছে অপরদিকে এ অঞ্চলের বেশীর ভাগ আবাদী জমি গুলো সেচ নির্ভর হয়ে পড়েছে। পলাশবাড়ী উপজেলার এ নদটি দ্রুত খনন করে নব্যতা দুর করণে প্রয়োজনী ব্যবস্থা গ্রহন করা প্রয়োজন। এছাড়াও করতোয়া নদী উপজেলার পশ্চিম সীমান্ত ১ নং কিশোরগাড়ী ও ২ নং হোসেনপুর ইউনিয়নের উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। এ দুইটি ইউনিয়নের বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ গুলোতে ছোট বড় ভাঙ্গন,নদী ও নদীপারের জমি হতে মাটি পরিবহনের কাজে নিয়োজিত ট্রাক্টর, ট্রলি,ভেকু ও জ্যাম ট্রাক চলাচলে ব্যাপক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ৷ এসব বাঁধ দ্রুত সময়ে সংস্কার করা না হলে বর্ষাকালে বন্যায় ফসলি জমি ও বসতবাড়ীসহ উপজেলার পূর্ব ও পশ্চিম অঞ্চলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার আশংঙ্কা রয়েছে। 
এ বিষয়ে গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ হাফিজুল হক ব্যস্ত থাকায় তার কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে এ বিষয়ে রংপুর বিভাগের বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডে প্রধান প্রকৌশলী (পুর) মোঃ মাহবুবর রহমান জানান,করতোয়া নদী ও আখিড়া নদ নিয়ে স্ট্যাডি চলছে, পরীক্ষা নিরিক্ষা শেষে প্রকল্প গ্রহন করা হবে। এরপর বরাদ্দ পেলে দ্রুত সংস্কার কাজ সম্পন্ন করা সম্ভব হবে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কামরুল হাসান জানান, উপজেলার করতোয়া নদীর ভাঙ্গন ,নদ গুলোর নব্যতা রোধে খনন ও বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ সংস্কার বিষয়ে জেলা সমন্বয় মিটিং এ উত্থাপন করা হয়। সেখানে পানি উন্নয়ন বোর্ডের পক্ষ হতে দ্রুত নদী ভাঙ্গন রোধ ও বাঁধ সংস্কার করার আশ্বাস দিয়েছেন । উপজেলার চেরেঙ্গা এলাকায় বাঁধ সংস্কার কাজ শুরু করা হয়েছে। এবং বর্ষার আগেই উপজেলার ক্ষতিগ্রস্ত বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ এর বাকি অংশে দ্রুত এ সংস্কার কাজ করা প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি। উক্ত নদ নদী গুলো দ্রুত খনন ও সংস্কারের জন্য সংশ্লিষ্টদের নজরে আনতে তিনি স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীদের সার্বিক সহযোগীতা কামনা করেন। পলাশবাড়ী উপজেলার নদ ও নদী পারের স্থানীয় ভোক্তভোগী জনসাধারণ ,উপজেলার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া নদ ও নদী নব্যতা ও ভাঙ্গন রোধ এবং বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ সংস্কারের জন্য স্থানীয় জেলা প্রশাসনের পাশাপাশি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা,নৌ ও পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি ,স্থানীয় জাতীয় সংসদ সদস্য এ্যাড.উম্মে কুলসুম স্মৃতি এমপি, রংপুর বিভাগীয় কমিশনার হাবিবুর রহমান,পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালকসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণের ও স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীদের প্রয়োজনীয় হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

সুন্দরগঞ্জে ট্রাকচাপায় এক বৃদ্ধ নিহত

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Thursday, March 21, 2024 | 3/21/2024 08:41:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবানধা : জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় ট্রাকচাপায় এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। নিহত হলেন শোভাগঞ্জের উত্তর মরুয়াদহ গ্রামের মৃত জালাল হোসেন জাল্লাদুর ছেলে কবির হোসেন (৭১)।
বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) সকালে উপজেলার ছাপরহাটি ইউনিয়নের বালাছিড়া-সোভাগঞ্জ সড়কের বাদশার রাইচ মিলের পাশে ছোটব্রিজ সংলগ্ন স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
ছাপরহাটি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৩ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য আনছার আলী স্থানীয়দের বরাত দিয়ে বলেন, কবির হোসেন দীর্ঘদিন ধরে শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে ওইস্থানে পৌঁছালে অপর একটি ট্রাক তাকে চাপায় দেয়।
এসময় ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়।
এ বিষয়ে সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুব আলম বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় কবির হোসেন নামের এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন

এক নলা ওয়ান শুটারগান দুই রাইন্ড গুলিসহ আটক - ৩

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Friday, March 15, 2024 | 3/15/2024 11:24:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : জেলার সদরে দেশীয় তৈরি এক নলা ওয়ান শুটারগান ও দুই রাউন্ড গুলিসহ তিনজনকে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। 
আটককৃতরা হলেন,গাইবান্ধা সদর উপজেলার উত্তর ঘাগোয়া সরকারপাড়া গ্রামের মৃত নুরনবীর পুত্র আসাদুজ্জামান হিরু (৫৫), দারিয়াপুর গ্রামের মৃত আসমত ব্যাপারীর পুত্র মোজাম্মেল (৫২) ও উত্তর ঘাগোয়া সরকারপাড়া গ্রামের মৃত মৃত কছিমুদ্দিনের পুত্র খোকা মিয়া (৬০)। 
শুক্রবার (১৫ মার্চ) দুপুরে গাইবান্ধা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পুলিশ সুপার (এসপি) মো. কামাল হোসেন পিপিএম। সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) বিকেলে গাইবান্ধা সদর উপজেলার ঘাগোয়া ইউনিয়নের ঘাগোয়া সরকারপাড়া গ্রামে অভিযান পরিচালনা করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এসময় একই গ্রামের আব্দুল জব্বারের পুত্র জাকির হোসেন জাফরুলের নির্মানাধীন ভবনের মেঝের বালুর নিচে থেকে একটি প্লাস্টিকের বয়ামের মধ্যে রক্ষিত দেশীয় এক নলা ওয়ান শুটারগান ও দুই রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। সেইসঙ্গে তিনজনকে আটক করা হয়। পুলিশ সুপার বলেন, আসামিদের বিরুদ্ধে গাইবান্ধা সদর থানায় মামলা হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) মো. ইবনে মিজান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) মো. ইব্রাহিম হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বি সার্কেল) আব্দুল্লাহ আল মামুন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এ-সার্কেল) ধ্রুব জ্যোতির্ময় গোপ (বিপিএম), জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোখলেছুর রহমান সরকার, পরিদর্শক বদরুজ্জামানসহ জেলা পুলিশের বিভিন্ন পদমর্যাদার কর্মকর্তারা।

পলাশবাড়ীতে এসটারিক্স জাতের আলু চাষে বেলালের সাফাল্য

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Tuesday, March 12, 2024 | 3/12/2024 10:49:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা : জেলার পলাশবাড়ীর বেলাল হোসেন ছিলেন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা অবসরে এসে সে নিজেই সেজেছেন কৃষক। প্রথমবার দুই একর জমিতে বারি-২৫ (এসটারিক্স) জাতের আলু চাষে তাক লাগিয়েছেন এলাকার কৃষকদের। 
এই জমিতে ৫০০ মণের বেশি আলু ফলিয়ে ৩ লক্ষাধিক টাকা লাভ থাকছে এই কৃষকের। বেলাল হোসেন গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার বেতকাপা ইউনিয়নের মুরারীপুর গ্রামের মৃত ইয়াকুব উদ্দিনের ছেলে।খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কৃষি বিভাগে বেলাল হোসেন চাকরি জীবনে একাধিকবার বিভাগীয় সম্মাননা পেয়েছেন। কর্ম এলাকার কৃষকদের পরামর্শ দিয়ে অধিক ফলন পেয়ে দেওয়ায় এই সম্মাননা পান তিনি। আর এখান থেকে স্বপ্ন বুনছিলেন নিজের জমিতে উন্নত জাতের ফসল নিয়ে এলাকার কৃষকদের উৎসাহিত করবেন। ঠিক যেমন স্বপ্ন তেমন কাজ। ধানের রাজ্যে আলু উৎপাদনে এলাকাজুড়ে সাড়া ফেলছেন বেলাল হোসেন। এরই মধ্যে তার আবাদ করা আলু দেখতে আসছেন শত শত কৃষক। আগামী বছরে তারাও আলু চাষবাদের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন বলে জানিয়েছেন একাধিক কৃষক।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কৃষক বেলাল হোসেন দুই একর জমিতে বারি-২৫ (এসটারিক্স) জাতের আলু আবাদ করেছেন। অধিক পরিমাণ ফলন হয়। আলু সংগ্রহের সময় উৎসুক মানুষের ভিড়ও লক্ষ্যণীয়। বিঘাপ্রতি আলু উৎপাদন হয়েছে ৯০ মণ। এতে সার-শ্রমিকসহ অন্যান্য খরচ প্রায় ২০ থেকে ২২ হাজার টাকা। বর্তমান বাজার দাম অনুয়ায়ী ৪ লক্ষাধিক টাকার আলু বিক্রির সম্ভাবনা রয়েছে। এ বছর আবহাওয়া অনুক’লে থাকায় প্রত্যেকটি আলুর ওজন প্রায় ২০০ থেকে ৩০০ গ্রাম হয়েছে। এটি বাম্পার ফলন বলে এই কৃষকের দাবি। স্থানীয় কৃষক আলাল উদ্দিন বলেন, আমাদের ইউনিয়নে কেউই আলু আবাদ করেন না। ধানসহ অন্যান্য ফসল উৎপাদন করেন। এ বছর বেলাল হোসেনের আলুর আবাদ দেখে অবাক হয়েছি। এতো বড় বড় আকারের আলু আগে কখনো দেখিনি। ইনশাআল্লাহ আগামী বছর থেকে আমিও এই জাতের আলু চাষ করবো। কৃষক বেলাল হোসেন জানান, নিজে অর্থনৈতিকভাবে চাঙ্গা হওয়ার পাশাপাশি এলাকার কৃষকদের উৎসাহিত করার জন্য এসটারিক্স জাতের আলু আবাদ করেছেন। অধিক ফলনও পেয়েছেন। স্বল্প খরচে এই আবাদ কেউ করলে অনায়াসে লাভবান হবেন। তিনি আরও বলেন, আমার দুই একর জমির উৎপাদিত আলু কোল্ড স্টোরে রাখা হচ্ছে। আগামী রবি মৌসুমে বীজ হিসেবে কৃষকদের মাঝে স্বল্পমূল্যে বিক্রি করা হবে। যাতে করে বেতকাপা এলাকাটি আলুর রাজ্যে পরিণত হয়।পলাশবাড়ী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ফাতেমা কাওয়াসার মিশু বলেন, বারি-২৫ জাতের আলু আবাদে অধিক ফলন পাওয়া সম্ভব। বাজারে চাহিদাও ভালো রয়েছে। যা কৃষক বেলাল হোসেন আমাদের উদাহরণ।

সাদুল্লাপুরে ইউপি নির্বাচনে ৪প্রার্থী জামানত হারিয়েছেন

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : Sunday, March 10, 2024 | 3/10/2024 11:04:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল, গাইবান্ধা : জেলার সাদুল্লাপুরের ধাপেরহাট ইউপির চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ নির্বাচনে শহিদুল ইসলাম শিপন চশমা প্রতীকে সাত হাজার ৫২৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। 
এ এলাকায় আরও আট প্রার্থী ভোটে অংশগ্রহণ করেন। এর মধ্যে চারজন প্রার্থী মাত্র তিনটি থেকে ৩০টি ভোট পেয়ে জামানত হারিয়েছেন। শনিবার (৯ মার্চ) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ধাপেরহাট ইউনিয়নের ১২ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এ নির্বাচনে যারা মাত্র তিনটি থেকে ৩০টি ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন তারা হলেন - ঢোল প্রতীক প্রার্থী জাহিদ হাসান সেলিম। তিনি পেয়েছেন তিন ভোট। রজনীগন্ধা প্রতীকে শামীমা আখতার ছনিয়া পান পাঁচ ভোট। অটোরিকশা প্রতীকে সজল মিয়া পান ২০ ভোট। অপরদিকে টেবিল ফ্যান প্রতীকে নবাকুল ইসলাম ৩০ ভোট পেয়ে জামানত হারিয়েছেন। 
 স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই নির্বাচনের বিজয়ী প্রার্থী শহিদুল ইসলাম শিপনের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছিলেন তারই স্ত্রী শামীমা আখতার ছনিয়া এবং সহোদর ভাই জাহিদ হাসান সেলিম। এছাড়া প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী নজরুল ইসলামের বিপরীতে প্রার্থী হয়েছিলেন তারই ভাতিজা সজল মিয়া। সাদুল্লাপুর উপজেলা নির্বাচন ও রিটানিং কর্মকর্তা আতাউল হক বলেন, ধাপেরহাট ইউপির চেয়ারম্যান পদে হওয়া উপনির্বাচনে অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এ ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ২৫ হাজার ৪ হাজার।