Friday, December 2, 2022









 
 
 
 
 ॥ সেলিনা জাহান প্রিয়া ॥ 
জীবনের উপন্যাসে আমি যে ক্ষয়ে ক্ষয়ে যাই--
তোমাকে খুঁজতে খুঁজতে লিখি আবির আল্পনায়
একটু একটু করে,তোমাকে উপন্যাস করে তুলি ।
- বলেছিলে-- মেহেদী রাঙ্গা হাত ধরে জোছনার প্রহর
 ভালোবাসা কেবলেই প্রতিশ্রুতি হতে পাড়ে না !
বুকে মধ্যে হাত রেখে বলেছিলে আমি বিশ্বাস ।
- বলেছিলে-- একটা গোলাপের কলব দিয়ে , রোপণ কর ,
 দেখবে আমার ভালবাসা গোলাপের গন্ধ বিলাবে
প্রত্যয় ভর মন নিয়ে আমি আজো জল দিয়ে যাই ।
- ফুল নিতে আসবে তুমি তাই আমি রোজ অপেক্ষা করি
ফুলে ভরা, প্রেম-বাগানের সব ফুল তোমার জন্য
এখন সেই ফুলের পাপড়ি ঝড়ে যায় অবেলায় ।
- বলেছিলে-- ডাকঘরের রাস্তাটা যেন চিনে রাখি
 গ্রামের ছায়া রাস্ত আমাকে দেখে রোজ কষ্ট পায়
খুব দৃঢ় মনে আমি চিঠির আশায় ডাক ঘরে যাই।
- আমি খুঁজি ; কিন্তু তুমি নেই তোমার বিশ্বাসে !
পাহাড়ে নেই ,নদীতে নেই,বাগানে নেই কোথাও নেই
এই না থাকাটা, এখন বিশ্বাসের বিশ্বাস !!
- উপন্যাস আমি যে লিখে যাই , তোমার অনুভবে
তোমাকে খুঁজতে খুঁজতে উপন্যাস সমাপ্ত হয়
অমীমাংসিত কিছু প্রশ্ন থেক যায় হাঁয় তবু
 - আমার ভালোবাসা অপেক্ষার চাদরে উমতুলে কুয়াশায়
আমার বিশ্বাস ; আমার স্বপ্ন তোমার কাছে আমানত
আমি যে ক্ষয়ে ক্ষয়ে যাই সেই খেয়ানতের ভয়ে ।
- বলেছিলে তুমি - হারিয়েই বেঁচে থাকবে সোনার মহলে
আমি তো প্রতিদিন পুড়তে পুড়তে এখন সেই মহল
স্বপ্ন নদীর বাঁকে, আশা নামের বাঁধানো ঘাট বসা ।

0 comments:

Post a Comment