Home » , , » বন্ধকৃত চিলাহাটি-হলদিবাড়ি গেট খুলেনী

বন্ধকৃত চিলাহাটি-হলদিবাড়ি গেট খুলেনী

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 18 July, 2021 | 1:10:00 PM


জুয়েল বসুনীয়া,চিলাহাটি ওয়েব : ১৯ দিন লক ডাউনের পর সকল রুটের রেলগাড়ী চলাচল করলেও চিলাহাটি হলদিবাড়ি করোনা কালিন বন্ধকৃত রেলগেটের তালা খুলেনী। ৫৬ বছর পর নব্য চালুকৃত রেলপথটি করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ রুপ নিলে সীমান্তের রেল লাইনের গেট বন্ধ করে। চিলাহাটি-হলদিবাড়ি হবে বাংলাদেশ ও ভারতের সবচেয়ে লাভজনক রেলপথ। উভয় দেশের রেল লাইন সংযোগের পর এই রেলপথ দিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে মালবাহী ও যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচলের শুভ উদ্ভোধন করেন দুই দেশের সরকার।
উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন ব্যবসায়ী নেতাদের মতে, বাংলাদেশের সাথে ভারতের ৫টি রেলপথের মধ্যে চিলাহাটি-হলদিবাড়ি হবে উভয় দেশের মধ্যে গুরুত্বপূর্ন ও লাভজনক রেলপথ। ডোমার উপজেলার চিলাহাটি থেকে ঢাকা, রাজশাহী, খুলনা, রংপুর সরাসরী রেল যোগাযোগ চালু রয়েছে।
অপর দিকে হলদিবাড়ি থেকে গোটা পশ্চিমবঙ্গ, কুচবিহার,আসাম,ত্রিপুরা সরাসরী রেল যোগাযোগ চালু রয়েছে। এই রেলপথ দিয়ে বাংলাদেশের সাথে ভারত, নেপাল ও ভুটানে সাথে কম খরচে ব্যবসা বানিজ্য স্থাপন হবে। চিলাহাটি-হলদীবাড়ি ইন্টারচেঞ্জ লিংক চালু হলেই বন্ধু প্রতিম দেশের মধ্যে উন্নয়নের দুয়ার খুলে যাবে,লাভবান হবে উভয় দেশ, বদলে যাবে উভয় এলাকার আর্থ সামাজিক চেহারা।
১৯৪৭ সালের ১৫ আগষ্ট ভারত ভাগের পরও তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের সময় চিলাহাটি-হলদিবাড়ি মধ্যে এই ইন্টারচেঞ্জ চালু ছিল। সে সময় চিলাহাটি ও হলদিবাড়ি স্টেশনের উজ্জ্বল ইতিহাস স্মরণ করে এখনও গর্ববোধ করেন এলাকার বাসিন্দারা। ১৯৬৫ সাল পর্যন্ত হলদিবাড়ির সঙ্গে তদানীন্তর পাকিস্তানের রেল যোগাযোগ চালু ছিল।
১৯৪৭ সালের ভারতের স্বাধীনতার আগে চিলাহাটি-হলদিবাড়ি হলদিবাড়ী দিয়ে সরাসরি কলকাতার রেল যোগাযোগ চালু ছিল। ১৯৬৫ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ভারত-পাকিস্তানের যুদ্ধের পর রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে হয়ে যায়।