Home » , , , » ঢাকা-নিউ জলপাইগুড়ি রুটে ট্রেন উদ্বোধন ২৭ মার্চ - চিলাহাটি রেলষ্টেশন পরিদর্শনে রেলমন্ত্রী

ঢাকা-নিউ জলপাইগুড়ি রুটে ট্রেন উদ্বোধন ২৭ মার্চ - চিলাহাটি রেলষ্টেশন পরিদর্শনে রেলমন্ত্রী

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 16 March, 2021 | 7:50:00 PM


আপেল বসুনীয়া,চিলাহাটি ওয়েব : বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্নজয়ন্তী উপলক্ষে আগামী ২৭ মার্চ (সম্ভাব্য) ঢাকা থেকে চিলাহাটি-হলদিবাড়ি দিয়ে ভারতের নিউ জলপাইগুড়ি পর্যন্ত ট্রেন চলাচল শুরু হবে বলে জানিয়েছেন রেলপথমন্ত্রী অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম সুজন।
আজ মঙ্গলবার বিকাল সোয়া ৫টায় নীলফামারীর চিলাহাটি রেলষ্টেশনে উক্ত ট্রেন চলাচলের শুভ উদ্বোধন উপলক্ষে পূর্ব প্রস্তুতি পর্যবেক্ষন ও মতবিনিময় সভা শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের এ কথা জানান।
তিনি আরও বলেন, ভারত-বাংলাদেশ দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী ঢাকা থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এই নতুন রুটে রেল যোগাযোগের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করবেন। আর রেল ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ২ হাজার ২০০ টাকা। তার সঙ্গে যোগ হবে ৫০০ টাকা ট্রাভেল ট্যাক্স।
উত্তরাঞ্চলের মানুষ চিলাহাটি স্টেশন থেকে যাতায়াত করতে পারবে বলে জানান মন্ত্রী। সে ক্ষেত্রে তাদের জন্য কয়েকটি বগি নির্ধারণ করা থাকবে। কেবল নিউ জলপাইগুড়ি থেকে চিলাহাটি পর্যন্ত যাতায়াত করতে পারবে তারা। ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ৭০০ টাকা। সঙ্গে ৫০০ টাকা ট্রাভেল ট্যাক্স যোগ হবে। সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে রেলমন্ত্রী জানান, আগামী ২৭ মার্চ (সম্ভাব্য) দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী আপাতত এই ট্রেন উদ্ধোধন করে রাখবেন। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ট্রেনটি নিয়মিত চলাচল করবে।
রেলমন্ত্রী বলেন, এখনও ট্রেনটির নাম চুড়ান্ত করা হয়নি। তবে বেশ কয়েকটি প্রস্তাবিত নামের মধ্যে সম্প্রীতি নামটি হতে পারে। এই ট্রেনের চুড়ান্ত নাম করনের ফাইলটি আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নাম চুড়ান্ত করবেন। তবে ভারতের নির্বাচন ঘিরে এই ট্রেনের উদ্ধোধন পিছিয়ে যেতেও পারে।
মন্ত্রী জানান, রেল খাতকে এগিয়ে নিতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আগামী এক বছরের মধ্যে কক্সবাজার ও মোংলা পর্যন্ত রেল যোগাযোগ চালু হবে। শিগগির আরও ৫০টি রেলস্টেশন আধুনিকায়নের কাজ শুরু হবে। মুজিব বর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে এবার ১০০টি রেলস্টেশনকে সজ্জিত করা হবে।
এ সময় চিলাহাটিতে উপস্থিত ছিলেন নীলফামারী জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী, পুলিশ সুপার মোখলেছুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ, পশ্চিমাঞ্চল রেলের প্রধান প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম ফিরোজ, প্রকল্প পরিচালক (চিলাহাটি-হলদিবাড়ী রেলপথ নির্মান) আব্দুর রহীম, ডোমার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিনা শবনম প্রমুখ। উল্লেখ যে, ঢাকা থেকে নিউ জলপাইগুড়ির (শিলিগুড়ি) রেলপথের দুরত্ব ৫৩০ কিলোমিটার। এর মধ্যে বাংলাদেশ অংশে রয়েছে ৪৪৬ কিলোমিটার। ভারতের অংশে রয়েছে ৮৪ কিলোমিটার। এই দীর্ঘপথে যাত্রীবাহি এই এক্সপ্রেস ট্রেনটি দাঁড়াবে শুধুমাত্র নীলফামারীর চিলাহাটি রেলষ্টেশনে।
প্রকাশ থাকে যে,দীর্ঘ ৫৫ বছর ধরে নীলফামারীর চিলাহাটি-জলপাইগুড়ির হলদিবাড়ি এর মধ্যে ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল। যা ২০২০ সালের ১৭ ডিসেম্বর পণ্যবাহী ট্রেনের মাধ্যমে এই রুটে ট্রেন চলাচল পুনরায় শুরু করে।