Home » » প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঘরের চাবি হস্তান্তর করবেন কাল

প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঘরের চাবি হস্তান্তর করবেন কাল

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 22 January, 2021 | 11:28:00 PM

বিশেষ প্রতিনিধি, চিলাহাটি ওয়েব : আগামীকাল শনিবার ২৩ জানুয়ারি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সুবিধাভোগীদের মধ্যে ঘরের চাবি, কবুলীয় দলিল, নামজারী খতিয়ান ও ডিসিআর প্রদান করবেন এমন অসহায় পরিবারগুলোর হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে চাবি হস্তান্তর করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 
পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাশিদ কায়সার রিয়াদ এ প্রতিনিধিকে জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ‘স্বপ্ননীড়’ ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার পাচ্ছে। প্রতিটি গৃহহীন পরিবারের জন্য থাকছে দ্বি-কক্ষ বিশিষ্ট আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত ঘর। সরকারের মূল উদ্দেশ্য মানুষের জীবনমানের উন্নয়ন ও কোনো মানুষ যেন বাসগৃহ ছাড়া না থাকে। মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে দিনাজপুরের পার্বতীপুরে ভূমিহীন ও গৃহহীন, ছিন্নমূল, অসহায় দরিদ্র ২৬২পরিবারের জন্য নান্দনিকভাবে নির্মিত প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার দেয়া উপহার ‘স্বপ্ননীড়’। প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া এসব ঘর নামক ‘স্বপ্ননীড়ে’ উঠবেন প্রতিবন্ধী, স্বামী পরিত্যক্তা, অতিশয় বৃদ্ধ, বিধবা, ভিক্ষুক, দুস্থ, ভূমিহীন ও গৃহহীন এসব অসহায় পরিবার। পাচ্ছে মাথা গোজার ঠাই। গৃহহীন মানুষের বাসস্থান নিশ্চিত করতে পার্বতীপুরে বানানো হয়েছে দৃষ্টিনন্দন ঘর। আর থাকতে হবে না অন্যের বাড়িতে, খাস জমিতে, রেলস্টেশন, বাসটার্মিনাল বা খোলা আকাশের নিচে। এমন মানুষেরাই হবেন এসব ঘরের মালিক। 
ফলে আশ্রয়ণ প্রকল্পের জন্য নির্বাচিত পরিবারগুলো উল্লাসিত ও আনন্দিত। প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের এর আওতায় এসব পরিবারকে ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মিত প্রতিটি ঘর ইটের দেওয়াল, কংক্রিটের মেঝে ও রঙ্গিন টিনের ছাউনি দিয়ে তৈরি। এসব সেমিপাকা ঘরে দুইটি শয়নকক্ষ, একটি খোলা বারান্দা, একটি রান্না ঘর এবং একটি শৌচাগার আছে। এর বাইরে সামনে এবং পিছনের অংশে রাখা হয়েছে পর্যাপ্ত খোলা জায়গা। প্রতিটি ঘরে বিদ্যুৎ সংযোগ ও পানির ব্যবস্থার জন্য বসানো হয়েছে অগভীর নলকূপ ও থাকছে খেলার মাঠ। প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাশিদ কায়সার রিয়াদের তত্ত্বাবধানে উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের ১৭টি স্থানে ২৬২টি ঘরের নির্মাণ কাজ চলছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের জন্য দিনরাত পরিশ্রম করে চলছে গৃহ নির্মাণের কাজ।