Home » » পার্বতীপুরে অদিবাসী ছাত্রী রুখিয়া রাউৎকে হত্যার রহস্য উদঘাটন ॥ গ্রেফতার-৩

পার্বতীপুরে অদিবাসী ছাত্রী রুখিয়া রাউৎকে হত্যার রহস্য উদঘাটন ॥ গ্রেফতার-৩

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 07 October, 2020 | 6:52:00 PM



বিশেষ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব :
চলন্ত অটোরিক্সায় গলায় ওড়না পেঁচিয়ে হত্যা করা হয়ে আদিবাসী কলেজ ছাত্রী রুখিয়া রাউৎকে। পরে ফেলে দেওয়া হয় পার্বতীপুরের মধ্যপাড়ার পাঁচ পুকুর শালবনে। হতভাগ্য কলেজ ছাত্রীর বাড়ী রংপুর জেলার বদরগঞ্জ উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়েনের খোর্দ্দ বাগবাড় মিশন পাড়া গ্রামে। সে রংপুর কারমাইকেল বিশ্ব বিদ্যালয়ের অনার্স শেষ বর্ষের ছাত্রী। এ ঘটনায় জড়িত থাকায় পার্বতীপুর মডেল থানা পুলিশ তিন জনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন খোর্দ্দ বাগবাড় গ্রামের আ: গফুর আলীর ছেলে আনিছুল হক (২৯), বাচ্চু খানের ছেলে অটোচালক রাজ খান (২৭) ও দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার পলাশবাড়ী ইউনিয়নের দূর্গাপুর নতুন বাজার গ্রামের মৃত জয়নাল আবেদীনের পুত্র আশিকুজ্জামান (৪০)। আজ বুধবার ভোরে তাদের গ্রেফতার করে ৬৪ ধারায় জবানবন্দী প্রদানের জন্য দিনাজপুর আদালতে পাঠানো হয়েছে।
জানা যায়. সোমবার বিকেলে আদিবাসী কলেজ ছাত্রী রংপুরে ছাত্রী ম্যাচে যাওয়ার জন্য বাড়ী থেকে বের হয়ে যায়। পর দিন মঙ্গলবার শালবন থেকে অজ্ঞাত পরিচয় লাশটি উদ্ধার করে পার্বতীপুর থানা পুলিশ। পরে রাতে ছাত্রীর পরিবার এসে লাশ সনাক্ত করে। পার্বতীপুর মডেল থানার ওসি তদন্ত সোহেল রানা জানান, তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে নিহতের পরিচয় সনাক্তের পর হত্যাকারীদের গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আনিছুল হক রুখিয়া রাউৎকে হত্যা করার কথা স্বীকার করেছে। জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, রুখিয়া রাউৎ এর সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল তার। ২ মাস আগে সে অন্যত্র বিয়ে করে। এতে রুখিয়া তার উপর অভিমান করে। সোমবার সে রুখিয়াকে নিয়ে অটোরিক্সায় বের হয়। রিক্সায় তাদের দুজনের কথা কাটাকাটি ও ঝগড়া হলে সে তার ওড়না দিয়ে শ্বাস রোধ করে হত্যা করে। পরে অটো চালককের সহায়তায় রাত সাড়ে ৮টার দিকে তাকে জংগলে ফেলে দিয়ে সে বাড়ীতে চলে আসে। ঘটনাটি সে তার দুলাভাই আশিকুজ্জামানকে মোবাইল ফোনে অবগত করে। দিনাজপুরর পুলিশের এএসপি মিয়া মোঃ আশিস বিন হাসান বলেন. তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ২৪ ঘন্টার মধ্যে নিহতের পরিচয় ও হত্যা কান্ডের সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি। সবজি ব্যবসায়ী প্রেমিক আনিছুল হক ও অটোচালক রাজ খান হত্যা কান্ডের কথা স্বীকার করেছে।