Home » » কালী মন্দিরে পুজো দিতে গিয়ে কবিরাজ ও স্কুল শিক্ষকসহ আটক ৪

কালী মন্দিরে পুজো দিতে গিয়ে কবিরাজ ও স্কুল শিক্ষকসহ আটক ৪

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 05 October, 2020 | 10:41:00 PM

গোপাল চন্দ্র রায়-ডোমার প্রতিনিধি, চিলাহাটি ওয়েব : ভেঙ্গে যাওয়া পায়ের চিকিৎসা করাতে কালি মন্দিরে পুজা দিতে গিয়ে কবিরাজ ও স্কুল শিক্ষকসহ ৪ জনকে আটক করে ডোমার থানায় সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী। ঘটনাটি ঘটেছে,শনিবার(৪ অক্টোব) রাতে ডোমার উপজেলার সদর ইউনিয়নের বড়রাউতা বাবুপাড়া কালি মন্দিরে। আটককৃতরা হলেন, পশ্চিম বোড়াগাড়ী কলেজপাড়া গ্রামের ইদু মামুদের ছেলে কবিরাজ শরিফ মিয়া(৭২), ডোমার পৌর সভার সাহাপাড়া গ্রামের আব্দুল করিমের ছেলে বামুনিয়া কালিতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলাম মানিক(৪৭), বড়রাউতা মাঝাপাড়া গ্রামের দেবেন্দ্র নাথ বর্মনের ছেলে ফুলেশ্বর বর্মন (৫৫) ও সদর ইউনিয়নের ময়দান পাড়া গ্রামের মৃত সোলায়মান আলীর ছেলে জয়নাল আবেদিন(৪৮)। জানা গেছে, বামুনিয়া কালিতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলাম মানিক মটর সাইকেল দুর্ঘটনায় একটি পা ভেঙ্গে যায় দীর্ঘদিন চিকিৎসার পর তিনি স্থানীয় কবিরাজ শরিফ মিয়ার শরণাপন্ন হন।কবিরাজ তাকে কালী মন্দির গিয়ে পুজো দেয়ার পরামর্শ দেন। ঘটনার ওই রাতে শিক্ষক মানিক, কবিরাজ শরিফ তার এক সহযোগী এবং ভ্যান চালকসহ পুজোর বিভিন্ন উপকরণ নিয়ে বড়রাউতা বাবুপাড়া কালি মন্দিরে পুজো দিতে যায়। এসময় মন্দিরে ছোট লাল কাগজ দিয়ে মোড়ানো এক টুকরা মাংস,কাগজে আঁকা কালিমূর্তি এবং সেখানে কিছু লেখা রয়েছে সেগুলো মন্দিরের ভেতর ফেলে দেয়। এলাকার লোকজন দেখতে পেয়ে মাংসের টুকরাটি গরুর মাংস সন্দেহে তাদের আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। ডোমার থানা পুলিশ তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে । এ ঘটনায় কালি মন্দিরের সভাপতি ভুবন চন্দ্র রায় বাদী হয়ে ডোমার থানায় একটি অভিযোগ দ্বায়ের করেন। ডোমার থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মোস্তাফিজার রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন আটককৃতদের রোববার আদালতে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।