Home » » ডোমারে দেওনাই নদীর ভাঙ্গনে হুমকীর মূখে গঙ্গামাতা মন্দির

ডোমারে দেওনাই নদীর ভাঙ্গনে হুমকীর মূখে গঙ্গামাতা মন্দির

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 18 July, 2020 | 9:35:00 PM

গোপাল চন্দ্র রায়,ডোমার প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : নীলফামারীর ডোমার সদর ইউনিয়নের ছোটরাউতা এলাকায় দেওনাই নদীর ভাঙ্গনে শ্রী শ্রী গঙ্গামাতা মন্দিরটি হুমকীর মূখে পড়েছে। চলতি বন্যা ও উজানের ঢলে শ্রোতের ধাক্কায় দেওনাই নদীর পাড় ভেঙ্গে মন্দিরের সামনের অংশ ও মন্দির সংলগ্ন শ^শানটির বেশীরভাগ অংশ নদীতে বিলিন হয়েছে। এ ছাড়াও মন্দির সংলগ্ন বিদ্যুতের খুঁিটটি হেলে পড়ায় যে কোন সময় দুর্ঘটনার আশংকা করছে এলাকাবাসী। মন্দিরের সভাপতি মহেশ চন্দ্র কর্মকার,সহ-সভাপতি জোতিষ চন্দ্র কর্মকার, সাধারন সম্পাদক মধু কর্মকার জানান, বাপ দাদার আমল থেকে এই মন্দিরে পূজা অর্চনা করে আসছি আমরা। প্রতি বছরেই এখানে ঘটা করে অষ্টমি স্নান উৎসব হয় ও দো-মুখার বান্নি নামে গ্রামীন মেলা বসে মন্দির প্রাঙ্গনে।
মন্দিরের সাথে এক একর জায়গায় শ^শান রয়েছে। শ^শানে ছোটরাউতা এলাকার ব্রাম্মনপাড়া, জেলে পাড়া,ছোট ভূজারীপাড়া,বড় ভুজারীপাড়ার সনাতন ধর্মালম্বী লোকজন মারা গেলে এই শ^শানে লাশ দাহ ও সমাধি দেয়া হয়। তারা বলেন,বন্যার আগে পানি উন্নয়ন বোর্ড দেওনাই নদী খনন করে। ওই সময় মন্দির ও শ^শানের সামনে বালুর বাঁধ দেয়া হয়। কিন্তু চলতি বন্যায় মন্দির এবং শ^শানের সামনে বালুর বাঁধসহ মন্দিরের একাংশ জমি এবং শ^শানের এক একরের মধ্যে ৬০ থেকে ৬৫শতাংশ জমি নদীগর্ভে বিলিন হয়ে গেছে। জরুরী ভিত্তিতে পদক্ষেপ গ্রহন না করলে সামনের বন্যায় মন্দির ও শ^শান নদীগর্ভে বিলিন হতে পারে।
এ ছাড়া নদী ভাঙ্গনে মন্দিরের পাশ দিয়ে যাওয়া বিদ্যুতের খুটিগুলো হেলে গেছে। বিদ্যুৎ বিভাগ কর্তৃপক্ষ টানা এবং ঢোকা লাগিয়ে বিদ্যুতের খুঁটিটি আটকে রাখায় যে কোন সময় দুর্ঘটনাও ঘটতে পারে বলে তারা আশংকা করছেন।