Home » » বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা করার প্রতিবাদে কিশোরগঞ্জে মানববন্ধন

বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা করার প্রতিবাদে কিশোরগঞ্জে মানববন্ধন

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 24 June, 2020 | 9:15:00 PM

মিজানুর রহমান,কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : ঝড় বৃষ্টি উপেক্ষা করে-নীলফামারী কিশোরগঞ্জ উপজেলার মাগুরা ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদুল হোসেন শিহাব জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে অবমাননা করার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে, মাগুরা ইউনিয়নের বীর মুক্তিযোদ্ধা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, আওয়ামী যুবলীগ, জাতীয় শ্রমিক লীগ সহ বিভিন্ন পেশার লোকজন। আজ বুধবার বেলা ১ টার সময় কিশোরগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে মাগুরা টেংগনমারী সড়কে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন শেষে, স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন মন্ত্রণালয় বিভাগীয় কমিশনার রংপুর, জেলা প্রশাসক নীলফামারী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন।
এ সময় বক্তব্য রাখেন উপজেলা শাখার ছাত্রলীগের সভাপতি মাঈনুল আরিফিন সপু, সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান জেভি, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আমিনুর হোসেন সুজন, ছাত্রলীগের সবেক সহসভাপতি শহীদুল ইসলাম খোকন, মাগদুম ই মইন ড্যাফোডিল, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি পতিরাম রায়, নীলফামারী জেলা মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি মুজাহিদ হোসেন সুরোজপ্রমুখ।
এসময় বক্তারা বলেন, ওই ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদুল হোসেন শিহাব জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কে অবমাননা করে তার পার্শে স্বাধীনতা বিরোধী মুক্তিযুদ্ধের সময় চিহ্নিত রাজাকার মরহুম মোশারফ হোসেন লেবু মিয়া তার দাদা, লেবু মিয়ার ছবি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের অফিস রুমে বঙ্গবন্ধুর ডানপাশে টাঙ্গিয়ে রাখে এবং তার পাশে মাহমুদুল হোসেনের পিতা মরহুম দুলাল মিয়া এবং তার নিজের ছবি টাঙ্গিয়ে রাখেন।
বঙ্গবন্ধু ডানপাশে কুখ্যাত রাজাকার মরহুম মোশারফ হোসেন লেবু মিয়ার ছবি টাঙ্গিয়ে কুখ্যাত রাজাকারকে বঙ্গবন্ধুর সমকক্ষ নেতা বানানোর অপপ্রয়াস এবং স্বাধীনতার ইতিহাসকে জাতির সামনে ভুলভাবে উপস্থাপিত করার অপকৌশল। বাংলাদেশের রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব আছে বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও তারই কন্যা শেখ হাসিনা। তার পরেও স্বাধীনতাবিরোধী রক্ত বহনকারী মাগুরা ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান শিহাব রাষ্ট্রের নিয়মনীতি তোয়াক্কা না করে পরিকল্পিতভাবে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করার জন্য এই হীন কার্য করেছেন। মাগুরা ইউনিয়ন পরিষদে নির্মিত ভবনে নিজের দাদা, বাবা ও নিজের ছবি বঙ্গবন্ধুর পাশে টাঙানোর জন্য তীব্র প্রতিবাদ এবং বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানায় বক্তারা।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ বলেন, স্মারকলিপি পেয়েছি, ইতিমধ্যেই চেয়ারম্যানকে শোকজ করা হয়েছে তদন্তের জন্য তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটিও গঠন করা হয়েছে।