Home » » করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতায় ফুলবাড়ীতে মানছে না কেউ সরকারি আদেশ

করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতায় ফুলবাড়ীতে মানছে না কেউ সরকারি আদেশ

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 14 May, 2020 | 11:08:00 PM

আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : সারাবিশ্বে ভয়াবহ করোনা ভাইরাসের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লেও বাংলাদেশে বাড়ছে মৃত্যু ও আক্রান্ত। এই ভয়াবহ ভাইরাসের কারণে ফুলবাড়ীতে মানছে না কেউ সরকারি আদেশ। যার যার মত দোকানপাট খুলে করছে বেচাকেনা। 
দূরত্ব বজায় রেখে কেউ কাজ করছে না। এর কারণে করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতা বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আব্দুল সালাম চৌধুরী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে এই মর্মে প্রতিদিন অভিযান চালালেও অভিযান চালার পরে আবারও ব্যবসায়ীরা তাদের ইচ্ছেমত দোকানপাট খুলছে। দেখে মনে হয় পূর্বের ন্যায় ফুলবাড়ীতে সব রকম বেচাকেনা চলছে। 
এদিকে দিব্যি ছোটখাটো যানবাহনগুলি দেধারছে চলছে। দূর পাল্লার যানবাহন বন্ধ থাকলেও খাদ্য পণ্যের গাড়িগুলি কিছু চলাচল করছে। ফুলবাড়ী পৌরসভার করোনা ভাইরাসের সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রথম দিকে প্রচার প্রচারণা থাকলেও বর্তমান সব প্রশাসনের প্রচার প্রচারণা বন্ধ হয়ে গেছে। সাধারণ মানুষ মনে করছে যে করোনা ভাইরাস কাউকে আক্রান্ত করবে না। কিন্তু প্রতিদিন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বুলেটিনে আক্রান্ত ও মৃত্যু খবর আসছে। সাধারণ মানুষ বাড়িতে থাকলেও বর্তমান মানুষ আবার ঘর থেকে বেরিয়ে আসছে। মৃত্যুর ভয় করছে না। আবার খেটে খাওয়া মানুষগুলি খাদ্যের জন্যে ছুটাছুটি করছে। 
সরকারের দেওয়া অনুদান অর্ধেক খেটে খাওয়া মানুষ পেলেও আবার অনেকে সরকারি অনুদান পাচ্ছেনা। মুখ দেখে দেখে অনেকে অনুদান দিচ্ছে। আবার রাজনৈতিক দিক বিবেচনা করেও সাধারণ মানুষকে খাদ্য সামগ্রী দেওয়া হচ্ছে। সরকারি ভাবে তালিকা হলেও তালিকায় কে কোন দল করে, কে কাকে ভোট দেয়, আগামীতে ভোট দিবে কিনা?, সেসব দিক দেখে ১০টাকা কেজি থেকে সরকারের সব রকম সুযোগ সুবিধা মুখ দেখে দেওয়া হচ্ছে। 
বর্তমান সামনের দিকে ভয়াবহ অবস্থা দেখা যাচ্ছে। ফুলবাড়ী শহরে বাজারগুলি ও দোকানপাট গুলিতে লোকজনের সমাগম বন্ধ করা না হলে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখে দিয়েছে। এখনি প্রশাসন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিলে যেকোন সময়ে এই মহামারী ছড়িয়ে পড়তে পারে। এ ব্যাপারে বিভিন্ন রাজনৈতিক মহল, সুধিজন, সাংবাদিক, স্থানীয় প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।