Home » » ডোমারে সড়ক দূর্ঘটনায় দুই বর যাত্রী নিহত

ডোমারে সড়ক দূর্ঘটনায় দুই বর যাত্রী নিহত

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 11 March, 2020 | 10:34:00 AM

আব্দুল্লাহ আল মামুন,ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : আর কিছুক্ষন পরেই নববধুকে নিয়ে আসবে বরযাত্রী। আত্মীয়-স্বজনে ভরা বাড়ী। চলছিল আনন্দ উল্লাস। রাতে ফিরবে বরযাত্রী সেই অপেক্ষায় ছিলেন বাড়ীর সবাই। কিন্তু সেই আনন্দঘন মুহুর্ত এক নিমিষেই বিষাদে পরিণত হলো।
নববধু কে নিয়ে ফেরার পথে সড়ক দূর্ঘটনায় মারাযায় দুইজন বরযাত্রী। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ছয়জন। আনন্দ বিয়ে বাড়ীতে শুরু হয় শোকের মাতম।
মঙ্গলবার রাত আনুমানিক ১১.৩০ টায় ডোমার-দেবীগঞ্জ সড়কের পাগলাবাজার আমতলী এলাকায় ট্রাক্টর ও মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে মর্মান্তিক এই দূর্ঘটনাটি ঘটে। আহত সকলের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছে পুলিশ। নিহতরা হলেন, জাহিদ হাসানের স্ত্রী রুনা বেগম (৩৫) ও পানিয়াল রহমানের স্ত্রী সকিনা খাতুন (৫০)। সম্পর্কে তারা বর গোলাম রব্বানীর আত্মীয়। আহতরা হলেন, হামিদা বেগম (৪০), মজিদ ইসলাম(৩৫), জয়িতা আক্তার (১২), জান্নাত আক্তার (১০), লতিফা বেগম (২২)। সবার বাড়ি উপজেলার বোড়াগাড়ি ইউনিয়নের লালার খামার এলাকায়। রুনা বেগম ঘটনাস্থলে নিহত হলেও তার সাথে থাকা ৫ বছরের শিশু সন্তানটি বেঁচে যান।
দূর্ঘটনায় আক্রন্তরা জানায়, পাশ্ববর্তী দেবীগঞ্জ উপজেলার তিস্তার হাট এলাকায় নফর উদ্দিনের ছেলে গোলাম রাব্বানীর বিয়ে শেষে রাতে নববধু নিয়ে বর যাত্রীর ৪টি মাইক্রোবাসে ডোমারের বাড়ির উদ্দ্যেশে ফিরছিল। ফেরার পথে পাগলাবাজার আমতলী এলাকায় একটি ট্রাক্টর বর যাত্রীর গাড়ি বহরের একটি মাইক্রোবাসের সাথে মূখোমূখি সংঘর্ষ হয়। এতে মাইক্রোবাসটি দুমড়ে-মুছড়ে পাশ্ববর্তী খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই রুনা বেগম মারা যায়।
দ্রুত এলাকাবাসী ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা সাত জনকে উদ্ধার করে দেবীগঞ্জ স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এসময় সখিনা ও হমিদার অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে তাদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে রাতেই সখিনা বেগম মারা যায়। আর হামিদা বেগমকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘাতক ট্রাক্টর ও চালক পালিয়ে যায়।
ডোমার ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার ফরহাদ হোসেন জানান, ঘটনাস্থল থেকে আমরা চারজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করাই। ঘটনাস্থলেই একজন মারাগেছে।
ডোমার থানার অফিসার্স ইনচার্জ মো: মোস্তাফিজার রহমান দুই জন নিহতের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘাতক ট্রাকটর ও চালককে দ্রুত সময়ের মধ্যে আটক করা হবে এবং আহত সকলের চিকিৎসা ব্যয় আমরা ডোমার থানা পুলিশ বহন করছি।