Home » , , » চিলাহাটিতে গৃহবধূ মারধরে ইউপি চেয়ারম্যানের নামে মামলা

চিলাহাটিতে গৃহবধূ মারধরে ইউপি চেয়ারম্যানের নামে মামলা

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 10 March, 2020 | 12:00:00 PM

চিলাহাটি ওয়েব ডেস্ক : নীলফামারী জেলার চিলাহাটিতে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে এক গৃহবধূকে ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক মারধরের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে । এ ঘটনায় এক জনকে আটক করেছে ডোমার থানা পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে চিলাহাটি'র ভোগডাবুড়ী ইউনিয়নের গোসাইগঞ্জ ডাঙ্গা পাড়া গ্রামে। এ ঘটনায় রমিছা গুরুতর আহত অবস্থায় ডোমার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
মামলা সূত্রে জানা যায়, রমিছাকে তার ধর্মের ভাই ডাঙ্গাপাড়া আদর্শ গ্রামের ইব্রাহীম (৭০) ভাই-বোনের সম্পর্কের সুবাদে দীর্ঘ ১৮ বছর ধরে দেখাশোনা করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় গত বুধবার রাত ৯টায় রমিছার বাসায় বাজার দিয়ে ফেরার পথে এলাকার কিছু বখাটে ইব্রাহীমকে আটক করে মারধর করে। পরে ইউপি চেয়ারম্যান ঘটনা স্থলে এসে ইব্রাহীমের সাথে রমিছার অবৈধ সম্পর্ক আছে মর্মে রমিছাকে স্বীকার করতে বলে।
রমিছা তার কথায় রাজি না হওয়ায় ভোগডাবুড়ী ইউপি চেয়ারম্যান একরামুল হক রমিছাকে বেধরক মারপিট করে । থুতু ফেলিয়া পূনরায় তা চাটিয়ে নেওয়ায়। জোর পূর্বক ইব্রাহীম, রমিছা ও তার মেয়ে রানীর (১৩) কাছ থেকে ফাঁকা স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেয় বলে অভিযোগ করে। রমিছা গুরুতর আহত অবস্থায় ডোমার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
রমিছার স্বামী বাচ্চা মিয়া গত রবিবার বাড়িতে এসে চেয়ারম্যান একরামুল হককে প্রধান আসামী করে ৭ জনের বিরুদ্ধে নারী, শিশু আইনে ১০ ধারায় ততসহ দন্ডবিধি আইনে ডোমার থানায় মামলা দায়ের করে।
ডোমার থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এজাহারভুক্ত ৭নং আসামী ডাঙ্গাপাড়া আদর্শ গ্রামের মঙ্গলের ছেলে রতন (৩২) কে গ্রেফতার করে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বাকী আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।