Home » , , » চিলাহাটি ও ভারত বর্ডারের মধ্যে ব্রডগেজ রেলপথ নির্মান প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন ও কাজের শুভ উদ্ভোধন

চিলাহাটি ও ভারত বর্ডারের মধ্যে ব্রডগেজ রেলপথ নির্মান প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন ও কাজের শুভ উদ্ভোধন

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 21 September, 2019 | 4:00:00 PM

আপেল বসুনীয়া,চিলাহাটি ওয়েব : দু”দেশের মানুষের মাঝে বন্ধুত্ব সৃণ্টি করে যাতে তারা নিজেদের উন্নতির পাশাপাশি, তাদের নিজ নিজ দেশের আর্থ- সামাজিক অবস্থার উন্নতি করতে পারে, আর এ জন্যই কাজ করে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ সরকার।
আজ শনিবার দুপুরে নীলফামারী জেলার ডোমার উপজেলার সীমান্ত এলাকা চিলাহাটি-তে ভারতের সাথে বাংলাদেশের রেল সংযোগ স্থাপনের লক্ষ্যে ব্রডগেজ রেলপথের কাজের উদ্বোধন কালে রেল মন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন এ কথা বলেন। রেলওয়ে মন্ত্রনালয়ের সচিব মোঃ মোফাজ্জল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশে নিযুক্ত মান্যবর ভারতয়ী হাই কমিশনার শ্রীমতি রীভা গাঙ্গুলী দাস, রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য আসাদুজ্জামান নূর এমপি, আফতাব উদ্দিন সরকার, এমপি, নীলফামারী-২, সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি জনাব রাবেয়া আলীম, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহা পরিচালক, জনাব শামসুজ্জামান, জেলা প্রশাসক, নীলফামারী মোঃ হাফিজুর রহমান চৌধুরী সহ রেলের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ। মন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রধার মন্ত্রীর সাথে ভারতের প্রধান মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির গভীর সুসম্পর্ক রয়েছে।
আর এই বন্ধুত্বের নিদর্শন স্বরুপ এই রেল সংযোগ কাজের উদ্বোধন করা হচ্ছে। এ রেলপথ চালু হলে ভারতের কলকাতা থেকে নীলফামারীর চিলাহাটি হয়ে ভারতের হলদিবাড়ী হয়ে শিলিগুড়ি পর্যন্ত আবারো রেল যোগাযোগ পূনঃ স্থাপিত হবে। তিনি বলেন, আগে এ অঞ্চলের মানুষের সাথে ঢাকার সাথে সরাসরি কোন রেল যোগাযোগ ছিল না। এ সরকারের কল্যাণেই বঙ্গবন্ধু সেতু স্থাপনের পরই ঢাকার সাথে সরাসরি রেল যোগাযেগের সৃষ্টি হয়। মানুষের কল্যাণ ও দেশের উন্নতির জন্যই এ কাজ করে যাচ্ছে।
এর আগে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার শ্রীমতি রীভা গাঙ্গুলী দাস বলেন, দু”দেশের সাথে বন্ধুত্বের সম্পর্কটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ, যেখানে দুই দেশের মানুষ এক হবে। তিনি বলেন, বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সফলতা ভারতের জন্য খুবই গর্বের।
তিনি বলেন, এই যোগাযোগের মধ্যেই কাছাকাছি আসবে। আজ এরেল পথের উদ্বোধন হলো। এরপর আখাউড়া থেকে ভারতের আগরতলা রেল পথ চালু হবে। দুই দেশের মধ্যে বন্ধুত্ব আছে বলেই ভৈরব- তিতাস সেতুসহ ভারতের সাথে অন্যান্য রেলযোগাযোগ পুনঃ স্থাপিত হবে।