Home » » ডোমারে চার সন্তানের জনকের মৃত্যু নিয়ে রহস্য

ডোমারে চার সন্তানের জনকের মৃত্যু নিয়ে রহস্য

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 07 September, 2019 | 11:37:00 PM

আব্দুল্লাহ আল মামুন, ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি, চিলাহাটি ওয়েব : জেলার ডোমারে চার সন্তানের জনক দেবাউ রহমানের(৪৫) মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। শনিবার সকালে উপজেলার জোড়াবাড়ী ইউনিয়নের মির্জাগঞ্জ বাবুপাড়ার নিজ বাড়ীর আমগাছের সাথে গলায় রশি দিয়ে ঝুলানো তার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। দেবাউ রহমান মির্জাগঞ্জ বাবুপাড়ার আফিজার রহমানের ছেলে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করেছেন তার ভাগ্নে মোঃ মজিদুল ইসলাম। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলার মর্গে প্রেরন করেছে। বাদী মজিদুল জানান, তার মামার চারটি সন্তান রয়েছে যারমধ্যে বড় মেয়ের তিনি বিয়ে দিয়েছেন। গত দেড় মাস পুর্বে তার মামা দেবাউ রহমানের স্ত্রী পেয়ারা বেগম(৩৫) স্থানীয় ডারিকামারী এলাকার আতিয়ার রহমানের ছেলে নজু ইসলামের সাথে পালিয়ে যান। অনেক খুজাখুজির পর মামা জানতে পারেন মামী পেয়ারা বেগম ঢাকায় নজুর সাথে রয়েছেন। মামা ঢাকায় গিয়ে গত ৬ সেপ্টম্বর মামী পেয়ারা বেগমকে সাথে নিয়ে এলাকায় নিয়ে আসেন। এলাকায় আনার পর মামী সেখান থেকে মামাকে ছেড়ে আবার নজুর বাড়ীতে চলে যান। এদিকে রাতে মামা বাড়ীতে তার ঘড়ে শুয়ে পড়েন । সকালে বাড়ীর লোকজন দেখতে পায় বাড়ীর পাশেই আমগাছে গলায় রশি দিয়ে তার ঝুলন্ত দেহ। এ সময় তার পা এবং দেহের একাংশ মাটিতে লেগে ছিল যা নিয়েই রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন,বউকে নিয়ে আসার পর্ওে তার বউ তাকে ছেড়ে আবার চলে যাওয়ার কয়েক ঘন্টার মধ্যেই তার মৃত্যু নিয়ে এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে। তাছাড়া মাটিতে পা এবং দেহ লাগলে কিভাবে একজন মানুষ মারা যেতে পারে। ডোমার থানার এসআই অনন্ত কুমার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান,থানায় এ ব্যাপারে অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। ময়না তদন্তের জন্য লাশ মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট আসলেই প্রকৃত রহস্য জানা যাবে।