Home » » পার্বতীপুরে জমির মালিকানা নিয়ে মামলা ॥ ঘটনাস্থলে না থেকেও আসামী!

পার্বতীপুরে জমির মালিকানা নিয়ে মামলা ॥ ঘটনাস্থলে না থেকেও আসামী!

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 13 September, 2019 | 8:50:00 PM

দিনাজপুর থেকে বিশেষ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওযেব : পার্বতীপুর পৌর শহরের রিয়াজনগর মহল্লার জমির মালিকানা নিয়ে দু’পক্ষের দ্বন্দ্ব চরমে। বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছে। দু’টি দাগের আংশিক সম্পত্তি দু’পক্ষই কবলামূলে মালিকানা দাবি করছেন। এক পক্ষ কাগজ দেখালেও অপর পক্ষ কাগজ দেখাতে অপাগতা প্রকাশ করে বলেন এ নিয়ে সিভিল আদালতে মামলা চলছে। জানা গেছে, দিনাজপুরের সিভিল আদালতে স্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আবেদন করে দোতরফা শুনানীঅন্তে বাদী মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম মন্ডল এর আবেদন নামঞ্জুর হওয়ায় প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। ফলে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে বাদি নিজেই ২৫ আগষ্ট দেয়ালের ইট ভাংগতে গিয়ে আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন বলে বিবাদীদের অভিযোগ। অতঃপর শত্রুতামূলকভাবে ব্যাংকের সাবেক ও বর্তমান ম্যানেজারেসহ ৫ জনের নামে হয়রানীমূলক গত ২৯ আগস্ট থানায় মামলা করায় সেখানে উত্তেজনা বিরাজ করছে। ঘটনাটি ঘটে দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের রিয়াজনগর মহল্লায়। ঘটনার দিন বিবাদীগণ ঘটনার সময় কেহই উপস্থিত ছিলেন না বলে দাবি করেন। সেখানে শুধু মাত্র ইমারত নির্মাণ কর্মীরা ছিলেন। আর ওইদিন ১নং বিবাদীর ছেলে অগ্রণী ব্যাংক’র ব্যবস্থাপক মিজানুর রহমান মাদিলাহাট শাখা, ফুলবাড়ীতে কর্মরত ছিলেন। এব্যাপারে দিনাজপুর অগ্রণী ব্যাংক এর ডিজিএম জানান, ফুলবাড়ীর মাদিলাহাট শাখার ব্যবস্থাপক মিজানুর রহমান গত ২৫ আগষ্ট ব্যাংকে উপস্থিত ছিলেন। এদিকে, পার্বতীপুর পৌর শহরের রিয়াজনগর মহল্লার পার্বতীপুর মৌজার ৫৯৫৩ দাগে ৩১ শতকের মধ্যে আড়াই শতক ও ৫৯৫০ নং দাগে ২৯ শতকের মধ্যে ১ শতক জমি ক্রয় সুত্রে মালিক মোজাহারুল ইসলাম (অবসর প্রাপ্ত ব্যাংক ম্যানেজার)। তিনি ৫৯৫৩ দাগে ০১ শতক ও ৫৯৫০ দাগে ০১ শত সম্পত্তির মালিক আব্দুস সোবহান সরকার আদালতে টাকা দাখিল করে সম্পত্তি মালিক হন (যার মিস কেস নাম্বার ২৬/৯৩)। এছাড়াও তার পৈত্রিক সূত্রে উক্ত দুই দাগে দেড় শতকসহ সর্বমোট সাড়ে ৩ শতক জমি গত ২০০৭ ইং সালের ২২ জানুয়ারী বিক্রি করেন রিয়াজনগর মহল্লার মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে মোজাহারুল ইসলাম এর নিকট। মোজাহারুল গত ২০০৭ সালের ২৭ মার্চ খারিজ করেন (যার হোল্ডিং নং ২৬৭৯) এবং মাঠ পর্চা করেন (যার ডিপি নং ১৮২৭)। তাছাড়া বাড়ি নির্মাণের জন্য পৌরসভা থেকে গত ২০১৪ সালের ২০ ফেব্রুয়ারী বাড়ির প্লান অনুমোদিত হয়। অপরদিকে, গত ২৫ আগস্ট মোজাহারুল বাড়ির কাজ করার সময় মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম মন্ডল ক্ষিপ্ত হয়ে নিজেই মইয়ে চড়ে সদ্য নির্মিত সিড়ির প্রাচীর কাজ করা ইটগুলো মাটির নিচে ফেলতে শুরু করে। এসময় অবসাবধনতায় কয়েকটি ইট মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম মন্ডল এর মাথায় ও শরীরে পড়লে সে আহত হয় বলে নির্মাণ শ্রমিকরা জানান। পরে তিনি স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি হয়। মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম মন্ডল এরকম বেশ কয়েক মাস থেকে প্রকাশ্যে হুমকি দেয়ায় চলতি সালের ২ মে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম মন্ডল এর বিরুদ্ধে পার্বতীপুর মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করা হয়। যার ডায়েরী নং ৮৫। এ বিষয়ে রিয়াজনগর মহল্লার হাসান আলী, আশরাফুল আলম, রফিকুল ইসলাম জানান, মোজাহরুল ইসলামের বাড়ির কাজ উদ্বোধনের সময় দোয়া মাহফিলে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম মন্ডল অংশ নিয়ে নিজেই তবারক বিতরণ করেন। তবে এব্যাপারে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম মন্ডল বলেন, প্রতিক্ষরা সকলেই মিলে আমাকে মেরেছে, ইটের আঘাতে আমি আহত হয়েছি কথাটি অস্বীকার করেন এবং প্রতিপক্ষের বাড়ির প্রথম তলা ভিত্তির সময় আমি ঢাকায় ছিলাম। এব্যাপারে মামলার তদন্তকারী অফিসার জানান, মামলার তদন্ত কাজ চলমান।