Home » » কিশোরগঞ্জে গরু চুরি মামলার ১মাস ১০ দিনেও গ্রেফতার হয়নি আসামীরা

কিশোরগঞ্জে গরু চুরি মামলার ১মাস ১০ দিনেও গ্রেফতার হয়নি আসামীরা

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 10 September, 2019 | 5:02:00 PM

মিজানুর রহমান,কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলায় গরু চুরি মামলার করার ১মাস ১০ দিনেও গ্রেফতার হয়নি আসামী যুবলীগ কর্মী মোসাদ্দেক হোসেন (৩০)সহ অন্যান্য আরো ৩ আসামী।
আসামীদের মামলা তোলার হুমকিতে দিশেহারা পরেছে বাদী ও তার পরিবারবর্গ। ওই আসামীরা গত রোববার দুপুরে পলিশের সামনে মারপিট করে মামলার বাদী ও তার পরিবারের সদস্যদের। ঘটনাটি নিতাই ইউনিয়নের ডঙ্গাপাড়া গ্রামে।
মামলার এজাহার ও সরেজমিন পরিদর্শনে জানা গেছে, নিতাই ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে সেরাজুল ইসলামের ১লাখ টাকা মূল্যের একটি অষ্ট্রেলিয়ান জাতের গাভী চুরি হয় গত ৩০ জুলাই রাতে। পরদিন নিতাই কাচারী বাজার গ্রামের সফিয়ার রহমানের ছেলে সুমনের বাড়ী থেকে গরুটি উদ্ধার করে ওই ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য শহিদুল ইসলাম, ৭নম্বর ওয়াড সদস্য আব্দুল বারেক ও গ্রাম পুলিশ সর্দ্দি মামুদ। এসময় সুমন জানায় তার বাড়ীতে গরুটি রেখে গেছে বাড়ী মধুপুর কুঠিয়াল পাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামরে ছেলে যুবলীগ কর্মি মোসাদ্দেক হোসেন ও একই এলাকার তহিদুল ইসলাম, লালবাবু এবং হাফেজু ইসলাম।
এ ঘঠনায় কৃষক সেরাজুল ইসলাম থানায় ওই দিনেই গরুচুরির মামলা দিলেও পুলিশের অনেক নাটাকিয়তার পর মামলাটি ২২ দিন পর গত ৬ আগষ্ঠ রুজু করা হয়। মামলা নম্বর জি আর ১০৫/১৯। বাদী সেরাজুল ইসলাম বলেন, মামলা দায়েরের পর আসামীরা প্রতিনিয়ত মামলা তোলার হুমকি দিতে থাকে। মামলা তোলা না হলে আমাকে ও আমার পরিবারে সদস্যদের প্রানে মেরে ফেলবে বলে আসামীরা প্রকাশ্যে অপ্রকাশ্যে বলে বেড়ায়। 
আমি রিুপায় হয়ে আমার এবং আমার পৃরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা চেয়ে গত ১৯ আগষ্ঠ ফৌজদারী কার্যবিধির ১০৭ ধারায় কোটে একটি মামলা করি।
আদালতের বিচারক মামলাটি তদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ থানাকে নির্দ্দেশ দেয়। তদন্তক্রী কর্মকর্তা এস আই আজিজ মামলা তদন্ত করার জন্য গত ৮ আগষ্ঠ সরেজমিনে আসলে তার সামনেই আমাকে ও আমার পরিবারের সদস্যদের আসামীরা মারপিট করে। পুলিশ তাদের কিছুই করেনি।
তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আজিজ বলেন আমার সামনে মারপিটের ঘটনা ঘটেনি । শুনেছি আমি চলে আসার পর গেঞ্জাম হয়েছে। তাছারা মামলাটি তদারকির দায়িত্বে রয়েছে সার্কেল স্যার। তিনি ঢাকায় আছেন। ঢাকা থেকে আসলে মামলাটির একটা সুরাহ হবে।