Home » » সীমান্তে সবার সহযোগীতা পেলে চোরা চালান বন্ধ করা সম্ভব লেঃ কর্ণেল মোঃ শরীফ উল্লাহ আবেদ (এসজিপি)

সীমান্তে সবার সহযোগীতা পেলে চোরা চালান বন্ধ করা সম্ভব লেঃ কর্ণেল মোঃ শরীফ উল্লাহ আবেদ (এসজিপি)

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 07 August, 2019 | 11:55:00 PM

আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : সীমান্তে সবার সহযোগীতা পেলে চোরা চালান বন্ধ করা সম্ভব। তাই সাংবাদিক ভাইয়েরা আপনাদের লেখনিতে সমাজের মানুষ সচেতন হবে এবং সীমান্তে চোরাচালান ও মানুষ হত্যা অবশ্যই কমে যাবে। মাননীয় প্রধান মন্ত্রী বলেছেন, যারা চোরাচালান ছেড়ে ভালো পথে আসবে তাদেরকে অবশ্যই পূর্ণবাসন করা হবে। আমরা সেই প্রতিশ্রুতিতে চোরাকারবারীদেকে অসৎ পথ ছেড়ে ভালো পথে আসার আহ্ববান জানাচ্ছি। যারা এই অসৎ অবৈধ মাদক ব্যবসা ছেড়ে দিয়ে ভালো পথে আসবে তাদেরকে জীবন জীবিকা চালানোর জন্য আমরা সার্বিক সহযোগীতা করব। যাতে কেউ যেন এই মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত না হয়। সীমান্তে এখন চোরাচালান ও মানুষ হত্যা শূণ্যের কোঠায় এসেছে। সীমান্তে যারা বসবাস করে তাদেরকে আমরা আরো সচেতন হওয়ার আহ্ববান যানাচ্ছি। তাদের ছেলে মেয়েরা কোন পথে যাচ্ছে সে দিকেও অভিভাবকদেরকে সজাগ থাকতে হবে। এই দেশটা আমাদের সবার, তাই আমরা এগিয়ে না এলে এই সমাজ পিছিয়ে পড়বে। মাদক সমাজকে এবং একটি পরিবারকে ধ্বংস করে। এই মাদকের হাত থেকে বাঁচতে হলে সবাইকে সচেতন হতে হবে। তিনি আরো বলেন, ব্যাটালিয়নের দায়িত্বভার গ্রহনের পর হতে দিন রাত অক্লান্ত পরিশ্রম ও কঠোর হস্থে সীমান্তে চোরা চালান প্রতিরোধে অগ্রানী ভূমিকা পালন করে আসচ্ছি। দিক নিদের্শনা ও দূরদর্শিতায় সীমান্তে কমে এসছে ভয়াবহ মাদক সহ চোরাই পণ্য পাচার। এছাড়া তিনি নিয়মিত ভাবে চোরাচালান, মাদক, সীমান্তে অবৈধ অনুপ্রবেশ, নারী শিশু এবং মানব পাচার প্রতিরোধে জনসচেতনতা মূলক সভার সমাবেশ অব্যহত রেখেছেন। বুধবার ৭ আগষ্ট বিকেল ৪ টায় ফুলবাড়ী ২৯ বিজিবি’র সদর দপ্তরের হল রুমে সাংবাদিকদের নিয়ে এক পরিচিতি সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে লেঃ কর্ণেল মোঃ শরীফ উল্লাহ আবেদ (এসজিপি) এ কথা বলেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন ফুলবাড়ী ২৯ বিজিবি’র মেডিকেল অফিসার মেজর মোঃ তাহের, ২৯ বিজিবি’র ডিআইডি মোঃ সাইদুর রহমান। সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময় সভায় পদস্থ কর্মকর্তা, সৈনিকগণ ও প্রায় শতাধিক সাংবাদিক উপস্থিত ছিলেন।