Home » » পঞ্চগড়ে বোদায় পরিবেশ বান্ধব ইটভাটার বাণিজ্যিক উৎপাদন কার্যক্রমের উদ্বোধন

পঞ্চগড়ে বোদায় পরিবেশ বান্ধব ইটভাটার বাণিজ্যিক উৎপাদন কার্যক্রমের উদ্বোধন

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 14 April, 2019 | 11:23:00 PM

আমির খসরু লাবলু, পঞ্চগড় ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : পঞ্চগড় জেলার বোদা উপজেলার কামাত সাকোয়া এলাকায় কৃষি জমি নষ্ট ও পরিবেশের ক্ষতি করে না এমন পরিবেশ বান্ধব ইটভাটার বাণিজ্যিক উৎপাদন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। রোববার (১৪ এপ্রিল) দুপুরে রেলপথ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম সুজন আনুষ্ঠানিকভাবে এই বাণিজ্যিক উৎপাদন কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পঞ্চগড় জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার সাদাত স¤্রাট বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এএন্ডএ অটো ব্রিকস ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এইচ এম জাহাঙ্গীর আলম রানা অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন। আওয়ামীলীগ নেতা মনিরুল কাদেরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে সাকোয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যাস সায়েদ জাহাঙ্গীর হাসান সবুজ, চন্দনবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম প্রধান বক্তব্য রাখেন। পঞ্চগড় জেলায় কৃষি জমি নষ্ট ও পরিবেশের ক্ষতি করে না এমন পরিবেশ বান্ধব ইটভাটার বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু করে এএন্ডএ অটো ব্রিকস ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেড নামে একটি প্রতিষ্ঠান। সলিড ও হলো ব্রিকস নামে দুই প্রকার ইট উৎপাদন করছে প্রতিষ্ঠানটি। পরে মন্ত্রী এএন্ডএ অটো ব্রিকস ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেডে উৎপাদিত সলিড ও হলো ব্রিকস উৎপাদন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। এএন্ডএ অটো ব্রিকস ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার মো. আনোয়ার হোসেন জানান, পঞ্চগড় জেলার বোদা উপজেলার সাকোয়া কামাতপাড়া এলাকায় জার্মান প্রযুক্তি ও চীনা কারিগরী সহায়তায় এ এন্ড এ অটোমেটিক ব্রিকস ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেড নামে একটি প্রতিষ্ঠান বৃহত্তর দিনাজপুর জেলায় প্রথম উন্নত মানের পরিবেশ বান্ধব ইট উৎপাদন শুরু করেছে। অত্যাধুনিক এই মেশিনে দৈনিক ৮০ হাজার ইট উৎপাদনে সক্ষম। তবে আপাতত চাহিদার ভিত্তিতে দৈনিক ২৫/৩০ হাজার ইট উৎপাদন করছে। এএন্ডএ অটো ব্রিকস ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এইচ এম জাহাঙ্গীর আলম রানা জানান, ভূমি, পরিবেশ ও বায়ুমন্ডলের মারাত্মক ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পাবে পঞ্চগড় জেলার মানুষ। কৃষি জমি নষ্ট ও পরিবেশের ক্ষতি করে না এমন পরিবেশ বান্ধব ইট উৎপাদন বাণিজ্যিকভিত্তিতে শুরু হয়েছে। ইট তৈরি করা, শুকানো ও পোড়ানোতে এখন অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহৃত হওয়ায় উন্নত মানের নিখুঁত, দৃষ্টি নন্দন, সাইজ অনুযায়ী প্রতিটি ইট একই মানের তৈরি করা সম্ভব। তবে ঘর-বাড়িসহ সকল প্রকার অবকাঠামোতে অটো ইট ব্যবহার করলে কৃষি জমি রক্ষার পাশাপাশি পরিবেশ রক্ষা করা সম্ভব হবে। তিনি জানান, বিএসটিআই কর্তৃক স্ট্যান্ডার্ড নির্ধারিত এবং বুয়েট কর্তৃক পরীক্ষিত, উন্নত মানের নিখুঁত, দৃষ্টি নন্দন, সাইজ অনুযায়ী প্রতিটি ইট একই মানের হওয়ায় নির্মাণে সাধারণ ইটের চেয়ে শতকরা ১৭ ভাগ ব্যয় সাশ্রয়ী, সাধারণ ইটের চেয়ে দিগুণেরও বেশি স্থায়ীত্বসহ নানা বৈশিষ্ট্য বিদ্যমান। কাঁদাযুক্ত লবণাক্ত ও কৃষি কাজে ব্যবহার অনুপযোগী মাটি প্রক্রিয়াজাত করে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে এখানে ইট তৈরি করা হয়ে থাকে। প্রতি হাজার ফাস্ট ক্লাশ ইট সাড়ে ৮ হাজার এবং সেকেন্ড ক্লাশ ইট সাড়ে ৭ হাজার টাকা দরে বিক্রি করা হচ্ছে। কম জ¦ালানী ব্যয়অদাহ্য ও অস্বাস্থ্যকর কালো ধোঁয়া নির্গত হয় না। ফলে এ প্রতিষ্ঠানের আশপাশ এলাকার কৃষি জমি নষ্ট হয় না, গাছপালা ও ফসল উৎপাদনের উপর কোনো ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে না। মানুষের মধ্যে এই ইট সম্পর্কে ভাল ধারনা না থাকায় এখনও তেমস চাহিদা তৈরী হয়নি। তিনি আরও জানান, উন্নত মানের নির্মাণ কাজের জন্য আধুনিককালে অটো ব্রিকস একটি অত্যাবশ্যকীয় উপকরণ। আবাসিক ভবন, কলকারখানা, রাস্তাঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট অত্যন্ত মজবুত ও দীর্ঘস্থায়ী নির্মাণের জন্য অটো ব্রিকসের ব্যবহারের বিকল্প নেই। তিনি জানান, চলতি বছরের জানুয়ারিতে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সাক্ষরিত একটি চিঠি দেশের সকল সরকারী দপ্তরে পাঠানো হয়েছে। সে চিঠিতে সরকার পরিবেশবান্ধব ইট ব্যবহারেরর তাগাদা দিলেও এলজিইডি, পিডাব্লিউডি, ইইডি, রোডস এন্ড হাইওয়ে, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরসহ ইট ব্যবহারকারী সরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহ এখনো টেন্ডার সিডিউলে পরিবেশ বান্ধব অটো ব্রিকস অন্তভুক্ত করেননি। ফলে সরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহ পরিবেশবান্ধব অটো ব্রিকসের ব্যবহার শুরু করেননি। এমতাবস্থায় সরকারি প্রতিষ্ঠানের টেন্ডার সিডিউলে পরিবেশবান্ধব অটো ব্রিকস অন্তভুর্ক্ত করে এর ব্যবহার ত্বরান্বিত করলে পরিবেশবান্ধব এসব প্রতিষ্ঠান টিকে থাকতে পারবে এবং পরিবেশের জন্য অবদান রাখতে পারবে। এসব প্রতিষ্ঠান টিকে থাকার জন্য ব্যাংক ঋণের সুদের হার কমানোর বিষয়ে তিনি সরকারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, উন্নয়ন নগরায়ন এবং আবাসনে ইট একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। গতানুগতিক ধারার যে ইট ভাটা রয়েছে তা পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতি করে। আধুনিক অটো ভাটা গড়ে উঠলে পরিবেশ দূষণ অনেকাংশে দুর হবে। এজন্য পরিবেশ রক্ষায় আধুনিক ইট ভাটা গড়ে তুলতে হবে। মন্ত্রী কোনভাবেই যেন ফসলী জমির টপসয়েল ইটভাটায় ব্যবহার না হয় সেজন্য সকলকে সজাগ থাকতে বলেছেন। মন্ত্রী আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক দর্শন ছিল গরীব দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফুটানো। ভিক্ষুকের জাতি হিসেবে নয়, আত্মনির্ভরশীল জাতি হিসেবে তিনি বাংলাদেশকে গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন। আজ তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুদুর প্রসারি চিন্তা নিয়ে দেশকে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। তার এই উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়নে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।#