Home » » দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক সড়ক ১০৭ কিলোমিটার ৩ লেন নির্মাণে ৮৮৩ কোটি টাকা বরাদ্দ

দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক সড়ক ১০৭ কিলোমিটার ৩ লেন নির্মাণে ৮৮৩ কোটি টাকা বরাদ্দ

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 20 February, 2019 | 11:06:00 PM

স্বরূপ বকসী বাচ্চু, দিনাজপুর ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক সড়ক ১০৭ কিলোমিটার ৩ লেন নির্মাণ কাজে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর ৮৮৩ কোটি টাকা বরাদ্দ প্রদান করায় ৯টি প্যাকেজে রাস্তা নির্মাণের কাজ শুরুর জন্য ঠিকাদার নিয়োগে দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। দিনাজপুর সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী সুনীতী চাকমা জানান, বুধবার এই রাস্তার ১০৭ কিলোমিটার ৩ লেন নির্মাণ কাজের জন্য দরপত্র আহ্বানের মাধ্যমে প্রথম পর্যায়ে ৯টি প্যাকেজের ৪ জন ঠিকাদার নিয়োগ করা হয়েছে। দ্বিতীয় প্যাকেজে পুনরায় দরপত্র আহ্বানের মাধ্যমে ৫ জন ঠিকাদার নিয়োগ করা হবে। ওই ৫ জন ঠিকাদারের মধ্যে ৪ জন এই জেলার মধ্যে এবং অপর ১ জন গাইবান্ধা জেলার মধ্য রয়েছে। নির্মাণ কাজে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর থেকে ৮৮৩ কোটি টাকা বরাদ্দ প্রদান করেছে। এর মধ্যে এই জেলায় ৯২ কিলোমিটার রাস্তা নির্মাণে ৮টি প্যাকেজে ব্যায় হবে ৭৮২ কোটি টাকা এবং গাইবান্ধা জেলায় অবস্থিত ১৫ কিলোমিটার রাস্তায় ব্যয় হবে ১০১ কোটি টাকা। তিনি জানান, যুগোপযোগী, টেকসই পদ্ধতি ব্যবহারে রাস্তা নির্মাণের জন্য জরিপ কাজ শুরু করা হয়েছে। রাস্তার উভয়পার্শ্বে বিদ্যুতের পোল, টেলিফোন লাইন ও অন্যান্য খুটি অপসারণের জন্য অতিরিক্ত ৩ কোটি টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। প্রাপ্ত অর্থ ব্যয়ে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর বিদ্যুতের পোল, টেলিফোন লাইন ও অন্যান্য খুটি অপসারণের কাজ শুরু করেছে। রাস্তার উভয় পার্শ্বে অবৈধ স্থাপনা এবং হাটবাজারের অবৈধ দোকানঘর অপসারণের জন্য প্রচারনার মাধ্যমে ও নোটিশ দিয়ে সংশ্লিষ্টদের তাগিদ দেয়া হচ্ছে। নির্মিত রাস্তায় ৩ লেনে ৩২ ফুট প্রস্থ পাকা রাস্তা নির্মাণ করা হবে। এছাড়া রাস্তার উভয় পার্শ্বে ৪ ফুট করে খোয়া কনসলিশনের মাধ্যমে ফুটপাত নির্মাণেরও ব্যবস্থা রয়েছে। চলতি বছরেই এই রাস্তায় নির্মাণ কাজ খুব শিঘ্রই শুরু করা হবে। এদিকে বুধবার দুপুর ১২টায় দিনাজপুর শহরের পলিটেকনিক্যাল মোড়ে ড্রোন চালু করে স্যাটেলাইট ম্যাপ জরিপের কাজ শুরু করা হয়। জরিপ কাজ উদ্বোধন করেন সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী সুনীতি চাকমা। সূত্রটি জানায়, এই জরিপটি সম্পন্ন করতে ১টি সংস্থাকে নিয়োজিত করা হয়েছে। ওই সংস্থার সহকারী প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান জানান, রাস্তায় দুর্ঘটনা প্রতিরোধে প্রতিটি মোড়ে পর্যবেক্ষণ টাওয়ার স্থাপন করতে এই আধুনিক পদ্ধতি ড্রোন ব্যবহারে যানবাহনের গতিবেগ নিয়ন্ত্রণ এবং জনগনের অবাধ রাস্তা পারাপারের অবস্থান পরিমাপ ও পর্যবেক্ষণ করে টাওয়ার স্থাপনে পরামর্শ থাকবে। রাস্তায় এ ধরনের টাওয়ার নির্মান হলে যানবাহনের গতিবেগ নিয়ন্ত্রণ করা সহজ হবে বলে তিনি জানান।