Home » » বদরগঞ্জে উপকারভোগী সদস্যরাই কাটছেন সামাজিক বনায়নের গাছ

বদরগঞ্জে উপকারভোগী সদস্যরাই কাটছেন সামাজিক বনায়নের গাছ

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 21 January, 2019 | 11:38:00 PM

আকাশ রহমান, বদরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার সামাজিক বনায়ন প্রকল্পের অধিনে অর্ধ শতাধিক সড়কের ধারে লাগানো হয়েছে বিভিন্ন প্রজাতের মুল্যবান গাছ। রোপনের ২০-২২ বছর পর গাছগুলোর পরিপূর্ণ বয়স হলেও কর্তনের জন্য সরকারী অনুমতি না থাকায় উপকারভোগী সদস্যরা নিজেরাই সড়কের গাছপালা কেটে সাবাড় করছে। যার ফলে প্রতি বছর বনায়ন প্রকল্পের লভ্যাংশের অংশ লক্ষ লক্ষ টাকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সরকার। রংপুর জেলা বন বিট অফিস সুত্র জানায়, বদরগঞ্জ উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের প্রায় অর্ধ শতাধিক কাঁচা পাকা সড়ক, রেললাইন ও ক্যানেলের ধারে ২০-২২ বছর পুর্বে রোপন কর হয়েছে আকাশমণি, ইউক্যালিপ্টাস, মেহগনি, এন্ট্রি কড়াইসহ বিভিন্ন প্রজাতের বনজ ও ফলজ বৃক্ষ। কিন্তু গাছ কর্তনের সরকারী অনুমতি না থাকায় উপকারভোগী কমিটির দায়িত্ব প্রাপ্ত ব্যক্তিরা বাধ্য হয়ে নিজেরাই গাছপালাগুলো কেটে সাবাড় করছে। এ ব্যাপারে গতকাল সোমবার উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের সামাজিক বনায়নের উপকারভোগী কমিটির অন্যান্য সদস্যরা আক্ষেপ করে বলেন, আমরা গাছ লাগানোর পর দীর্ঘদিন ধরে শিশু সন্তানের মত যতœ করে সেগুলো বড় করেছি। অথচ আমাদেরকে সরকার গাছ কাটার অনুমতি না দেওয়ায় কমিটির দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিবর্গ গাছ চোরদের সাথে আঁতাত করে প্রতি রাতে গাছ কেটে সাবাড় করে ফেলছে। যার ফলে আমরা সাধারণ সদস্যরা আমাদের প্রাপ্য লভ্যাংশ থেকে বঞ্চিত হওয়ার পাশাপাশি প্রতি বছর সরকার হারাচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকার রাজস্ব। তাই আমরা সামাজিক বনায়ন প্রকল্পের অধিনে লাগানো গাছ কর্তনের অনুমতির জন্য উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছি। উপজেলা বিট কর্মকর্তা মোরশেদ আলম বলেন, বন বিভাগের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ সামাজিক বনায়নের অধিনে রোপনকৃত মুল্যবান গাছপালা কর্তনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। খুব শীঘ্রই উপজেলায় এ সংক্রান্ত একটি মিটিং করা হবে।