Home » » এবারই প্রথম কম্বল পেলাম আমরা

এবারই প্রথম কম্বল পেলাম আমরা

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 14 January, 2019 | 8:35:00 PM

মনিরুজ্জামান লেবু,জলঢাকা প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : নীলফামারী জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে যাযাবর (বেঁদে) সম্প্রদায়ের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়েছে । রোববার রাতে(১৩ জানুয়ারী) পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি সংলগ্ন খোলা আকাশের নিচে ˆছ করে থাকা ওইসব সহায় সম্বলহীন ৩০ পরিবারের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন জেলা প্রশাসক বেগম নাজিয়া শিরিন। বিতরণকালে নীলফামারী পৌরসভার মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) আজাহারুল ইসলাম, জেলা ত্রাণ ও পুর্নবাসন কর্মকর্তা পুদম পুষ্প চাকমা, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফা সুলতানা লাভলী, মশিউর রহমান ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ সারওয়ার মানিক উপস্থিত ছিলেন। সেখানে দুই সন্তান নিয়ে থাকা ঢাকা জেলার সাভার উপজেলার দেলোয়ার হোসেনের স্ত্রী আজিমা বেগম(৩৫) জানান, কি যে কষ্ট করি হামরা থাকি, তা আল্লাহ ছাড়া কাহো জানে না। কম্বল পেয়া শীতের রাইতোত খবুই উপকার হইলো। কেউ খবরো রাখে না আমাদের। বেঁদে সম্প্রদায়ের সর্দার আব্দুর রউফ জানান, আমরা এখানে ৩০/৩৫ জনের মত থাকি। অনেক কষ্ট করে থাকতে হচ্ছে এখানে আমাদের। শীত কাবু করে ফেলেছে। তিনি বলেন, এতদিন থেকে বাহিরে দিন কাটাচ্ছি কেউ আমাদের খবর রাখে নি। এবারই প্রথম আমরা কম্বল পেলাম। আমরা ডিসি স্যারের মঙ্গল কামনা করি। পিছিয়ে পড়া ওইসব মানুষদের খুঁজে বের করেন নীলফামারী পৌরসভার মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ। তিনি বলেন, সচরাচর হতদরিদ্র মানুষদের মাঝে কম্বল দেয়া হয় বিভিন্ন উদ্যোগে। কিন্তু এদের খবর অগোচরে থাকে। যার কারণে তাদের খোঁজ করে কম্বল দেয়ার উদ্যোগ নেই। জেলা প্রশাসক বেগম নাজিয়া শিরিন জানান, বেঁদে জনগোষ্ঠি হারিয়ে যেতে বসেছে। কিছু থাকলেও তারা অনেক পিছিয়ে পড়েছে। শীতের রাতে এভাবে কষ্টে অতিক্রম করছে যা ভাববার বিষয় আমাদের। তাদের একটু হলেও সহযোগীতা করতে পেরে আমি খুশি। এ সময় বেঁদের সন্তানদের গরম কাপড় দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। পরে শহরের বড় মাঠ এলাকায় দুই’শ হরিজন সম্প্রদায়ের মানুষের মাঝে এবং আল জামিয়াতুল রহমানিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানায় তিন’শ কম্বল বিতরণ করেন জেলা প্রশাসকসহ অতিথিগণ। নীলফামারী সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফা সুলতানা লাভলী জানান, জেলা প্রশাসনের সহযোগীতায় এবং জেলা প্রশাসক বেগম নাজিয়া শিরিন মহোদয়ের দিকনির্দেশনায় আমরা সরেজমিনে গিয়ে হতদরিদ্র সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের মাঝে কম্বল বিতরণ করছি। একজন নারী জেলা প্রশাসক হয়েও তিনি সার্বক্ষনিক আমাদের পাশে থাকতে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।