Home » » চিরিরবন্দরে মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষাকে বাস্তবমূখী করতে শিক্ষা বিভাগের নানামূখী উদ্যোগ

চিরিরবন্দরে মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষাকে বাস্তবমূখী করতে শিক্ষা বিভাগের নানামূখী উদ্যোগ

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 05 October, 2018 | 11:16:00 PM

দেলোয়ার হোসেন বাদশা, চিরিরবন্দর প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষাকে বাস্তবমূখী করতে শিক্ষা বিভাগ ব্যাপক উদ্যোগ গ্রহন করেছে। উপজেলা শিক্ষা অফিসার এমজিএম সারোয়ার হোসেন জানান, স্থানীয় জনগনকে উদ্বুদ্ধ করে উপজেলার ১৯৮ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ৩৪টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণি কক্ষে টাইলস লাগানোসহ শ্রেণি কক্ষকে সুসজ্জিত করা হয়েছে। এছাড়া সকল বিদ্যালয়ে একই ডিজাইনের পতাকা বেদী নির্মান করা হয়েছে। শুধু তাই নয় উপজেলা শিক্ষা ভবনের ছাদে কৃষি বিভাগের সহায়তায় একটি উন্নত ও দুর্লভ জাতের ফলজ বাগান করা হয়েছে। শিক্ষা ক্ষেত্রে বর্তমান সরকারের যে ভিশন তা শতভাগ বাস্তবায়ন করতে উপজেলার প্রতিটি বিদ্যালয়ে মিড-ডে মিল চালুসহ ৯৮টি বিদ্যালয়ে মাল্টিমিডিয়া কার্যক্রমকে গতিশীল রাখতে সার্বক্ষনিক মনিটরিং এর মাধ্যমে প্রদেয় ল্যাপটপ সচল রাখা হয়েছে। এতে কওে শিশু শিক্ষার্থীরা মাল্টিমিডিয়ার সম্যক ধারনা পাচ্ছে যা বর্তমান সরকারের পরিবর্তন শিক্ষা ব্যবস্থার একটি মাইল ফলক। এছাড়া শতভাগ কাবিং কার্যক্রম চালু করার জন্য প্রতিটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় হতে একজন করে কাব শিক্ষকের প্রশিক্ষন সমাপ্ত করা হয়েছে। ১৯৮ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে সাতটি ক্লাস্টারে ভাগ করা হয়েছে। এরমধ্যে দু’টি ক্লাস্টারের সাড়ে তিন’শ শিক্ষকের ইউনিফরম নিশ্চিত করা হয়েছে বাকী ৫টি ক্লাস্টারের সকল শিক্ষককে ইউনিফরম নিশ্চিত করার প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে। শিক্ষা অফিসার আরও জানান, গত বছরের সমাপনী পরীক্ষার ফলাফলে চিরিরবন্দর উপজেলা যৌথভাবে জেলায় প্রথম স্থান লাভ করে। ফলাফলের এ অবস্থানকে ধরে রাখতে ও শিক্ষা পদ্ধতি আরও আধুনিকায়নে সরকারের সকল পদক্ষেপকে বাস্তবায়ন করতে নানামূখী উদ্যোগ গ্রহন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে প্রতিটি বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতের লেখা সুন্দর করার জন্য কর্মসূচী হাতে নেয়া হয়েছে। অতিরিক্ত কর্মসূচীর পাশাপাশি নিয়মিত রুটিন কার্যক্রম যাতে কোনভাবে ব্যাহত না হয় সেদিকে সার্বক্ষনিক নজরদারিতে রাখা হয়েছে। গত বছরের ২৬ অক্টোবর উপজেলা শিক্ষা অফিসার এমজিএম সারোয়ার হোসেন শিক্ষা অফিসার হিসেবে যোগদানের পর হতে তার প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থায় সন্তোষজনক তৎপরতার জন্য তিনি গত তারিখে দিনাজপুর জেলায় শ্রেষ্ঠ উপজেলা শিক্ষা অফিসার নির্বাচিত হন। তার এই কার্যক্রম ও গতিশীল প্রক্রিয়ার জন্য তিনি শিক্ষার্থী অভিভাবকের কাছে অতি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন।