Home » » বদরগঞ্জে চাকুরি দেয়ার নামে অধ্যক্ষ ও শিক্ষকের বিরুদ্ধে ৫ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

বদরগঞ্জে চাকুরি দেয়ার নামে অধ্যক্ষ ও শিক্ষকের বিরুদ্ধে ৫ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 30 October, 2018 | 11:38:00 PM

আকাশ রহমান, বদরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : রংপুরের বদরগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ ও এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিক্ষক নিয়োগের নামে এক ব্যক্তির ৫ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। শুধু তাই নয় ওই আবেদনকারি যুবকের সকল সনদের মুল কপি ফেরৎ না দেয়া, হুমকি দেয়া সহ মারধরেরও অভিযোগ পাওয়া গেছে ওই অধ্যক্ষ ও কলেজ শিক্ষকের বিরুদ্ধে। অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, ২০১৫সালে বদরগঞ্জ ডিগ্রি কলেজে বাংলা বিভাগের শিক্ষক নিয়োগের একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়। এরই ধারাবাহিকতায় বদরগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মাজেদ আলি ও বাংলা বিভাগের শিক্ষক মমিনুল হক বদরগঞ্জ ডিগ্রি কলেজে চাকুরি দেয়ার নাম করে রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার ইসমাইলপুর গ্রামের আঃ ফাত্তাহ্র ছেলে রাশেদুল ইসলাম দুলুর কাছে চাকুরি দেয়ার বিনিময়ে ১০লক্ষ টাকা চুক্তি হয়। এর মধ্যে রাশেদুল ইসলাম নগদ ৫ লক্ষ টাকা অধ্যক্ষ ও ওই শিক্ষককে প্রদান করেন। শুধু তাই নয় অবশিষ্ট ৫ লক্ষ টাকার পরিবর্তে ওই যুবকের কাছ হতে তার সকল সনদের মুল কপি তারা (অধ্যক্ষ ও শিক্ষক) নিজ জিম্মায় নেয়। দীর্ঘদিন অতিবাহিত হয়ে গেলেও ওই যুবকের চাকুরিতো হয়নি উপরন্তু তার সকল সনদের মুল কপি চাইতে গেলে তাকে মারধোর সহ হুমকি ধামকি দেয়া হয়। ভুক্তভোগি রাশেদুল ইসলাম জানান, তারা (অধ্যক্ষ ও শিক্ষক) আমার জীবনটাকে শেষ করে দিয়েছে। আমার বাড়ি থাকলেও সেখান হতে আমাকে বের করে দেয়া হয়েছে। এমনকি বৌ-বাচ্চার মুখও আমি দেখতে পারিনা। আমার মুল সনদগুলো ফেরৎ না দেয়ার কারনে আমি অন্য কোথাও চাকুরির আবেদন পর্যন্ত করতে পারছি না। এ বিষয়ে ভুক্তভোগি রাশেদুল ইসলাম বদরগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এ বিষয়ে কলেজ অধ্যক্ষ মাজেদ আলি জানান, আমি এ ঘটনার সাথে জড়িত নই। অভিযোগকারি বলতে পারবে সে কাকে টাকা দিয়েছে। শিক্ষক মমিনুল হক টাকা নেয়া বিষয়টি অস্বীকার করে জানান, আমাকে বিব্রত করার জন্য সে (রাশেদুল) এ কাজগুলো করছে। বদরগঞ্জ থানার ওসি আনিছুর রহমান অভিযোগ প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, দুই পক্ষকে নিয়ে বিষয়টি সুরাহার চেষ্টা করা হচ্ছে।