Home » » যুবলীগ নেতাকে মারধর করার প্রতিবাদে মানববন্ধন

যুবলীগ নেতাকে মারধর করার প্রতিবাদে মানববন্ধন

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 26 September, 2018 | 11:50:00 PM

মিজানুর রহমান, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে স্কুল শিক্ষককে মারধোর করার অভিযোগ উঠেছে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে। সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করে ঘটনায় জড়িত ব্যক্তির শাস্তি দাবী করেছেন কিশোরগঞ্জ উপজেলার শিশু নিকেতন স্কুল এ্যান্ড কলেজের কারিগরি শাখার দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষক মোশারফ হোসেন তুলিপ। সংবাদ সম্মেলনে লাঞ্চনার শিকার শিক্ষক ও উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক তুলিপ অভিযোগ করে বলেন, ২৫সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় কিশোরগঞ্জ বাজারে অবস্থিত উপজেলা যুবলীগ অফিস থেকে বের হওয়ার সময় বেধাড়ক মারধর করেন কিশোরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য সহকারী রোকনুজ্জামান ওরফে বুলেট শাহ। ঘটনাটি পরিকল্পিত মন্তব্য করেন তুলিপ বলেন, বুলেটের চাঁদাবাজি, মাদক ব্যবসাসহ বিভিন্ন কর্মকান্ডের সমালোচনা প্রতিবাদ করায় পরিকল্পিত ভাবে আমার উপর আক্রমন করে সে। ঘটনার সময় পার্টি অফিসে তার ভাই উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আবুল কালাম বারী পাইলট উপস্থিত থাকলেও তিনি নিরব ছিলেন । তুলিপ বলেন, এরআগে সকালে আমাকে উদ্দেশ্য করে বুলেট তার নিজের ফেসবুকে সন্ধ্যায় যুবলীগ অফিসে থাকার বিষয়টি জানান দিয়ে সামনা সামনি কথা হবে বলে স্ট্যাটাস প্রকাশ করেন। সংবাদ সম্মেলনে তুলিপ বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা করার প্রস্তুতিসহ বিষয়টি উর্দ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। এসময় প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা কমিটির সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবুল, অধ্যক্ষ আব্দুল মালেক, উপজেলা যুবলীগের সদস্য আতাউল গণি বাবু উপস্থিত ছিলেন। পরে শিশু নিকেতনের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা ঘটনার প্রতিবাদ ও জড়িত ব্যক্তির শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন করেন কিশোরগঞ্জ-নীলফামারী সড়কে। জানতে চাইলে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আবুল কালাম বারী পাইলট বলেন, সেদিন পার্টি অফিসে সে রকম কোন ঘটনা ঘটেনি। যোগাযোগ করা হলে রোকনুজ্জামান ওরফে বুলেট শাহ বলেন, উনার সাথে আমার কোন বিরোধ নেই। ঘটনার সময় আমি পার্টি অফিসে ছিলামও না। বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন তিনি। আমার ভাই বিএনপি-জামায়াতের সময় নির্যাতনের শিকার আবুল কালাম পাইলটকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য এটা করা হচ্ছে।