Home » » প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগ

প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগ

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম News Editor : 13 September, 2018 | 11:10:00 PM

বদরুদ্দোজা বুলু,পার্বতীপুর প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : পার্বতীপুর উপজেলার মোস্তফাপুর ইউনিয়নের অধ্যাপক আফজাল সোবহান উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রতি বিলাস সরকার এর বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত ১ আগষ্ট পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিয়োগ করেন স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সদস্য। অভিয়োগ সুত্রে বলা হয় প্রধান শিক্ষক রতি বিলাস সরকার অনিয়ম ও অর্থ দূর্নীতিসহ সরকারী অনুদান,ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি ফি,সেশন চার্জ, জে এস সি ও নবম শ্রেণির রেজিষ্ট্রেশন ফি ,এস এস সি ফরম পুরণ ফি, ছাত্রীর উপবৃত্তির টিউশন ফি, জে এসসি, এস এস সি, প্রবেশ পত্র,সনদ প্রদান ফি অর্থ তছরুপ করেছেন । তিনি দীর্ঘদিন থেকে কাউকে তোয়াক্কা না করে অফিস মেনেজের মাধ্যমে দীর্ঘ দিন স্কুেল অনিয়ম দূর্নীতির কার্যক্রম চালিয়ে আসছেন। অভিযেগে বলা হয় প্রধান শিক্ষক ২০১০ ইং সালে স্কুলে দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে নিজ সুবিধাভোগী লোকদের ম্যানেজিং কমিটিতে রেখে সরকারী অনুদান ও স্কুলের আয়ের অংশ আতœসাৎ করে। স্কুলের আয়-ব্যয়ের কোন হিসাব নেই। ৬ মাস ধরে ম্যানেজিং কমিটির কোন সভা নেই। স্কুলের আবাদী জমি বন্ধক রেখে ৯০, হাজার টাকা এবং জেলা পরিষদের সরকারী অনুদান হাতিয়ে নেয়ার খাতের মধ্যে টি আর কাজে ৯০, হাজার, স্কুলের মাঠ ভরাট ২৫ হাজার টাকা, লাইব্রেরীর বই ১০, হাজার টাকা এবং জেলা পরিষদে অনুদান ১ লক্ষ ৮৭ হাজার টাকা পুকুর চুরির ঘটনায় জড়িত প্রধান শিক্ষক রতি বিলাস সরকার । শিক্ষাঙ্গনে এমন স্বেচ্ছারিতা অনিয়ম দূর্নীতিতে অভিভাবকগণ উদ্বিগ্ন। এর সুষ্ঠতদন্তসাপেক্ষে স্কুলের হিসাব-নিকাশ স্বচ্ছতা দেখতে চায় অভিভাবকগণ ও স্কুল কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনায় প্রধান শিক্ষক রতি বিলাস সরকার জানান, অভিযোগ সত্য নহে। আমার চাকুরী শেষের দিকে তাই ওনারা এ অভিযোগ করছে। এখনও সময় আছে আমি আমার হিসাব বুঝে দিব। এ বিষয়ে পার্বতীপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসার আব্দুল সাত্তার সরকার জানায়, আমি এ দূর্নীতি ঘটনার বিষয় শুনতে পেরেছি কিন্তু অভিযোগ পত্রটি পেলে বিধিমোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
শেয়ার করুন :