Home » » বদরগঞ্জে আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে কৃষকের জমি দখলের অভিযোগ

বদরগঞ্জে আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে কৃষকের জমি দখলের অভিযোগ

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 29 August, 2018 | 11:36:00 PM

আকাশ রহমান,বদরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : রংপুরের বদরগঞ্জে আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে কৃষকের জমি জোরপুর্বক দখল করে দোকানঘর নির্মানের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর মধ্যপাড়া গ্রামে। এ দিকে অসহায় কৃষক বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেও ন্যায় বিচার না পেয়ে হতাশায় দিন কাটাচ্ছেন। জানা যায়, ওই গ্রামের মৃত খিজির উদ্দিন প্রামানিকের স্ত্রী আকলিমা খাতুন স্বামির মোহরানার অংশে প্রাপ্ত ২২৯০দাগে ৪১শতাংশের মধ্যে ২৬শতাংশ জমি দীর্ঘদিন ধরে ভোগদখল করে আসছিলেন। ১৯৯০সালে আকলিমা খাতুন প্রয়োজনে একই এলাকার আবুল কালাম মনসুর সরদারের কাছে জমিটি বিক্রি করেন। ২০১৭সালে আবুল কালাম মনসুর জমিটি একই এলাকার শহিদুল ইসলামের নিকট বিক্রি করেন। পরবর্তীতে শহিদুল ইসলাম জমিটি খারিজ করে খাজনা পরিশোধ করেন। এর পর কৃষক শহিদুল উক্ত ক্রয়কৃত জমিতে ঘর নির্মান করতে গেলে একই এলাকার হাবিবুর রহমান গং তাতে বাধা প্রদান করেন। উপায় না পেয়ে কৃষক শহিদুল ইসলাম বিজ্ঞ আদালতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে ১৪৪/১৪৫ধারার বিধানমতে মামলা আনায়ন করেন। বিজ্ঞ আদালত উক্ত জমিতে (২৫জুলাই/১৮)আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে দুই মাসের নিষেধাজ্ঞা জারি করে। কিন্তু ৭দিন যেতে না যেতেই প্রতিপক্ষ হাবিবুর রহমান ও তার লোকজন উক্ত জমিতে জোরপুর্বক দোকানঘর নির্মান করেন। এ দিকে কৃষক শহিদুল ইসলাম পুলিশের দারস্থ হলেও শুধুমাত্র এক দিন থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে হাবিবুর গংকে দোকান নির্মান করতে নিষেধ করা আসেন। এ ব্যাপারে কৃষক শহিদুল ইসলাম জানান, জমিটি অনেক ধারদেনা করে কিনেছি। এ ছাড়া আমার আর কোন জমি নেই। তা ছাড়া আমি যার কাছ হতে জমিটি ক্রয় করি সে প্রথমে আকলিমার কাছ হতে জমিটি কিনেছে। আর হাবিবুর কিনেছে পরে। অভিযুক্ত হাবিবুর রহমান জানান, আমি আকলিমার কাছ হতে জমিটি ক্রয় করি। আদালতে যদি আমি জমি না পাই তাহলে জমি নিব না। বদরগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) শাহিনুর আলম জানান, ঘটনাটি আমার জানা নেই। তা ছাড়া ওসি স্যার ছুটিতে আছেন। বিষয়টি নিয়ে ওসি স্যারের সাথে কথা বলেন।