Home » » দিনাজপুরে ফিলিং ষ্টেশনে ডাকাতি মামলায় সাক্ষীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা

দিনাজপুরে ফিলিং ষ্টেশনে ডাকাতি মামলায় সাক্ষীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম News Editor : 07 June, 2018 | 11:29:00 PM

স্বরূপ বকসী বাচ্চু, দিনাজপুর ব্যুরোচিলাহাটি ওয়েব : দিনাজপুরে জঙ্গীদের অর্থ সংগ্রহের জন্য ফিলিং ষ্টেশনে ডাকাতির ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ৪ সাক্ষীকে আদালতে হাজির করে সাক্ষ্য দেয়ার জন্য গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করা হয়েছে। দিনাজপুরে জঙ্গীদের অর্থ সংগ্রহের জন্য সদর উপজেলার নতুন ভুষিরবন্দর তৃপ্তি ফিলিং ষ্টেশনে ২০১৫ সালে ১০ ডিসেম্বর রাতে জঙ্গীদের ডাকাতির ঘটনায় দায়ের করা মামলার বৃহস্পতিবার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-২ এর বিচারক মোঃ রফিকুল ইসলাম এর আদালতে সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য দিন ধার্য ছিল। ওই মামলায় কারাগারে আটক নব্য জেএমবির সদস্য ওসমান গনি (২৮), জোবায়ের হোসেন ওরফে শাহিন ওরফে হাওলাদার (২৫), সাদ্দাম হোসেন (২৫), আহসান হাবিব (৩২), রমজান আলী ওরফে সৈকত (২৪) ও আব্দুল খালেক ওরফে উমায়ের ওরফে মামা (২৬)কে কড়া পুলিশ প্রহরায় বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতে হাজির করা হয়। মামলার সাক্ষীদের প্রতি গত ধার্য তারিখে আদালত থেকে হাজির করতে গ্রেফতারী পরোয়ানা আদেশ প্রদান করা হয়। মামলার এজাহারকারী অমল কুমার ও অপর সাক্ষী সুজন কুমার বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির হয়ে সাক্ষ্য প্রদান করেছেন। মামলার অপর ৪ সাক্ষী তৃপ্তি ফিলিং ষ্টেশনের মালিক ভবানী শংকর আগরওয়ালা, প্রত্যক্ষদর্শী আব্দুল মতিন, যুগল রায় ও রহমত আলীকে আগামী ২৩ জুলাই আদালতে হাজির করতে বিচারক গ্রেফতারী পরোয়ানা জারীর আদেশ প্রদান করেছেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে আটক ৬ জঙ্গীকে আদালত থেকে পুনরায় কড়া পুলিশ প্রহরায় জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। এই চাঞ্চল্যকর মামলার সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য দিন ধার্য থাকায় আদালত এলাকায় কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছিল। উল্লেখ্য যে, ২০১৫ সালের ১০ ডিসেম্বর রাতে জঙ্গী কর্মকান্ডে অর্থ সংগ্রহের জন্য ৩টি মোটরসাইকেলে ৯ জন নব্য জেএমবির সদস্য সশস্ত্র অবস্থায় সদর উপজেলার নতুন ভুষিরবন্দর তৃপ্তি ফিলিং ষ্টেশনে ডাকাতি করে ১ লক্ষ ৬৯ হাজার ২৮১ টাকা লুট করে নিয়ে যায়। যাওয়ার পথে জনতার ধাওয়ায় জঙ্গী সদস্যদের আটক করে। জনতার গণপিটুনিতে সাব্বির হোসেন (৩০) নামের এক জঙ্গী মারা যায়।
শেয়ার করুন :