Home » » কিশোরগঞ্জে বাড়ী লুটপাট ও ভাংচুর থানায় অভিযোগ

কিশোরগঞ্জে বাড়ী লুটপাট ও ভাংচুর থানায় অভিযোগ

মিজানুর রহমান, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার মাগুড়া ইউনিয়নের বানিয়া পাড়া গ্রামে জমি সংক্রান্ত ঘটনার জের ধরে মরহুম আছির উদ্দিনের ছেলে জিল্লর রহমানের বাড়ী লুটপাট ও ভাংচুর করে তাকে উঠে নিয়ে গিয়ে মারপিট করেছে প্রতিপক্ষরা।এঘটনায় জিলুøর রহমানের স্ত্রী আনিছা বেগম কিশোরগঞ্জ থানা অভিযোগ দায়ের করেছেন। সরেজমিন গিয়ে জানা গেছে, জিল্লুর রহমানের ৬০ শতাংশ জমি তছির উদ্দিনের ছেলে মেনাজ উদ্দিন গংরা দীঘদিন থেকে জবর দখল করে রেখেছে। গত কাল সেমবার দুপুর ১২টার দিকে ওই জমিদিয়ে হেটে যায় যায় জিলুøর রহমানের স্ত্রী আনিছা বেগম। দেখতে পেয়ে মেনাজ গংরা আনিছা বেগমকে অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করে। এর প্রতিবাদ করলে মেনাজ উদ্দিন(৫৫), শামীম(৩৫),অহেদুল(৪০) ,শিপন (৪০), হবিবর (৬০)সহ আরো অন্যান্য সঙ্গীয় ব্যাক্তি গন জিল্লুর রহমানের বাড়ী লুট করে তাকে তুলে নিয়ে যায় এবং ঘরে আটকে রেখে মারপিট করে। পরে ওই ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাহমুদুল হোসেন শিহাবের হস্ত ক্ষেপে গ্রাম পুলিশ আমির আলী তাকে উদ্ধার করে । জিল্লুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, গ্রাম পুলিশ আমাকে তৎক্ষনিক উদ্ধার না করলে তারা আমাকে মেরে ফেলে লাশ গুম করতো। তিনি আরো বলেন দীঘদিন থেকে জমি নিয়ে প্রতিপক্ষের সাথে আমার দন্দ চলে আসছে। এঘটনায় কয়েকবার শালিস বৈঠকও হয়েছে। কিন্তু দাঙ্গাবাজ মেনাজ উদ্দিন গংরা গ্রামের শালিস বৈঠক না মেনে কোটে মামলা করে। পরে তারাই আবার সাড়ে চার বছর পর মামলা প্রত্যাহার করে নেয়। গ্রাম পুলিশ আমীর আলী জিল্লুর রহমানকে প্রতিপক্ষের হাত থেকে উদ্ধার করার কথা স্বীকার করেন। মাগুড়া ইউনিয়ন পরিষদচেয়ারম্যান মাহমুদুল হোসেন শিহাব বলেন, মেনাজ গংরা সংখ্যায় বেশি বলে গ্রাম শালিসের বিচার মানেনা। মেনাজ উদ্দিনের সাথে কথা বললে তিনি বাড়ীঘর লুট পাট ও ভাংচুরের কথা অস্বীকার করেন। কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনর্চাজ হারুন অর রশিদ অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন।
শেয়ার করুন :