Home » » দিনাজপুর বীরগঞ্জ থানার ওসি সাকিলার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

দিনাজপুর বীরগঞ্জ থানার ওসি সাকিলার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 21 June, 2018 | 12:17:00 AM

স্বরূপ বকসী বাচ্চু, দিনাজপুর ব্যুরা,চিলাহাটি ওয়েব : দিনাজপুর বীরগঞ্জ থানার ওসি সাকিলা পারভীনের বিরুদ্ধে অনিয়ম, দূনীতি, সীমাহীন ঘুষ বানিজ্য এবং মানুষকে হয়রানীমুলক মিথ্যা মামলায় ফাঁসানের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। বুধবার দুপুর ১২টায় দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বীরগঞ্জ থানার ওসি সাকিলা পারভীনের বিভিন্ন অভিযোগ এনে তার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন ভুক্তভোগী নারী শাহানাজ পারভীন। তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, বীরগঞ্জ থানার ওসি সাকিলা পারভীন, এসআই দুলাল হোসেন, এসআই আমজাদ হোসেন ও এসআই মসিউর রহমান পরিকল্পিত ভাবে মানুষকে হয়রানীর মাধ্যম্যে অর্থনৈতিক ফায়দা হাসিল করছে। তিনি অভিযোগ করেন, স্থানীয় সাধারন নিরীহ মানুষকে বিভিন্ন ধরনের মামলায় ফাঁসানোর ভয়ভীতি দেখিয়ে ঘুষ বানিজ্য চালিয়ে যাচ্ছে ওসিসহ তার সহযোগী পুলিশ কর্মকর্তারা। গত ১২মে থানা ক্যাম্পাসে আয়োজিত অপেন হাউজ ডে’র আলোচনা সভায় পুলিশ সুপারের সম্মুখে ভুক্তভোগী জনসাধারণ ওসির বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ উপস্থাপন করেন। পুলিশ সুপার তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ তদন্ত করে দেখবেন বলে জনসাধারণকে আশ্বস্ত করলেও কোন প্রতিফলন পাওয়া যায়নি। তিনি অভিযোগ করেন, তার শিশু সন্তান স্কুল ছাত্র জিশান আল আহাদ ওরফে পারভেজসহ ৫জনকে মিথ্যাভাবে অর্থ আদায়ের জন্য গাজা সেবন করার অভিযোগ এনে আটক করা হয়। এর মধ্যে দুইজন হিন্দু পরিবারের সন্তান হওয়ায় প্রভাবশালীদের তদবিরে ছেড়ে দেয়া হলেও অন্য ৩ জনকে ছেড়ে না দেয়া হয়নি। অথচ আমার সন্তান এবং অপর আরো দুজনকে ৫০ হাজার টাকা উৎকোচ নিয়ে ছেড়ে দেয়ার কথা বললেও পরে তাদের অশালীন আচরণের অভিযোগ এনে আদালতে চালান দেয়া হয়। সত্য বক্তব্য তুলে ধরতে গিয়ে আজ আমার সন্তান চক্রান্তমুলক মিথ্যা মাদক মামলার আসামী হয়েছে। তিনি বলেন,বীরগঞ্জ থানা পুলিশ মাদক নির্মূলের ধুয়া তুলে ২৬ ধারায় ঘুষ বানিজ্য শুরু করেছে এবং নিরীহ মানুষকে হয়রানী করছে। বীরগঞ্জে ইতিপূর্বে ঘটে যাওয়া হত্যাসহ বিভিন্ন ঘটনা ওসি সাকিলাসহ থানা পুলিশ অর্থের বিনিময়ে ধামাচাপা দিয়েছে। ওসি সাকিলার বিরুদ্ধে জাল টাকা ও জাল ডলার ব্যবসায়ী ও মাদক ব্যবসায়ীদের মদদ দেয়া এবং বীরগঞ্জ উপজেলায় শতাধিক স্থানে প্রকাশ্যে জুয়ার জমজমাট আয়োজন থেকে উৎকোচ গ্রহণ ব্যবস্থা নেয়ার জন্যে প্রধানমন্ত্রী ও পুলিশ সুপারসহ সংশ্লীষ্ট ১৮টি দপ্তরে অভিযোগ করা হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তিনি আইন-শৃংখলা বাহিনীর কর্মকর্তা হয়েও ওসি সাকিলা অপরাধমুলক কর্মকান্ড চালাচ্ছেন তা তদন্ত সাপেক্ষে বিচার প্রার্থনা করেন। তার স্বামী রতন থানা ক্যাম্পাসে থেকে বিভিন্ন দরবারের মাধ্যমে স্ত্রী ওসির নামে ঘুষের টাকা আদায় করে বলে ওপেন জনশ্রুতি রয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে শিশু সন্তান স্কুল ছাত্র জিশান আল আহাদ ওরফে পারভেজ উপস্থিত ছিলেন। এব্যাপারে ওসি সাকিলার সাথে মোবাইল ফোনে কথা বলা হলে তিনি তার অভিযোগের বিষয় অস্বীকার করেন এবং তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ তদন্ত হচ্ছে বলে জানান।