Home » » আটোয়ারীতে বকেয়া ভাতার টাকার কথা বলতে গেলেই হতে হয় লাঞ্চিত

আটোয়ারীতে বকেয়া ভাতার টাকার কথা বলতে গেলেই হতে হয় লাঞ্চিত

এ রায়হান চৌধূরী রকি, আটোয়ারী প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : গ্রাম পুলিশ বলে কি আমরা মানুষ নই ? অটোয়ারীতে গ্রাম পুলিশদের বকেয়া ভাতার টাকার কথা বলতে গেলেই হতে হয় লাঞ্চিত। পঞ্চগড় জেলা গ্রাম পুলিশ সমিতির সভাপতি মোঃ মকসেদ আলী ও গ্রাম পুলিশ আনোয়ার হোসেন অভিযোগ তুলে বলেন- আটোয়ারী উপজেলা ব্যতিত গোটা পঞ্চগড় জেলা সহ পাশার্¦বর্তী ঠাকুরগাঁও জেলার সকল গ্রাম পুলিশগণ নিয়মিত যাতায়াত ভাতা পেলেও আমরা দীর্ঘ ৮ মাস থেকে এই উপজেলার ৬০ জন গ্রাম পুলিশ অজ্ঞাত কারণে যাতায়াত ভাতা থেকে বঞ্চিত রয়েছি। প্রতিনিয়ত যাতায়াত ভাতার কথা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে সিএ মোঃ মিজানুর রহমান এর কাছে গিয়ে বলতে যাই তখন তিনি অসাদাচারন করে দুর দুর করে তাড়িয়ে দেয় এবং রাগাম্বীত হয়ে বলেন, একাউন্টে কোন টাকা নেই টাকা কি চুরি করে এনে দিব। যাও চলে যাও এখানে আর আসবেনা। দীর্ঘ ৮ মাস থেকে ভাতা না পাওয়ায় পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলার গ্রাম পুলিশগণ মানবেতর জীবন যাপন করছেন। বকেয়া ভাতা পাওয়ার আশায় প্রতি নিয়ত উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে কড়া নাড়লেও কোন লাভ হচ্ছেনা বলে অভিযোগ তুলেছেন ভুক্তভোগী গ্রাম পুলিশগণ। উপজেলা গ্রাম পুলিশ সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা ও দলিল উদ্দীন জানান, বকেয়া যাতায়াত ভাতা পাওয়ার জন্য আমরা একত্রিত হয়ে ইউএনও স্যারের সামনে গিয়ে দাড়াতে না দাড়াতেই তিনি বলেন টাকা নাই টাকা নাই যাও যাও বাড়ি চলে যাও টাকা আসলে দিব। এ অবস্থায় পবিত্র মাহে রমজানে আমরা পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছি। সামনে আবার ঈদ। এ ঘটনায় উর্দ্বোতন কর্মকর্তার নেক দৃষ্টি কামনা করছেন গ্রাম পুলিশ সদস্যরা। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন সুলতানার সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।
শেয়ার করুন :