Home » » বদরগঞ্জে শৈত্য প্রবাহের কারণে মরে গেছে একাধিক পুকুরের মাছ

বদরগঞ্জে শৈত্য প্রবাহের কারণে মরে গেছে একাধিক পুকুরের মাছ

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 08 January, 2018 | 4:46:00 PM

আকাশ রহমান, বদরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব :রংপুরের বদরগঞ্জে ৫দিনের টানা শৈত্যপ্রবাহে একাধিক পুকুরের বিভিন্ন প্রজাতের মাছ মরে গেছে। আজ সোমবার সকালে সুর্যদয়ের সাথে সাথে পুকুরে মরা মাছ পানিতে ভাসতে দেখে স্থানীয় জেলেরা এর জন্য শৈত্যপ্রবাহকে দায়ী করেন। তবে মৎস্য অফিস জানিয়েছে, প্রচন্ড শৈত্যপ্রবাহ কিংবা ভাইরাস জনিত কারণে গোটা কয়েক মাছ মরে গেলেও একই সাথে পুকুরের মাছ, ব্যাঙ ও অন্যান্য জলজ প্রাণি মরে যাওয়ার কথা নয়। এক সাথে বিপুল পরিমান মাছ নিধন অন্য কোন কারণ হতে পারে।
প্রত্যক্ষশর্দী সুত্রে জানা যায়, উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নের দিলালপুর সুতারপাড়া গ্রামের ছবকাদ মাষ্টার দীর্ঘদিন ধরে বাড়ীর পার্শ্বে তার পুকুরে বিভিন্ন প্রজাতের মাছ চাষ করে আসছেন। গত কয়েকদিন ধরে প্রচন্ড শৈত্যপ্রবাহের কারণে তিনি পুকুরে যেতে পারেননি। 
 সকালে তিনি পুকুরের পাড়ে গিয়ে পানিতে মরা মাছ ভাসতে দেখে বিস্মিত হন। সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয় ইউপি সদস্য সচিন্দ্রনাথ রায়কে ঘটনাস্থলে ডেকে এনে বিষয়টি সম্পর্কে অবগত করেন। পরে স্থানীয় জেলেদেরকে মাধ্যমে মরা মাছগুলো পুকুর থেকে সরিয়ে ফেলেন। এ প্রসঙ্গে ছবকাত ম্ষ্টারের পুত্রবধূ রাশেদা বেগম জানান, আমরা ধারনা করছি কেবা কাহারা শত্র“তাপুর্বক আমাদের পুকুরে কীটনাশক প্রয়োগ করে বিভিন্ন প্রজাতের মাছ মেরে ফেলেছে। পুকুরের পানি বিষাক্ত হয়ে মাছ ব্যাঙ ও বিভিন্ন প্রকার জলজ প্রাণি মরে গেছে। এ পর্যন্ত আমরা ৬০কেজি মাছ অর্ধ মৃত্যু অবস্থায় বিক্রি করেছি। এছাড়াও আরো অনেক মাগুর ও পাঙ্গাস মাছ নষ্ট হয়েছে। 
এবিষয়ে ইউপি সদস্য সচিন্দ্রনাথ রায় সাংবাদিকদের বলেন, আজ সোমবার সাত সকালে ছবকাত মাষ্টারের জরুরী ফোন পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি তার পুকুরের বিপুল সংখ্যক মাছ মরে গেছে। পরে জানতে পারলাম শুধু ছবকাত মাষ্টারের নয় এই এলাকার মাদারগঞ্জ বাজারের জামে মসজিদ সংলগ্ন স্থানে মৎস্যচাষী নুরুল ইসলামের একটি পুকুরের একইভাবে বেশ কিছু বিভিন্ন প্রজাতের মাছ মরে ভেসে উঠেছে। আকর্ষিকভাবে পুকুরের মাছ মরে যাওয়ার জন্য স্থানীয় জেলেরা প্রচন্ড শৈত্যপ্রবাহকে দায়ী করছেন।
এবিষয়ে, বদরগঞ্জ উপজেলা মৎস্য অফিসের সিনিয়র ক্ষেত্রসহকারী রোকনুজ্জামান বলেন, শৈত্যপ্রবাহের কারণে কিছুটা মাছ মারা গেলেও পুকুরের বিপুল সংখ্যক মাছ মারা যাওয়ার কথা নয়। এটি অন্য কোন কারণ হতে পারে। তবে এই ব্যাপারে ভুক্তভোগী পুকুরের মালিকগণ থানা পুলিশের সহায়তা নিতে পারেন।