Home » » বদরগঞ্জে শিক্ষার্থীর গোপনাঙ্গে পেটানোর ঘটনায় থানায় অভিযোগ

বদরগঞ্জে শিক্ষার্থীর গোপনাঙ্গে পেটানোর ঘটনায় থানায় অভিযোগ

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 04 January, 2018 | 11:43:00 PM

আকাশ রহমান, বদরগঞ্জ প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : রংপুরের বদরগঞ্জে মাদরাসার শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীর গোপনাঙ্গে পেটানোর ঘটনায় অবশেষে থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার ওই শিক্ষার্থীর পিতা মোশারফ হোসেন বাদী হয়ে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে বদরগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। জানা যায়, উপজেলার লোহানীপাড়া ইউনিয়নের উত্তর মাধাইখামার গ্রামের দিনমজুর মোশারফ হোসেন আরবি শিক্ষাদানের জন্য তার ছেলে রিয়াজুল হককে (১২) উত্তর কচুয়া নুরানী হাফিজিয়া এতিমখানা মাদরাসার ৫/৬ মাস পুর্বে হাফিজিয়া শাখায় ভর্তি করেন। গত মঙ্গলবার (২রা জানুয়ারী) দুপুরে ওই মাদরাসার শিক্ষক মামুনুর রশিদের নির্দেশ মোতাবেক কাজ না করায় তিনি ওই শিক্ষার্থীর গোপনাঙ্গে গাছের ডাল দিয়ে (লাঠি) এলোপাতাড়ি মারপিট করে। এতে ওই শিক্ষার্থীর গোপনাঙ্গে স্বজোরে আঘাত লেগে তার অন্ডকোষ ফেটে গিয়ে রক্তাক্ত ও ফোলা জখম হয়। গ্রামবাসীর মাঝে বিষয়টি জানাজানি হলে গ্রামবাসী মুমুর্ষ অবস্থায় ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় নাগেরহাট বন্দরের পল্লী চিকিৎসক শ্রী কাজল চন্দ্রের ওষুধের দোকানে নিয়ে যায়। কিন্তু সেখানে শিক্ষর্থীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এবিষয়ে আহত শিক্ষার্থীর বাবা মোশারফ হোসেন অভিযোগ করে বলেন, ঘটনার পর আমি কমিটির সভাপতি ও সদস্যদের কাছে আমার ছেলেকে পেটানোর বিচার চাইতে গিয়েছিলাম। কিন্তু তারা ওই পাষন্ড শিক্ষকের বিচার না করে উল্টো আমাকে হুমকী দিয়ে শাসিয়ে বাড়ীতে পাঠিয়ে দেন। এমনকি তারা আমাকে কোথাও কোন অভিযোগ করতে বার বার নিষেধ করেছেন। কমিটির সদস্যদের ভয়ে আমি এতদিন কোথাও অভিযোগ করার সাহস পাইনি। অবশেষে এলাকার লোকজনের সহযোগীতায় বদরগঞ্জ থানায় অভিযোগ করতে বাধ্য হলাম। আশা করি আমি ন্যায় বিচার পাব। এবিষয়ে উত্তর কচুয়া নুরানী হাফিজিয়া এতিমখানা মাদরাসা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব আজিজুল হক মোবাইল ফোনে বলেন, রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওই আহত শিক্ষার্থীর উন্নত চিকিৎসা চলছে। শিক্ষার্থী সুস্থ না হলে আপাতত কিছু বলা যাচ্ছে না। তবে অভিযুক্ত শিক্ষক মামুনুর রশিদ বলেন, আমাকে কমিটির লোকজন যেভাবে চালাচ্ছেন আমি ঠিক সেইভাবে চলছি। এর চেয়ে বেশি কিছু বলতে পারব না। বদরগঞ্জ থানার ওসি আখতারুজ্জামান প্রধান বলেন, বাদীর লিখিত অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ঘটনাস্থল তদন্ত করে আসামীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রাশেদুল হক বলেন, লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্তপুর্বক ওই অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।