Home » » সাদুল্যাপুরে দেড় বছরেও হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন হয়নি

সাদুল্যাপুরে দেড় বছরেও হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন হয়নি

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম : 22 January, 2018 | 9:54:00 PM

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা প্রতিনিধি,চিলাহাটি ওয়েব : গাইবান্ধা জেলার সাদুল্যাপুর উপজেলার ভাতগ্রাম ইউনিয়নের বুজরুক জামালপুর গ্রামের দারিদ্র ভ্যান চালক মোস্তাফিজুর হত্যার দীর্ঘ দের বছর পেরিয়ে গেলেও হত্যার রহস্য এখন পর্যন্ত বের করতে পারেনি পুলিশ। এনিয়ে চরম হতাসায় পড়েছে পরিবার ও এলাকাবাসী। ২০১৬ সালের ১৯ই নভেম্বর সন্ধ্যায় নামাজ পড়ে ভ্যান নিয়ে ভাতগ্রাম বাজারে যায়। সেখানে অজ্ঞাত দুই যাত্রী সহ মাঝ পথে আরো এক যাত্রী নিয়ে গাছুর বাজার যাওয়ার মাঝ রাস্তায় (বাবুর টেকানী) নামক স্থানে পৌঁছিলে কে বা কারা ভ্যান চালক মোস্তাফিজুরকে গলা কেটে হত্যা করে ফেলে রেখে যায়।
পরে স্থানীয় লোক পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠায়। ঘটনার পর দিন ২০ নভেম্বর নিহতের স্ত্রী শাপলা বেগম বাদী হয়ে অজ্ঞাত ৩ জন আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করে সাদুল্যাপুর থানায়। এ হত্যা কান্ডের ঘটনায় পুলিশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করলেও অজ্ঞাত কারণে তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়। নিহতের ছোট ভাই হয়রত আলী বলেন, আমার ভাইকে সন্ধ্যায় ডেকে নিয়ে গিয়ে হত্যা করা হয়। কিন্তু দীর্ঘদিন পেরিয়ে গেলেও ভাই হত্যার বিচার এখন পর্যন্ত পেলাম না। অন্যদিকে, নিহতের বৃদ্ধ বাবা মফিজুল হক বলেন, আমার ছেলের হত্যা বিচারের দাবীতে বিভিন্নজনের দারে দারে ঘুরছি কোন বিচারের আশ্বাস পাইনা। কে আমার ছেলেকে হত্যা করেছে তাও এত দিনেও জানতে পারলাম না ।
অপর দিকে, ৩১ ডিসেম্বর এ মামলার অভিযুক্ত কোন আসামীকে না দেখিয়ে মামলার ফাইন্যাল দেন মামলার তদন্তকারী কর্র্মকতা আনোয়ার হোসেন। এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।
পরিবার এবং স্থানীয়দের দাবী তদন্ত কর্মকর্তার গাফলতি বা অন্যকোন কারণে এ হত্যা মামলাটির কোন ক্লু উদঘাটন করতে পারছেনা পুলিশ। তাই মামলাটি পূনরায় তদন্ত করলে প্রকৃত ঘটনা উন্মোচনসহ প্রকৃত আসামী সনাক্ত করা যাবে বলে পরিবারের লোকজন দাবী করেন।