Home » » দিনাজপুরে ৬২ হাজার ৭২৫ হেক্টর জমিতে বাম্পার ভুট্টা চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ

দিনাজপুরে ৬২ হাজার ৭২৫ হেক্টর জমিতে বাম্পার ভুট্টা চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ

চিলাহাটি ওয়েব ডটকম News Editor : 23 November, 2017 | 9:34:00 AM

স্বরূপ বকসী বাচ্চু, দিনাজপুর ব্যুরো,চিলাহাটি ওয়েব : দিনাজপুর ১৩টি উপজেলায় ৬২ হাজার ৭২৫ হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। অর্জিত হবে ৫ লক্ষ ৩ হাজার মেট্রিক টন ভুট্টা। এ পর্যন্ত ১৬ হাজার হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষ অর্জিত হয়েছে।
 দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক গোলাম মোস্তফা জানান, চলতি বছর জেলার ১৩টি উপজেলায় ৬২ হাজার ৭২৫ হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। কৃষি অধিদপ্তরের বেধে দেয়া লক্ষ্যমাত্রা অতিরিক্ত ভুট্টা চাষে উদ্বুদ্ধ করতে ব্লক সুপারভাইজারদের মাধ্যমে মাঠে কার্যক্রম চলমান রয়েছে। ১ নভেম্বর থেকে ২০ নভেম্বর পর্যন্ত জেলায় প্রায় ১৬ হাজার হেক্টর জমিতে ভ্ট্টুা চাষ অর্জিত হয়েছে। কোন প্রকৃতিক দুর্যোগ না হলে অনুকুল আবহাওয়া চলমান থাকলে জেলায় আগামী বছর ১৫ মার্চ পর্যন্ত কৃষকেরা ভুট্টা চাষ করতে সক্ষম হবে। এবারে জেলায় ভুট্টার বাম্পার ফলন অর্জিত করার লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে কৃষকদের উদ্বুদ্ধকরণ ও ভুট্টা চাষে আগ্রহী করতে কৃষি অধিদপ্তরের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।
 জেলার বিরল, বোচাগঞ্জ, বীরগঞ্জ, চিরিরবন্দর, পার্বতীপুর, বিরামপুর, নবাবগঞ্জ ও ঘোড়াঘাট উপজেলায় ভুট্টার চাষ বেশি হয়। অতিরিক্ত ফলন হিসেবে আমন ধান কর্তনের পর আলু চাষ এবং আলু উত্তোলনের পর ভুট্টা বোপন করা হয়। ফলে কৃষকেরা অতিরিক্ত ফলন হিসেবে ভুট্টা উৎপাদন করতে সক্ষম হয়েছে। দিনাজপুর কৃষি অধিদপ্তরের ভুট্টা চাষ বিষয়ক গবেষক সহকারী পরিচালক আরিফ হাসান জানান, ভুট্টার অধিক ফলনের জন্য নতুন ভ্যারাইটির ভুট্টার জাত সৃষ্টি করা হয়েছে। এর মধ্যে পাইনিয়ার ৯২, ৯৬, ৮০৮, ৯৮১, ৯৮৪, লালডোর, এলিট ৯১২০, এভারেস্ট, মুকুট, ৯০০, এমগোল্ড মিরাকেস ৯৮৭, ৯৯৯ উল্লেখযোগ্য ভ্যারাইটি। 
এসব ভ্যারাইটির ভুট্টা বোপনের পর স্বল্প সময়ের মধ্যে চারা গজায় এবং ৪০ থেকে ৫০ দিনের মধ্যে ভুট্টার থোর নেমে যায়। ৯০ দিনের মধ্যে ভুট্টা পরিপক্ক হয়ে কৃষকেরা ফলন ঘরে তুলতে পারে। গত বছর কৃষকেরা ভুট্টা চাষ করে অর্জিত ভুট্টার ভালো মূল্য পেয়েছে। প্রতি কেজি শুকনা ভুট্টা ১৫ থেকে ১৭ টাকা এবং কাচা ভুট্টা ১০ থেকে ১২ টাকা দরে বিক্রি করতে পেরেছে। 
ভুট্টা গরু, ছাগল ও মাছের খাবার থেকে শুরু করে বেকারীর উন্নতমানের ফাস্টফুড খাবার প্রস্তুত হচ্ছে। ফলে ভুট্টার কদর ক্রমেই বেড়েই চলছে। সব মিলিয়ে জেলায় এবারে বাম্পার ভুট্টার ফলন অর্জিত করতে কার্যক্রম চলমান রয়েছে। উল্লেখ্য যে, গত বছর জেলায় ৬০ হাজার ৬২৫ হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষ অর্জিত হয়েছিল। উৎপাদন হয়েছিল ৫ লক্ষ ২৫০ মেট্রিক টন ভুট্টা।
শেয়ার করুন :